শিরোনাম:
ঢাকা, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১১ বৈশাখ ১৪২৬

Bijoynews24.com
মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০১৯
প্রথম পাতা » জাতীয় সংবাদ | বক্স্ নিউজ | রংপুর | শিরোনাম | স্বাস্থ্য সংবাদ » পলাশবাড়ীতে অসুস্থ্য ছেলেকে বাঁচাতে অসহায় ভিক্ষুক পরিবারের এক মায়ের আকুতি
প্রথম পাতা » জাতীয় সংবাদ | বক্স্ নিউজ | রংপুর | শিরোনাম | স্বাস্থ্য সংবাদ » পলাশবাড়ীতে অসুস্থ্য ছেলেকে বাঁচাতে অসহায় ভিক্ষুক পরিবারের এক মায়ের আকুতি
মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০১৯
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

পলাশবাড়ীতে অসুস্থ্য ছেলেকে বাঁচাতে অসহায় ভিক্ষুক পরিবারের এক মায়ের আকুতি

---আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে গুরুতর অসুস্থ ছেলেকে বাঁচাতে অসহায় ভিক্ষুক পরিবারের এক মায়ের মানবিক আকুতি। চিকিৎসা ব্যয়ে প্রয়োজন ন্যুনতম ৫ লাখ টাকার প্রয়োজন। কোন সহায় সম্বল না থাকায় ছেলের চিকিৎসা ব্যয় নির্বাহের বিষয়টি নিয়ে পরিবারটি দিশাহারা হয়ে পড়েছেন।

উপজেলা সদর ইউনিয়নের ছোটশিমুলতলা গ্রামের কলিম উদ্দিন ওরফে কলিম ফকির। কোন সহায় সম্বল না থাকায় জন্মগত হাবাগোবা স্বভাবের কলিম ফকির দীর্ঘ বছর ধরেই ভিক্ষা করেই জীবিকা নির্বাহ করেন। নিত্যদিন সকাল থেকে দিনভর এলাকার এবাড়ী-ওবাড়ী, শহর-বন্দর, রাস্তাঘাট ও পথে-প্রান্তরে পথচারিদের নিকট হাত পেতে ভিক্ষা করেন। স্ত্রী মজিদা খাতুন আশেপাশে স্বচ্ছল পরিবারের বিভিন্ন বাড়ীতে ঝিঁয়ের কাজ করে যা পান তাই দিয়েই কোন রকমে অর্ধাহারে-অনাহারে চলে যায় ভিক্ষুক-ঝিঁ দম্পতির পারিবারিক ভরণপোষণ।

ভিক্ষুক-ঝিঁ দম্পতির ২ মেয়ে ও ২ ছেলেসহ ৬ সদস্যের পরিবার।নেই কোন জমি-জমা। এমনকি পরিবারটির মাথাগোঁজার মত এক চিঁলতে বসতভিটাও নেই।অভাবের তারনায় প্রতিটি মূহুর্ত্বই যেন তাদের চোখে-মুখে ভর করছে এক অসহনীয় অনামিশার ছাপ।

বয়সের ভারে নুইয়েপড়া ভিক্ষুক কলিম কিংবা স্ত্রী মজিদা খাতুন অসুস্থতায় বিছানায় থাকলে সেদিন তাদের গোটা পরিবারটিকে থাকতে হয় না খেয়ে। ওই গ্রামের মৃত শ্বশুর মজিবরের বসতভিটায় কোন রকমে খরকুটোর একটি কুঠিরে বসবাস করেন পরিবারটি।

মড়ার উপর খাঁড়ার ঘাঁ। সময়ের আকস্মিকতায় পরিবারটির ছোট ছেলে মাহাবুব (১৪) গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। উপায়ন্তর না পেয়ে হাত পেতে ভিক্ষা করে সঞ্চিত অর্থ দিয়ে চিকিৎসকের পরামর্শে ছেলের নানা পরীক্ষা-নীরিক্ষায় জানা যায় তার হার্ট ফুটোসহ বুকের হাড় ক্ষয় হয়ে যাচ্ছে।

চিকিৎসকরা জানান, অসুস্থ্য মাহবুবের দ্রুত অপারেশন প্রয়োজন। অপারেশন সফল হলে সে সুস্থ্য হতে পারে। কিন্তু মোটা অর্থের প্রয়োজন।একটি কানাকড়িও হাতে নেই। যা ছিল তা ইতোমধ্যেই শেষ। একদিকে পরিবারের ভরণপোষণ ও চিকিৎসাসহ ওষুধপত্র। অতঃপর ব্যয়বহুল অপারেশন। রংপুর কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের কার্ডিওলজী বিভাগের প্রধান হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. একেএম হানিফ চৌধুরির তত্বাবধানে চিকিৎসাধীন রয়েছে মাহাবুব।

