শিরোনাম:
ঢাকা, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬

Bijoynews24.com
বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০১৯
প্রথম পাতা » ক্রাইম রির্পোট | চট্টগ্রাম | জাতীয় সংবাদ | বক্স্ নিউজ | রাজনীতি | শিরোনাম | স্পেশাল রির্পোট » সেই মাদ্রাসাছাত্রীর চিঠিতে মিলল অধ্যক্ষের নির্মমতার বর্ণনা
প্রথম পাতা » ক্রাইম রির্পোট | চট্টগ্রাম | জাতীয় সংবাদ | বক্স্ নিউজ | রাজনীতি | শিরোনাম | স্পেশাল রির্পোট » সেই মাদ্রাসাছাত্রীর চিঠিতে মিলল অধ্যক্ষের নির্মমতার বর্ণনা
বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০১৯
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

সেই মাদ্রাসাছাত্রীর চিঠিতে মিলল অধ্যক্ষের নির্মমতার বর্ণনা

---Bijoynews : ফেনীতে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো কুল-কিনারা করতে পারেনি পুলিশ। এর মধ্যেই গতকাল মঙ্গলবার দুই বান্ধবীর উদ্দেশে লেখা রাফির একটি চিঠি তার বাড়ি থেকে উদ্ধার করে সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা ও সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) (তদন্ত) মো. কামাল হোসেন বলেন, চিঠিটি আলামত হিসেবে জব্দ করা হয়েছে। চিঠিতে যাদের নাম আছে, প্রয়োজনে তাদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে।

তিনি জানান, রাফির পড়ার টেবিলে খাতায় দুই পাতার ওই চিঠিতে তামান্না ও সাথী নামে দুই বান্ধবীকে উদ্দেশ্য করে চিঠিটি লেখা হয়েছে। গত ২৭ মার্চ ঘটে যাওয়া ঘটনার বর্ণনাও দিয়েছে নুসরাত। ওই চিঠিতে নুসরাত আত্মহত্যা করবে না বলেও উল্লেখ করেন।

তবে যৌন হয়রানির ঘটনার পর সিরাজ উদ দৌলা গ্রেপ্তার হলে তার মুক্তির দাবিতে বান্ধবীদের অংশগ্রহণে ক্ষোভ প্রকাশ করে নুসরাত। তাকে নিয়ে বান্ধবীদের বিভিন্ন কটূক্তিতেও তার মর্মাহত কথা উল্লেখ করা হয় চিঠিতে।

চিঠিটিতে নুসরাত লেখেন, ‘তামান্না, সাথী। তোরা আমার বোনের মতো এবং বোনই। ওই দিন তামান্না আমায় বলেছিল, আমি নাকি নাটক করতেছি। তোর সামনেই বললো। আরো কি কি বললো, আর তুই নাকি নিশাতকে বলেছিস আমরা খারাপ মেয়ে। বোন প্রেম করলে কি সে খারাপ??? তোরা সিরাজ উদ দৌলার সম্পর্কে সব জানার পরও কীভাবে তার মুক্তি চাইতেছিস।’

‘তোরা জানিস না, ওইদিন রুমে কি হইছে? উনি আমার কোন জাগায় হাত দিয়েছে এবং আরো কোন জায়গায় হাত দেওয়ার চেষ্টা করেছে, উনি আমায় বলতেছে- নুসরাত ডং করিস না। তুই প্রেম করিস না। ছেলেদের সাথে প্রেম করতে ভালো লাগে। ওরা তোরে কি দিতে পারবে? আমি তোকে পরীক্ষার সময় প্রশ্ন দেবো। আমি শুধু আমার শরীর দিতাম ওরে। বোন এই জবাবে উত্তর দিলাম। আমি একটা ছেলে না হাজারটা ছেলে…। আমি লড়বো শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত। আমি প্রথমে যে ভুলটা করেছি আত্মহত্যা করতে গিয়ে। সেই ভুলটা দ্বিতীয়বার করবো না। মরে যাওয়া মানে তো হেরে যাওয়া। আমি মরবো না, আমি বাঁচবো। আমি তাকে শাস্তি দেবো। যে আমায় কষ্ট দিয়েছে। আমি তাকে এমন শাস্তি দেবো যে তাকে দেখে অন্যরা শিক্ষা নিবে। আমি তাকে কঠিন থেকে কঠিনতম শাস্তি দেবো। ইনশাআল্লাহ।’

