শিরোনাম:
●   এবার পাকিস্তানের সেনা বহরে আত্মঘাতী হামলা, নিহত ৯ ●   যৌন হয়রানির অভিযোগে ইটিভির সাংবাদিক বুলবুল বরখাস্ত ●   মাগুরার এএসপি ছয়রুদ্দিনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ●   দুদককে ভয় পায় না এমন লোক হয়তো সমাজে নেই : দুদক চেয়ারম্যান ●   জ্ঞান, দক্ষতা ও দেশপ্রেমকে সমন্বয় করে শিক্ষা ব্যবস্থা বিন্যস্ত করতে হবে: ইবি ভিসি ●   ‘বড় বাবুর’ ৫ কোটি টাকার বাড়ি ●   মাইজভান্ডারীর ওরশে যাওয়ার পথে কুমিল্লার সড়কে প্রান গেল ৫ জনের ●   আবুধাবিতে প্রধানমন্ত্রী ●   কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নাজমুল মালিথা নামে মাদক ব্যবসায়ী নিহত ●   মোদীর বার্তায় যুদ্ধের শঙ্কা, পাকিস্তান চালাবে পারমাণবিক হামলা
ঢাকা, সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ৫ ফাল্গুন ১৪২৫

Bijoynews24.com
সোমবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৯
প্রথম পাতা » জাতীয় সংবাদ | বক্স্ নিউজ | রংপুর | শিরোনাম » গাইবান্ধায় মানুষদের চরম বিপাকে ফেলেছে ট্রাক্টর নামক মালামাল পরিবহনের যানটি
প্রথম পাতা » জাতীয় সংবাদ | বক্স্ নিউজ | রংপুর | শিরোনাম » গাইবান্ধায় মানুষদের চরম বিপাকে ফেলেছে ট্রাক্টর নামক মালামাল পরিবহনের যানটি
সোমবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৯
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

গাইবান্ধায় মানুষদের চরম বিপাকে ফেলেছে ট্রাক্টর নামক মালামাল পরিবহনের যানটি

---আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ কৃষিজমি চাষের জন্য ভারত থেকে আমদানী করা ইঞ্জিন দিয়ে গাইবান্ধায় মালামাল পরিবহনের জন্য স্থানীয়ভাবে প্রস্তুত করা ট্রাক্টর (কাকড়া) নামের এক ধরনের অবৈধ যান কাঁচা-পাকা রাস্তায় চলাচল করে নষ্ট করে ফেলছে রাস্তা। নেই সরকারিভাবে এই যানের কোন অনুমোদন। চালকদের নেই প্রশিক্ষণ, নেই ড্রাইভিং লাইসেন্সও। তবুও এই অবৈধ যানটি শহর-গ্রামে চলছে বীরদর্পে। এই অবৈধ যানটি এতোটাই বেপরোয়া গতিতে চলার কারণে দুর্ঘটনা ঘটছে অনেক বেশি। প্রতি বছরই জেলার বিভিন্নস্থানে এই গাড়ীর নিচে চাপা পড়ে মারা যাচ্ছে শিশু-নারীসহ সাধারণ মানুষ।

বিভিন্ন সময়ে সরেজমিনে দেখা গেছে, ট্রাক্টর (স্থানীয়ভাবে কাঁকড়া নামে ডাকা হয়) নামক এই যানের ডালা (মালামাল রাখার স্থান) বেশি বড় হওয়ার কারণে বেশি পরিমাণে বালু, মাটি, ইটসহ বিভিন্ন ধরনের ভারি মালামাল পরিবহন করা হয়। এতে করে কাঁচা ও পাকা রাস্তা নষ্ট হচ্ছে দ্রুত। এসব বালু ও মাটি পরিবহনের জন্য কেটে ফেলা হচ্ছে বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ। ফলে বর্ষা মৌসুমে এসব বাঁধ প্রবল পানির চাপে ভেঙ্গে যাওয়ার আশংকা থাকে। ইতোমধ্যে জেলার বিভিন্নস্থানে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ কেটে এসব কাঁকড়া চলাচলের কারণে চরম ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে অনেকগুলো স্থান। যদি বর্ষাকালে এসব ক্ষতিগ্রস্থ বাঁধ ভেঙ্গে যায় তাহলে চরম ক্ষতির সম্মুখীন হবে সাধারণ মানুষসহ রাস্তা, কৃষি জমি, মৎস্য চাষ প্রকল্পসহ অনেক সম্পদ। আর এই টাক্টর যারা চালায় তাদের অনেকেরই আবার বয়স ১৮ বছরের নিচে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অতিরিক্ত মুনাফার আশায় এসব ট্রাক্টরের (কাঁকড়া) মালিক ও চালকরা বেশি পরিমাণে মালামাল পরিবহন করে আসছে দীর্ঘদিন থেকে। এতে করে ইঞ্জিনের উচ্চ শব্দে ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে সাধারণ মানুষদের। ব্যস্ত শহরের বিভিন্ন অলিতে-গলিতেও দ্রুত গতিতে চলাচল করে এসব ট্রাক্টর। এতে করে বাড়ে দুর্ঘটনার ঝুঁকি।