পরিবারটির পক্ষে ৫ লাখ টাকার সংস্থান অসম্ভব হয়ে পড়েছে। মা মজিদা বেগম ছেলের জীবন বাঁচাতে শ্রষ্টার করুনাসহ এলাকার সাংসদ, অন্যান্য জনপ্রতিনিধি, দানশীল দয়ালু ব্যক্তিত্ব, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান ও উপজেলা প্রশাসনসহ সর্বোপরি মানবতার মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ দেশ-বিদেশের বিত্তবানদের নিকট মানবিক আর্থিক সাহায্য-সহযোগিতা কামনা করেছেন। সাহায্য পাঠাবার ঠিকানা মজিদা খাতুন, সঞ্চয়ী হিসাব নং-১০২১১১৭৬৭১ জনতা ব্যাংক লিঃ পলাশবাড়ী শাখা, গাইবান্ধা এবং সরাসরি বিকাশ -০১৩০২-১৫৭৬০২।

 

 

পাবলিক পরীক্ষা এইচএসসি, এসএসসি, জেএসসি ও পিএসসি শ্রেণি বাদে

অন্যান্য শ্রেণির পাঠদানে সহায়ক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কোচিং খোলা রাখার দাবিতে গাইবান্ধায় মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ পাবলিক পরীক্ষা এইচএসসি, এসএসসি, জেএসসি ও পিএসসি শ্রেণি বাদে অন্যান্য শ্রেণির পাঠদানে সহায়ক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (কোচিং সেন্টার) চালু রাখা রাখার দাবিতে রোববার সকালে গাইবান্ধা জেলা শহরের ডিবি রোডে এক মানববন্ধনের কর্মসূচি পালন করা হয়। সদর উপজেলার সহায়ক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিচালক, শিক্ষক ও অভিভাবকরা এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। পরে তারা বিভিন্ন দাবি ও পরামর্শ সম্বলিত একটি স্মারকলিপি জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে প্রদান করে।

মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন মেধাকুঞ্জ কোচিং সেন্টারের পরিচালক সৈয়দ আরাফাত হোসেন, প্রতিভা কোচিংয়ের পরিচালক সেলিম মিয়া, মো. রবিউল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম, নাহিদ ইসলাম শাহীন, আব্দুল আহাদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সরকার দেশে সুশিক্ষিত জাতি গঠনে পাবলিক পরীক্ষা পিএসসি, জেএসসি, এসএসসি, এইচএসসিসহ সকল পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। ইতোমধ্যে এই প্রশ্নপত্র ফাঁসের সাথে জড়িতদের সনাক্ত করেছে। তাদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় নিয়েছে। যে কারণে গত পাবলিক পরীক্ষা গুলোতে প্রশ্নপত্র ফাঁস শূণ্যের কোঠায় নেমে এসেছে। তারা আরও বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁসের সাথে জড়িতদের তালিকায় গাইবান্ধা জেলার কোনো সহায়ক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান/কোচিং সেন্টারের শিক্ষক জড়িত ছিল না।

বক্তারা আরও বলেন, সরকার ঘোষিত নীতিমালা অনুযায়ী গাইবান্ধা জেলা শহর ও সদর উপজেলার সহায়ক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান/কোচিং সেন্টার গুলোতে কোন সরকারি/বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক/শিক্ষিকাদের দিয়ে পাঠদান করানো হয় না। এসব সহায়ক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান/কোচিং সেন্টার গুলোতে ফ্রিল্যান্সার শিক্ষিত বেকার/ছন্দ বেকার যুবকেরা পাঠদান করে থাকে। যা মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশনার মধ্যেই চলছে।

বক্তারা আরও বলেন, সারাদেশে পাবলিক পরীক্ষার জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যতিত আলাদা বা স্বতন্ত্র পরীক্ষা কেন্দ্র না থাকায় আগামী ১ এপ্রিল থেকে ৬ মে পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ কারণে দেশের সকল সরকারি কলেজসহ ২ হাজার ৫৪১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এইচএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার হবে। এইচএসসি পরীক্ষার কারণে ওইসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১ মাস ৬ দিন ১ম শ্রেণি থেকে একাদশ শ্রেণির সকল প্রকার পাঠদান বন্ধ থাকবে। এছাড়াও বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানে একাদশ থেকে অনার্স-মাষ্টার্স পর্যন্ত শ্রেণির ক্লাস বন্ধ থাকবে। এতে করে লক্ষ লক্ষ শিক্ষার্থী ১ মাস ৬ দিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শ্রেণি পাঠদান থেকে বঞ্চিত হবে। এক্ষেত্রে শুধুমাত্র এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কোচিং বন্ধ রেখে অন্যান্য শ্রেণির কোচিং চালু রাখা প্রয়োজন।

