শিরোনাম:
●   ডোমারে অপহরণ মামলার দেড় মাস পর আসামি ও মেয়ে উদ্ধার ●   পড়বি তো পড় মালির ঘাড়ে ! ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলের কাছ থেকে ঘুষ নেয়ায় কুষ্টিয়া সাব-রেজিস্ট্রার অফিস কর্মচারী সাসপেন্ড ●   স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোতে গণতন্ত্র চর্চায় যুব জনগোষ্ঠীর ভুমিকা: তাৎপর্য, চ্যালেঞ্জ ও করনীয় ●   পরীমনির দশ কোটি টাকার ফ্ল্যাট ও উচ্ছৃঙ্খল জী’বনযাপন নিয়ে নানা প্রশ্ন! ●   ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলের কাছ থেকে ঘুষ নিলো কুষ্টিয়া সাব-রেজিস্ট্রার অফিস কর্মচারী ●   বোট ক্লাবে পরীমণির মদ খাওয়ার ভিডিও ভাইরাল ●   নবম শ্রেণীর কি’শোরের হাত ধরে পালাল তিন সন্তানের জননী! ●   পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে ১৫টি গাঁজার গাছসহ গাঁজা ব্যবসায়ী আটক ●   লকডাউন না মানায় : ভেড়ামারায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৭ হাজার টাকা জরিমানা ●   পরীমনির বিপুল বিত্তের উৎস নিয়ে তোলপাড়
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮

Bijoynews24.com
বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০১৭
প্রথম পাতা » জাতীয় সংবাদ | বক্স্ নিউজ | শিরোনাম | সাক্ষাতকার | স্পেশাল রির্পোট » কুমারখালীবাসী জয়নাল আবেদীনকে রাজনীতিতে উজ্জ্বল নক্ষত্র হিসেবে দেখতে চান
প্রথম পাতা » জাতীয় সংবাদ | বক্স্ নিউজ | শিরোনাম | সাক্ষাতকার | স্পেশাল রির্পোট » কুমারখালীবাসী জয়নাল আবেদীনকে রাজনীতিতে উজ্জ্বল নক্ষত্র হিসেবে দেখতে চান
বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০১৭
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