ট্রাক্টরচালকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এসব ট্রাক্টর (কাঁকড়া) দিয়ে সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন কাজের বালু, মাটি ও ইট পরিবহন করা হয়। এই যানটির ধারণ ক্ষমতা বেশি হওয়ার কারণে মালামাল পরিবহনও করা হয় বেশি পরিমাণে। এতে করে মানুষ উপকৃতও হচ্ছে। যদি এই যানটির মালামাল রাখার স্থান (ডালা) ছোট হতো তাহলে কম পরিমাণে মালামাল পরিবহন করা হতো।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শহরের এক চাকরীজীবী বলেন, আগে ট্রলি নামের একটি ছোট ধারণ ক্ষমতার গাড়ীতে করে বালু, মাটি ও ইট পরিবহন করা হতো। এতে করে রাস্তা তেমন ক্ষতিগ্রস্ত হতো না। এসব ট্রলি ধীরে চলতো বিধায় দুর্ঘটনায় প্রাণহানীও ঘটতো না। কিন্তু বর্তমানে বর্তমানে মালামাল পরিবহনের এই ট্রাক্টর (কাঁকড়া) নামক যানটি চরম বিপাকে ফেলেছে মানুষদের। কাঁকড়া নামক এই যানটির মালামাল ধারণ ক্ষমতা কমিয়ে দিতে ডালা ছোট করে তৈরি করতে হবে।

গাইবান্ধায় গাইড বইয়ের রমরমা

বাণিজ্য ॥ ধ্বংস হচ্ছে সৃজনশীলতা

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধা জেলা শহরসহ বিভিন্ন উপজেলার বই বিতানগুলোতে চলছে গাইড বইয়ের রমরমা বাণিজ্য। শিক্ষার্থীরাও চড়া দামে এসব গাইড বই কিনছে। এতে বই ব্যবসায়ীদের পকেটে যাচ্ছে মোটা অঙ্কের টাকা।

অভিভাবকদের অভিযোগ, নজরদারি না থাকায় এমনটা ঘটছে। শিক্ষকরাই শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন বিষয়ের গাইড বই কিনতে উদ্বুদ্ধ করে থাকেন। গাইড বইয়ের অবাধ বেচাকেনা শিক্ষার্থীদের সৃজনশীলতা ধ্বংস করছে। সরকারের বিনামূল্যে বই বিতরণের মূল লক্ষ্য ব্যাহত হচ্ছে।

জেলা শহরের নিউ মার্কেটের বই বিতানগুলোতে দেখা মেলে বিভিন প্রকাশনীর গাইড বই। এসব বিক্রিও হচ্ছে চড়া দামে।

দ্বিতীয় শ্রেণির অনুপম, লেকচার, পপি গাইড বিক্রি হচ্ছে ১৫০-১৬০ টাকা, ৩য় শ্রেণির অনুপম, লেকচার ৩০০-৩৬০ টাকা, চতুর্থ শ্রেণির অনুপম, পাঞ্জেরি ৩২০-৩৫০ টাকা, পঞ্চম শ্রেণির লেকচার, অনুপম, পাঞ্জেরি ৪৮০-৫৫০ টাকা, ষষ্ঠ শ্রেণির অনুপম, লেকচার, পপি, পাঞ্জেরি, অ্যাডভান্স, অক্ষরপত্র ৫৮০-৬২০ টাকা, সপ্তম, অষ্টম শ্রেণির অ্যাডভান্স, লেকচার, অনুপম, পাঞ্জেরি, পপি, অক্ষরপত্র বিক্রি হচ্ছে ৭৫০-৮৫০ টাকায়।

গাইবান্ধা সদর উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির এক নেতা বলেন, রুট লেভেলে হস্তক্ষেপ করলে হবে না। গাইড বইয়ের ছাপাখানা বন্ধ করে দিতে হবে। গাইড বাণিজ্যের প্রসারে শিক্ষক সমিতির যোগসাজশ নেই।


স্বাাধীনতার প্রতিক নৌকাই দেশ-জাতির

একমাত্র উন্নয়নের পরিক্ষিত প্রতিক

— ডা. মো. ইউনুস আলী সরকার এমপি

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ আগামী ২৭ জানুয়ারী ৩১ গাইবান্ধা-৩ সংসদীয় নির্বাচনী আসন (পলাশবাড়ী-সাদুল্লাপুর) এলাকার তৃণমূল মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন স্থান-রাস্তাঘাটসহ জনসমাগম স্থলে লাগাতার নির্বাচনী গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক কালে সর্বস্তরের নারী-পুরুষ ভোটারদের সাথে কুশল বিনিময়ের মাধ্যমে নৌকা মার্কায় ভোট প্রার্থনা অব্যাহত চালিয়ে যাচ্ছেন।