গত শনিবার সকাল ৯টার দিকে আলিম পর্যায়ের আরবি প্রথম পত্র পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে যায় ওই ছাত্রী। এর পর কৌশলে তাকে পাশের ভবনের ছাদে ডেকে নেওয়া হয়। সেখানে বোরকা পরা ৪-৫ জন ওই ছাত্রীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে তার শরীরের ৮৫ শতাংশ পুড়ে যায়।

এদিকে পরীক্ষা চলাকালীন দফায় দফায় জবানবন্দি দিতে আসা রাফির সহপাঠিরাও বিরক্ত। এতে পরীক্ষার প্রস্তুতিতে বিঘ্ন ঘটছে বলে জানিয়েছে তারা। সহপাঠিরা বলছে, রাফির প্রতিবাদী কণ্ঠ বন্ধ করতেই এই নৃশংসতার পথ বেছে নিয়েছে অধ্যক্ষের অনুগতরা দুর্বৃত্তরা। তাকে এখন পড়ার টেবিলের পরিবর্তে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে মৃত্যুর যন্ত্রণা উপভোগ করতে হচ্ছে। সেজন্য কঠিন শাস্তি চান তারা।

---নাভিলা, খাদিজাতুল কোবরাসহ রাফির একাধিক সহপাঠি জানান, অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার জনসম্মুখ্যে প্রকাশ্যে শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক।

সরেজমিনে মঙ্গলবার বিকেলে রাফিদের বাড়িতে (সোনাগাজী পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড) গিয়ে দেখা পুরো বাড়ি সুনশান নীরব। বৃদ্ধা দাদু খাটে বসে কাঁদছে। ফুফু ও খালাতো বোন ঘরবাড়ি দেখাশোনা করছে। পুরো বাড়িতে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

তার চাচা আজহার উদ্দিন জানান, অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার হয়রানির মানসিক যন্ত্রণায় ঠিকমতো পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে পারেননি রাফি। কতটা যন্ত্রণায় থাকলে এভাবে লিখতে হয় একটি মেয়েকে। পরীক্ষার প্রস্তুতির খাতায় সেই প্রমাণই মিলেছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কামাল হোসেন জানান, এ ঘটনায় পুলিশ আটজনকে গ্রেপ্তার করেছে। এর মধ্যে চারজনের পাঁচ দিনের করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আগে থেকেই জেলহাজতে রয়েছে অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলা।

মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খোন্দকার গোলাম ফারুক ঘটনাস্থল পরিবদর্শন করেছেন বলেও জানান কামাল হোসেন।



আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রিজভীর নেতৃত্বে মিছিল
নড়াইলে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্যকে কুপিয় হত্যা
বাড়িতে নিয়ে গিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ
দেশেও জঙ্গি হামলার চেষ্টা চলছে, সতর্ক থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
কুষ্টিয়ায় পাঁচ রেলক্রসিংয়ে সৃষ্ট যানজটে নাকাল শহরবাসী!
বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশনের সহযোগী সংস্থার মধ্যে ৯০ লক্ষ টাকা অনুদান বিতরণ
কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন আজ
প্রচণ্ড গরমে অতিষ্ঠ দেশের মানুষ
কুষ্টিয়ায় ভুয়া মেহেদী কারখানা মালিকের এক লাখ টাকা জরিমানা
কুষ্টিয়ায় র্যাবের অভিযান অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে দই তৈরি করায় এক লাখ টাকা জরিমানা
কুষ্টিয়া পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ইসিজির নামে রোগীকে ধর্ষণের চেষ্টা : লম্পট আরিফ আটক
পুলিশ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ
কারামুক্ত হলেন শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ থেকে আটক হওয়া জেলা বিএনপি সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১১ নেতাকর্মী
কুষ্টিয়া ডিবি পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক-২
মায়ের খুনি দাদা ও বাবাকে ধরিয়ে দিলো শিশুপুত্র
পরীক্ষা কেন্দ্রে ছাত্রীকে যৌন হয়রানী, শিক্ষক গ্রেপ্তার
বাহ! কি চমৎকার সাংবাদিকতা ?
একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক, অনশনে কলেজছাত্রী
দুই বোনকে একসাথে গণধর্ষণ, এক বোনের আত্মহত্যা