অপরদিকে স্মারকলিপিতে আরও উল্লেখ করা হয়, সারা বছরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে পাবলিক পরীক্ষার (এইচএসসি, এসএসসি, জেএসসি ও পিএসসি) জন্য ৯০ দিন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বাৎসরিক ছুটি ৭০ থেকে ৮৫ দিন, শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির কারণে আরও ২৬ দিন, অর্ধবার্ষিক ও বার্ষিক পরীক্ষার জন্য আরও অন্তত ৩০ দিনসহ প্রায় ২৩৭ দিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শ্রেণি পাঠদান বন্ধ থাকে। বছরের ৩৬৫ দিনের মধ্যে ২৩৭দিন বাদ দিলে মাত্র ১২৮ দিন শ্রেণি পাঠদান কার্যক্রম চলে। যা দিয়ে শিক্ষার্থীদের পক্ষে তাদের বাৎসরিক সিলেবাস/পাঠ্যক্রম কোন ভাবেই শেষ করা সম্ভব না। ছবি সংযুক্ত

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী যারা

গোবিন্দগঞ্জ চেয়ারম্যান পদে আব্দুল লতিফ

ভাইস-চেয়ারম্যান তাজু ও শাকিলা নির্বাচিত

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে উপজেলা পরিষদের নির্বাচন ৪র্থ দফায় আ.লীগ মনোনীত প্রাথী আব্দুল লতিফ প্রধান (নৌকা),ভাইস্ চেয়ারম্যান(পুরুষ) শরিফুল ইসলাম সরকার তাজু ও মহিলা ভাইস্ চেয়ারম্যান পদে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন।

আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ প্রধান (নৌকা প্রতীক) ১ লক্ষ ৪১ হাজার ২ শ ৯৮ ভোট পেয়ে বে-সরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদন্দি স্বতন্ত্র প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মুকিতুর রহমান রাফি (ঘোড়া প্রতীক)পেয়েছেন ৫৭ হাজার ৬ শ ২৪ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম সরকার তাজু (মাইক প্রতীক) ৫৭ হাজার ৯ শ ৬২ ভোট পেয়ে বে-সরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদন্দি প্রার্থী খন্দকার আব্দুর রহমান মাষ্টার (তালা প্রতীক) পেয়েছেন ৫১ হাজার ৭ শ ৬০ ভোট এবং (মহিলা) শাকিলা বেগম (ফুটবল প্রতীক) ৯৪ হাজার ৪ শ ৩৬ ভোট পেয়ে বে-সরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদন্দি প্রার্থী উম্মেজাহান রিংকু (প্রজাপতি প্রতীক) পেয়েছেন ২৯ হাজার ৩ শ ৫৩ ভোট।

গত ৩১ মার্চ রবিবার সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে কড়া নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে শান্তিপূর্ণ ভাবে নির্বাচন অনুষ্টিত হয়েছে। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৬ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে (পুরুষ) ৫ জন ও (মহিলা) ৮ জন প্রার্থী প্রতিদন্দিতা করেন। উপজেলার ১৩৯ টি কেন্দ্রে ৩ লক্ষ ৮৬ হাজার ২ শ ৬২ জন ভোটারের মধ্যে ২ লক্ষ ৬ হাজার ৩৮০ জন ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

এ দিকে নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ প্রধান,ভাইস্ চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম তাজু,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাকিলা বেগম দলীয় নেতা কর্মী নিয়ে ১লা এপ্রিল সোমবার সকাল ১১ উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয়ের সামনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র আতাউর রহমান সরকার, সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রধান আতাউর রহমান বাবলু, সহ- সভাপতি সৈয়দ শরিফুল ইসলাম রতন, সাংগঠনিক সম্পাদক আ র ম শরিফুল ইসলাম জর্জ ও কৃষিবিদ আব্দুল্লাহ আল হাসান চৌধুরী লিটন সহ দলীয় নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। ছবি সংযুক্ত