এরই অংশ হিসেবে সোমবার সকাল থেকে পলাশবাড়ী সদর ইউনিয়নের সুঁইগ্রাম, আমবাড়ী, উদয়সাগর, গিরিধারীপুর, শিবরামপুর, নুরপুর, বাড়ইপাড়া, নুনিয়াগাড়ী, সদরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ, কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের দিঘলকান্দি, সুলতাপুর বাড়াইপাড়া, বড় শিমুলতলা বাজার, কাশিয়াবাড়ী বাজার, মেঘার মোড়, গণেশপুর বাজার, বেংগুলিয়া বাজার এবং হোসেনপুর ইউনিয়নের মেরীরহাট, করতোয়াপাড়া, চেরেঙ্গা কাঙ্গালের বাজার, শাহিনদহ বাজার, হাঁসবাড়ী এলাকায়সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থান-পয়েন্ট, পাড়া-মহল্লায় ব্যাপক গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক কালে নৌকার মনোনীত প্রার্থী ডা. মো. ইউনুস আলী সরকার এমপি বলেন স্বাধীনতার প্রতিক নৌকাই দেশ-জাতির একমাত্র উন্নয়নের পরিক্ষিত প্রতিক। একাকার হয়ে উন্নয়নের চলমান স্রোত যেন আরো উল্লেখযোগ্য হয় এ জন্য নৌকায় ভোট দেয়ার কোন বিকল্প নেই বলে তিনি উল্লেখ করেন। এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু বকর প্রধান, সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব একেএম মোকছেদ চৌধুরী বিদ্যুৎ, শহিদুল ইসলাম সরকার বাদশা, এনামুল হক মকবুলব, সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ শামিকুল ইসলাম সরকার লিপন, য্গ্মু সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বাবু, গোলাম সরোয়ার প্রধান বিপ্লব, সাংগঠনিক সম্পাদক ফিরোজ কবির সুমন, মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি আব্দুস সোহবান মন্ডল, সদর ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান ইসলাম, কিশোরগাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম রিন্টু, হোসেনপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুল আমিন মন্ডল টিটু, পবনাপুর ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম মন্ডল, জাপা নেতা আলমগীর মন্ডল উপস্থিত ছিলেন। কিশোরগাড়ী ও হোসেনপুর ইউনিয়নে পৃথক পৃথক নির্বাচনী গণসংযোগ ও উঠান বৈঠকে সর্বস্তরের এলাকাবাসীর সাথে কুশল বিনিময় কালে নৌকায় ভোট প্রার্থনা করেন।



আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
এবার পাকিস্তানের সেনা বহরে আত্মঘাতী হামলা, নিহত ৯
যৌন হয়রানির অভিযোগে ইটিভির সাংবাদিক বুলবুল বরখাস্ত
মাগুরার এএসপি ছয়রুদ্দিনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
জ্ঞান, দক্ষতা ও দেশপ্রেমকে সমন্বয় করে শিক্ষা ব্যবস্থা বিন্যস্ত করতে হবে: ইবি ভিসি
‘বড় বাবুর’ ৫ কোটি টাকার বাড়ি
মাইজভান্ডারীর ওরশে যাওয়ার পথে কুমিল্লার সড়কে প্রান গেল ৫ জনের
আবুধাবিতে প্রধানমন্ত্রী
কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নাজমুল মালিথা নামে মাদক ব্যবসায়ী নিহত
মোদীর বার্তায় যুদ্ধের শঙ্কা, পাকিস্তান চালাবে পারমাণবিক হামলা
ভিক্ষুকের কোলের বাচ্চাটি সবসময় ঘুমিয়ে থাকে? এর পেছনে ভয়ংকর এক কাহিনী!
টেকনাফে ১০২ ইয়াবা ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ
ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা তুঙ্গে, যুদ্ধের আশঙ্কা
যে কারণে কলকাতায় অপু বিশ্বাস
আমিন ধ্বনিতে মুখরিত তুরাগ পাড়, শেষ হলো প্রথম পর্বের ইজতেমা
সেক্রেটারির নেতৃত্বে কমিটি নতুন দল গড়ার চেষ্টায় জামায়াত
জনতার হাতে পুলিশের এসআই ধরা
ধর্মের ওপর গবেষণা করার পর ইসলাম গ্রহণ করলেন তিন মার্কিন অধ্যাপক
শেখ হাসিনার পর কে হবেন প্রধানমন্ত্রী?
পাকিস্তানকে কড়া হুঁশিয়ারি ভারতের
সেক্স রোবট বিপ্লব, সৃষ্টি হয়েছে বিতর্কের