কুমারখালীবাসী জয়নাল আবেদীনকে রাজনীতিতে উজ্জ্বল নক্ষত্র হিসেবে দেখতে চান

---বিজয় নিউজ :
৮০’র দশকে কুষ্টিয়ার রাজপথ কাপানো সময়ের  এক সাহসী ছাত্রনেতা  মোঃ জয়নাল আবেদীন। স্বৈরাচার ও সামরিক শাসন বিরোধী আন্দোলন ও কুষ্টিয়ায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় পুনঃপ্রতিষ্ঠার আন্দোলনে তার ভূমিকা ছিল স্মরণযোগ্য। সাধারণ ছাত্র ছাত্রীদের কাছে জয়নাল আবেদীন ছিলেন একজন আদর্শবাদী ছাত্রনেতা । সদা হাস্যোজ্বল বন্ধুবাৎসল্য জয়নাল আবেদীন বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণীত হয়ে মেধাবী ছাত্র হিসেবে তিনি স্কুল পড়ুয়া অবস্থায় ছাত্রলীগের রাজনীতির নাথে জড়িয়ে পড়েন।
১৯৭০ সালে পান্টি হাই স্কুল ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়ে উপনিবেশিক শাসন শোষণের বিরুদ্ধে সোচ্চার হন। বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে সে সময় ছাত্র অবস্থায়ই তরুণ এই ছাত্র নেতা ৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েন। পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে জয়নাল আবেদীন বেশ কয়েকটি সম্মুখ যুদ্ধে লিপ্ত হয়ে সফল হন। ১৯৭১ এর ৬ই ডিসেম্বর কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালীর ঢল নগর প্রতাপপুরে মিলেশিয়া ও পাক বাহিনীর বিরুদ্ধে সম্মুখ যুদ্ধে গুলিবিদ্ধ হয়ে তিনি আহত হন। এইচ এস সি অধ্যয়ন কালে ১৯৭৫ এর ১৫ আগষ্ট কালরাতে ঘাতকেরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা  করলে তিনি প্রতিবাদে পান্টিতে প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ করায় তার বিরুদ্ধে হুলিয়া জারি করা হয়।
তিন বছর পালিয়ে থাকার  পর এলাকায় ফিরে এসে আবার পান্টি কলেজে লেখাপড়া শুরু করেন। ১৯৭৮ সালে জয়নাল আবেদীন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের মনোনয়ন পেয়ে বিপুল ভোটে পান্টি কলেজ ছাত্র সংসদের ভি পি নির্বাচিত হন এবং কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সদস্য পদ লাভ করে। বিচক্ষণ ছাত্রনেতা হিসেবে মূল্যায়িত হতে থাকেন। ১৯৮০ সালে কুষ্টিয়া সরকারী কলেজ ছাত্র সংসদের জি এস নির্বাচিত হন এবং ১৯৮৪ সালে জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদ লাভ করেন। তিনি কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় পুনঃপ্রতিষ্ঠার আন্দোলনে স্বক্রিয় ভূমিকা রাখেন। ১৯৮৫ সালে কুষ্টিয়া সরকালী কলেজ মাঠে তৎকালীন স্বৈরাচার রাষ্ট্রপতি এইচ এম এরশাদের জনসভা করতে এলে জয়নাল আবেদীন নেতা কর্মীদের সাথে নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। ঐ সময় হাজারও জনগণ জুতা-স্যান্ডেল নিক্ষেপ করে ফলে জনসভা ভন্ডুল হয়ে যায়। জয়নাল আবেদীন সহ ৬ ছাত্রনেতা ঐদিন রাতেই গ্রেফতার হন। ৭ মাস ডিউটেনশনে কারাবন্দী থাকার পর যশোর ১০ নং সামরিক আদালতে জয়নাল আবেদীনসহ ১৪ ছাত্র নেতাকে ৫ বছর কারাদন্ডে দন্ডিত করে।
কারাগার থেকেই তিনি কৃতিতের¡ সাথে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স পাশ করেন। ১৯৮৬ সালে কাউন্সিলে জননন্দিত ছাত্রনেতা জয়নাল আবেদীন কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত এবং ১৯৮৯ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মনোনীত হন। তিনি ১৯৮৭ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সাথে মাষ্টার্স সম্পন্ন করেন। স্কুল জীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িয়ে পড়া জয়নাল আবেদীন কুষ্টিয়া ও রাজশাহীসহ কেন্দ্রীয় কমিটির রাজনীতিতেও মেধা, দক্ষতা ও দূরদর্শীতার এক উজ্জল মুখ হয়ে আছেন। বর্তমান তিনি একজন সফল ব্যবসায়ী। ঢাকা থেকে তিনি ব্যবসা কাজ পরিচালনা করেন। সফল এই ছাত্রনেতা জয়নাল আবেদীন লোভ লালসার উর্ধ্বে থেকে এখনো জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি অবিচল আস্থা রেখে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে আছেন তিনি। ব্যক্তি লোভ তাকে পরাভূত করতে পারেনি। রাজনৈতিক বিশ্বাস ও নীতিতে অটল এক অসাধারণ ব্যক্তিত্ব তিনি। জয়নাল আবেদীন কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পান্টি গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। তার পিতার নাম এম জওয়াদুর রহিম। বর্তমানে তিনি ২ মেয়ে ও ১ ছেলে সন্তানের জনক। স্ত্রীর নাম ফিরোজা আবেদীন। ব্যবসায়িক কারণে জয়নাল আবেদীন বিশ্বের বেশ অনেক দেশ ভ্রমণ করেছেন। তার মধ্যে অষ্ট্রিয়া, জার্মানী, স্পেন, ইটালী, নেদারল্যান্ড, ফ্রান্স, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, চীন, হংকং, বেলজিয়াম ও ভারত উল্লেখযোগ্য। তিনি সমাজসেবী হিসেবে একাধিক স্বীকৃতিও লাভ করেন।

