শিরোনাম:
ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮

Bijoynews24.com
শনিবার, ২ জানুয়ারী ২০২১
প্রথম পাতা » দেশজুড়ে | সারাদেশ » কিশোরগঞ্জে হারিয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী খাবার সিদল
প্রথম পাতা » দেশজুড়ে | সারাদেশ » কিশোরগঞ্জে হারিয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী খাবার সিদল
শনিবার, ২ জানুয়ারী ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

কিশোরগঞ্জে হারিয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী খাবার সিদল

 ---

আনোয়ার হোসেন নীলফামারী প্রতিনিধিঃ
ভোজন রসিক বাঙ্গালির রসনাতৃপ্তির পেট পুরে খাওয়ার মধ্যে
ঐতিহ্যবাহী খাদ্য তালিকার এক অনন্য মুখরোচক খাবারের নাম সিদল।
সিদল বাংলার সংস্কৃতি-ঐতিহ্যর এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। সিদলের কথা
শুনলে জিভে পানি না আসে এমন লোক খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। কিন্তু
কালের চাপায় দেশীয় প্রজাতির ছোট মাছের আকাল, গ্রামীণ
নারীদের ব্যস্ততা আর হরেক রকম বাহারি খাবারের ভিড়ে নীলফামারীর
কিশোরগঞ্জ অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী প্রাচীনতম মুখরোচক খাবার সিদল
গ্রামীণ জীবনের মানস পটে হারিয়ে যাচ্ছে। নারীর হাতের তপ্ত
ছোঁয়ায় ছোট মাছের শুঁটকি ও কচুর ডাটা প্রক্রিয়া জাত করণের
পর রসুন, আদা, কাঁচা মরিচ, মসলার সংমিশ্রণে শিলপাটা কিংবা
উরুন গান পিষে হলুদের গুড়া, খাঁটি সরিষার তেল লেপনের মুন্ডু
হাতের মষ্টিতে তৈরি করা এক প্রকারের খাবারের নাম সিদল। বাহারি
সব খাদ্য তালিকায় স্বাদ আর মৌ-মৌ গন্ধে অতুলণীয় মুখরোচক
খাবার হিসেবে সিদলের কদর কোন অংশে কম নয়। সম্পূর্ণ
ভিন্নমাত্রায় আলাদা আঙ্গিকে স্বাদের কারণে শুধু নীলফামারী
কিশোরগঞ্জে নয় রংপুর অঞ্চলের প্রতিটি পরিবারের মানুষের এটি
অতি জনপ্রিয় একটি খাবার। পারিবারিক থেকে শুরু করে ভুরিভোজ
অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথিদের আপ্যায়ন প্রানবন্ত করে তুলতে
সিদল ভর্তার কোন জুড়ি নেই। শুধু তা-ই নয়, হাটে-বাজারে বিক্রিও
হতো গ্রামীণ পরিবারের নারীদের হাতের তৈরি এই মুখরোচক খাবার।
অনেক হতদরিদ্র পরিবার এই ক্ষুদ্র পেশায় জড়িত থেকে জীবিকা
নির্বাহ করতো। সিদল হাটে-বাজারে বিক্রির ধুম নেই । এখন আর
চোখে পড়ে না। তবে সচরাচর চোখে না পড়লেও শখের বশে গ্রামাঞ্চলে
অনেকেই ঐতিহ্যবাহী খাবারটি এখনো তৈরি করেন। কিন্তু শহর
কেন্দ্রি মানুষ জন এখনো খুঁজে ফিরে সিদলের ভিড়ে ।
সিদলের সাথে পরিচিত উপজেলার বাহাগিলী ইউনিয়নের উত্তর
দুরাকুটি পশ্চিমপাড়া গ্রামের তহমিনা জানান, কচুবাটার সঙ্গে
খইলসা, ডারকা বা পুঁটি মাছের আধাভাঙ্গা গুড়া, প্রয়োজনমতো
শুকনা মরিচ, লবণ, রসুন, আদা বাটা সবকিছুর সঙ্গে মেশাতে হয়।

তারপর মুষ্ঠি হাতে চেপে চেপে তৈরি হয় সিদল। মাছ ও শাক সবজি
দিয়ে বিভিন্নভাবে সিদল রান্না করা যায়। তবে সবচেয়ে জনপ্রিয়
মুখরোচক হচ্ছে সিদল ভর্তা। স্থানীয় প্রবীণ নারীরা জানান,
একসময় এ অঞ্চলে খাল-বিল নদী-নালায় অসংখ্য দেশীয় প্রজাতির
ছোট-বড় মাছে ভরপুর ছিলে। তখন সিদল তৈরি করাটা অনেকের কাছে
শখের পাশাপাশি পেশাও ছিল। কালের বিবর্তনে মাছের সংকট এবং
নানা ব্যস্ততার কারণে এখন ইচ্ছে থাকলেও সিদল তৈরি করা হয়ে ওঠে
না। বাজার জাতসহ সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা পেলে এ পেশা এখনো
বাড়তি আয়ের উৎস হতে পারে ঐতিহ্যবাহী এ সিদল। সাথে ছবি
আছে



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
সাংবাদিক খোকন আর নেই : কুষ্টিয়া সিটি প্রেসক্লাবের শোক
মুসলমানদের নিকট মসজিদুল আকসা এতোটা গুরুত্বপূর্ণ কেন ?
গভীর রাতে মসজিদে কিশোরীর সঙ্গে ‘আপত্তিকর অবস্থায়’ ইমাম আটক
শতাধিক রকেট হামলা হামাসের, ২ ইসরাইলি নিহত
বৈদ্যুতিক ট্রেনের যুগে প্রবেশ করল বাংলাদেশ
ক্ষোভে ফুঁসছে মুসলিম বিশ্ব
অসামাজিক কার্যকলাপ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে আটকে বিয়ে দিলেন এলাকাবাসী
বাবুল আক্তার গ্রেপ্তার
মিরপুর থানা পরিদর্শন করলেন পুলিশ সুপার
বিএডিসির কর্মকর্তা করোনায় মৃত্যু
টিকটক-লাইকিতে আসক্তি নিয়ে ঝগড়া, স্ত্রীকে হত্যার পর থানায় আত্মসমর্পণ
চিলাহাটি জে.ইউ.ফাজিল মাদ্রাসায় দোয়া ও ইফতার অনুষ্ঠিত
মিয়ানমারে সেনা ঘাঁটি দখল করে আগুন ধরিয়ে দিল বিদ্রোহীরা
বিসিএস ক্যাডার পরিচয়ে এক ডজন বিয়ে করলো তরুণী
রিকশাচালকের ৬০০ টাকা কেড়ে নেয়ায় পুলিশের তিন সদস্য সাময়িক বরখাস্ত!
চিলাহাটিতে অসহায় মানুষদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী, বস্ত্র ও টাকা বিতরণ
নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পৃথিবীর দিকে তীব্র গতিতে ধেয়ে আসছে চীনা রকেটের ১০০ ফুট অংশ
কুষ্টিয়া পৌরসভার কর কর্মকর্তা বরখাস্ত নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম ইসলাম ওএসডি
পুলিশকে চাঁদা দিয়ে না খেয়ে রোজা রাখলেন রিকশাওয়ালা
একাধিক নারীর সঙ্গে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল হেফাজত নেতা জাকারিয়ার