পলাশবাড়ীতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণীর

শিক্ষা উপকরণ ক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতায় পিডিইপি-৪-এর অর্থায়নে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বেতকাপা ক্লাস্টারের শিশু শ্রেণীর বরাদ্দকৃত অর্থ দিয়ে শিক্ষা উপকরণ ক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলার বেতকাপা ক্লাস্টারের আওতায় ২৩টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। ক্লাস্টারের প্রতিটি বিদ্যালয়ে শিশু শ্রেণীর শিক্ষা উপকরণ ক্রয় বাবদ ১০ হাজার টাকা করে পিডিইপি-৪-এর বরাদ্দ দেয়া হয়। বরাদ্দকৃত অর্থ দিয়ে ওই ক্লাস্টারের সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার এটিএম সারুয়ার আলম সরকার সুবিধা আদায়ের লক্ষ্যে শিশু শ্রেণীর উপকরণ ক্রয় করে বিতরণ করেন। সরেজমিন গিয়ে বেতকাপা ক্লাস্টারের মুরারীপুর দক্ষিণপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুদা বেগমকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, শিশু শ্রেণীর বরাদ্দের অর্থ দিয়ে এটিও স্যার আমাকে শিক্ষা উপকরণ ক্রয় বাবদ সাড়ে ৫ হাজার টাকাসহ নগদ সাড়ে ৩ হাজার টাকা দেন। এসময় অত্র বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আঃ কদ্দুসকে জিজ্ঞাসা করা হলে এ বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে এ প্রতিবেদককে জানান। এরপর বেতকাপা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ আরো কয়েকটি বিদ্যালয়ে সরেজমিন গিয়ে প্রধান শিক্ষকদের নিকট শিশু শ্রেণীর উপকরণ ক্রয় ও নগদ অর্থের বিষয়ে জানতে চাইলে সকলেই জানান, ক্লাস্টারের সব বিদ্যালয়েই একই ভাবে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। শুধু তাই নয় অত্র ক্লাস্টারের অধিকাংশ বিদ্যালয়ে ব্যাপক অনিয়ম দৃশ্যমান।

এ বিষয়টি বেতকাপা ক্লাস্টারের সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার এটিএম সারুয়ার আলম সরকারের সঙ্গে সরাসরি কথা বললে তিনি শিক্ষা উপকরণ ক্রয়ের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, বিগত বছরে শিশু শ্রেণীর বরাদ্দকৃত অর্থ প্রদান করা হলেও বেশকিছু বিদ্যালয়ই শিক্ষা উপকরণ ক্রয় করেন নাই। তাই এ কারণে চলতি বছর ক্লাস্টারের ৫টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের নিয়ে একটি কমিটি গঠনের মাধ্যমে শিক্ষা উপকরণ ক্রয় করে তা বিতরণ করা হয়েছে। ওই কমিটির মাধ্যমেই মাঠেরবাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে শিশু শ্রেণীর শিক্ষা উপকরণ বিতরণ ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুল্যাহিশ শাফী’র সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, এ রকম একটি সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে আমি জানি।



আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
নেত্রকোনার দুই রাজাকারের ফাঁসি
দৈনিক জয়যাত্রা অফিস থেকে অপহৃত উদ্ধার : আসামীদের ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন
বাহ! কি চমৎকার সাংবাদিকতা ?
যে কারনে বিধবাদের বিয়ে করতে চান বেশির ভাগ সৌদি যুবক
দুই দফা খননেও সুফল মেলেনি গড়াই নদীর
একাধিক প্রেম করায় প্রেমিককে মেরে পুঁতে রাখে ফারজানা!
বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে কলেজ শিক্ষিকা নিহত
বাংলাদেশের কোনো ছবিতে অভিনয় করছি না, বললেন কোয়েল মল্লিক
আসামীদের হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় বাদি ও তার পরিবার
পাকিস্তানি কিশোরীকে ধর্ষণের মূলহোতা গ্রেফতার
কুষ্টিয়ায় গৃহবধুকে শারীরিক নির্যাতন করে গালে বিষ ঢেলে হত্যার চেষ্টা
সুন্দরগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে অমানুষিক নির্যাতন
শিক্ষকের কাজের মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা, ঘটনা ধামাচাপার চেষ্টা!
কুষ্টিয়ায় স্থানীয় পত্রিকা অফিস থেকে অপহৃত উদ্ধার : গ্রেফতার ৫
বাসে তল্লাশিকালে চালককে পিটিয়ে হত্যা ডিবি পুলিশের
হাকালুকি হাওরে বাদাম চাষে বিপ্লব
ধর্ষণের পর সে বললো ‘বাহ! বেশ মজা তো’
অষ্টম শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রীর ধর্ষণ মামলা নেয়নি পুলিশ
ইবিতে ক্লাস পরীক্ষা বর্জন ও প্রশাসন ভবন অবরোধ
বাবার টাকায় প্রশাসন চললে সরকারের টাকা গেল কই?