বর্তমানে তিনি যে সকল প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত  :

যুগ্ম-মহাসচিব : কুষ্টিয়া জেলা সমিতি ঢাকা
সভাপতি : পান্টি ডিগ্রী কলেজ ম্যানেজিং কমিটি
সভাপতি : চৌরঙ্গী হাইস্কুল, কুমারখালী, কুষ্টিয়া
প্রধান পৃষ্ঠপোষক : চৌরঙ্গী কলেজ, কুমারখালী, কুষ্টিয়া
দাতা সদস্য : ডাশা হাইস্কুল, কুমারখালী, কুষ্টিয়া
দাতা সদস্য : ডাশা গার্লস্হাইস্কুল, কুমারখালী, কুষ্টিয়া
দাতা সদস্য : পান্টি ফাজিল মাদ্রাস,কুমারখালী, কুষ্টিয়া
বিদ্যুৎসাহী সদস্য : পান্টি হাইস্কুল,কুমারখালী, কুষ্টিয়া
উপদেষ্টা : পান্টি সাংস্কৃতিক সংঘ, কুমারখালী, কুষ্টিয়া।

এছাড়াও তিনি সামজিক উন্নয়নে ব্যাপক উন্নয়ন রেখে চলেছেন। নিজ গ্রামে নিজের জমির উপর যুদ্ধাহত জয়নাল আবেদীন প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি

অসহায় দুঃস্থদের মাঝে নগদ অর্থ উৎসব ও শীতে বস্ত্র বিতরণ করে থাকেন। শিক্ষা বিস্তারেও অবদান রেখে চলেছেন। তিনি নগদ অর্থ সহযোগীতা দিয়ে থাকেন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। জয়নাল আবেদীন তাঁর নিজের অর্থে তার মায়ের নামে পান্টি গার্লস্ হাইস্কুলে আনোয়ারা কম্পিউটার ভবন প্রতিষ্ঠা করে দিয়েছেন। তাঁর ইচ্ছা এ এলাকায় ব্যাপক উন্নয়নে আত্মনিয়োগ করা। অসাধারণ ব্যক্তিত্ব জয়নাল আবেদীন মহান মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদান ও শিক্ষাসহ সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখার স্বীকৃতি স্বরূপ বাংলাদেশ কৃষক পরিষদ ২০১১ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর তাঁকে “কৃষক রত্ন” পদকে ভূষিত করেন এবং সম্প্রতি তিনি পড়শী সাংস্কৃতিক সংঘ, ঢাকা কর্র্তৃক “শেরে-বাংলা” পদক প্রাপ্ত হন। তিনি মেলো এন্টারপ্রাইজ ঢাকা ও কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার যদুবয়রায় তাজ ব্রিকস্-এর স্বত্তাধিকারী। এলাকাবাসী তাকে আগামীতে রাজনৈতিক অঙ্গনে উজ্জল নক্ষত্র হিসেবে দেখতে চান। সে কারণে এলাকাবাসী সব  রকম ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত ।



এ পাতার আরও খবর

ডোমারে অপহরণ মামলার দেড় মাস পর আসামি ও মেয়ে উদ্ধার ডোমারে অপহরণ মামলার দেড় মাস পর আসামি ও মেয়ে উদ্ধার
পড়বি তো পড় মালির ঘাড়ে ! ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলের কাছ থেকে ঘুষ নেয়ায় কুষ্টিয়া সাব-রেজিস্ট্রার অফিস কর্মচারী  সাসপেন্ড পড়বি তো পড় মালির ঘাড়ে ! ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলের কাছ থেকে ঘুষ নেয়ায় কুষ্টিয়া সাব-রেজিস্ট্রার অফিস কর্মচারী সাসপেন্ড
স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোতে গণতন্ত্র চর্চায় যুব জনগোষ্ঠীর ভুমিকা: তাৎপর্য, চ্যালেঞ্জ ও করনীয় স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোতে গণতন্ত্র চর্চায় যুব জনগোষ্ঠীর ভুমিকা: তাৎপর্য, চ্যালেঞ্জ ও করনীয়
পরীমনির দশ কোটি টাকার ফ্ল্যাট ও উচ্ছৃঙ্খল জী’বনযাপন নিয়ে নানা প্রশ্ন! পরীমনির দশ কোটি টাকার ফ্ল্যাট ও উচ্ছৃঙ্খল জী’বনযাপন নিয়ে নানা প্রশ্ন!
ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলের কাছ থেকে ঘুষ নিলো কুষ্টিয়া  সাব-রেজিস্ট্রার অফিস কর্মচারী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলের কাছ থেকে ঘুষ নিলো কুষ্টিয়া সাব-রেজিস্ট্রার অফিস কর্মচারী
বোট ক্লাবে পরীমণির মদ খাওয়ার ভিডিও ভাইরাল বোট ক্লাবে পরীমণির মদ খাওয়ার ভিডিও ভাইরাল
নবম শ্রেণীর কি’শোরের হাত ধরে পালাল তিন সন্তানের জননী! নবম শ্রেণীর কি’শোরের হাত ধরে পালাল তিন সন্তানের জননী!
পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে ১৫টি গাঁজার গাছসহ গাঁজা ব্যবসায়ী আটক পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে ১৫টি গাঁজার গাছসহ গাঁজা ব্যবসায়ী আটক
লকডাউন না মানায় : ভেড়ামারায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৭ হাজার টাকা জরিমানা লকডাউন না মানায় : ভেড়ামারায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৭ হাজার টাকা জরিমানা
পরীমনির বিপুল বিত্তের উৎস নিয়ে তোলপাড় পরীমনির বিপুল বিত্তের উৎস নিয়ে তোলপাড়

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
ডোমারে অপহরণ মামলার দেড় মাস পর আসামি ও মেয়ে উদ্ধার
পড়বি তো পড় মালির ঘাড়ে ! ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলের কাছ থেকে ঘুষ নেয়ায় কুষ্টিয়া সাব-রেজিস্ট্রার অফিস কর্মচারী সাসপেন্ড
স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোতে গণতন্ত্র চর্চায় যুব জনগোষ্ঠীর ভুমিকা: তাৎপর্য, চ্যালেঞ্জ ও করনীয়
পরীমনির দশ কোটি টাকার ফ্ল্যাট ও উচ্ছৃঙ্খল জী’বনযাপন নিয়ে নানা প্রশ্ন!
ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলের কাছ থেকে ঘুষ নিলো কুষ্টিয়া সাব-রেজিস্ট্রার অফিস কর্মচারী
বোট ক্লাবে পরীমণির মদ খাওয়ার ভিডিও ভাইরাল
নবম শ্রেণীর কি’শোরের হাত ধরে পালাল তিন সন্তানের জননী!
পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে ১৫টি গাঁজার গাছসহ গাঁজা ব্যবসায়ী আটক
লকডাউন না মানায় : ভেড়ামারায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৭ হাজার টাকা জরিমানা
পরীমনির বিপুল বিত্তের উৎস নিয়ে তোলপাড়
‘প্রেমিকের’ গোপনাঙ্গ কেটে গ্রেপ্তার নারী
হযরত মুহম্মদ (সাঃ) এর বংশধর ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট!
সারাদেশে ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান বন্ধের সিদ্ধান্ত
ফেসবুকে প্রেম, রিসোর্টে গিয়ে শারীরিক সম্পর্ক, ধর্ষণের অভিযোগে প্রেমিক গ্রেফতার
আজ রাত ১২ টা থেকে কুষ্টিয়া জেলার সকল শিল্প কলকারখানা, হরিপুর সেতু, ঘোড়ার ঘাট, গণপরিবহন ১ সপ্তাহের জন্য বন্ধ
প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেল আরও সাড়ে ৫৩ হাজার পরিবার
অনৈতিক কাজে বাধ্য করায় মা-বাবাকে হত্যা করেন মাহজাবিন
নবম শ্রেণীর কিশোরের হাত ধরে পালাল তিন সন্তানের জননী!
পরীমণিকাণ্ডের সত্যতা মিলেছে
না ফেরার দেশে সাংবাদিক আব্দুল হামিদ