শিরোনাম:
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারী ২০১৯, ৯ মাঘ ১৪২৫

Bijoynews24.com
বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮
প্রথম পাতা » খুলনা | চট্টগ্রাম | জাতীয় সংবাদ | ঢাকা | নির্বাচন | ফটো গ্যালারী | বক্স্ নিউজ | বরিশাল | ময়মনসিংহ | রংপুর | রাজনীতি | রাজশাহী | শিরোনাম | সিলেট | স্পেশাল রির্পোট » “যে কারণে মাহবুবউল আলম হানিফ এত জনপ্রিয়”
বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

“যে কারণে মাহবুবউল আলম হানিফ এত জনপ্রিয়”

 

॥ শামসুল আলম স্বপন ॥

---একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে কুষ্টিয়ায় প্রার্থী মুল্যায়নে ভোটারদের কাছে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থা ভাজন মানুষ জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি। তাঁর জনপ্রিয়তার ধারে কাছে নেই কোন দলের প্রার্থী । তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বি উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপি’র প্রার্থী জাকির হোসেন সরকার নিজের দলের বিদ্রোহী কর্মীদের সামাল দিতেই হিমশিম খাচ্ছেন। তাঁর বিরুদ্ধে বিএনপি’র পোড় খাওয়া নেতা-কর্মীদের অভিযোগ জাকির হোসেন সরকার আসলে বিএনপি’র হাইব্রিড নেতা। আন্দোলনসহ বিএনপি’র কোন কর্মসূচিতে তাকে কোন দিন পাওয়া যায়নি। খালেদা জিয়ার শাসনামলে তাঁর এপিএস (পরে রাজনৈতিক উপদেষ্টা) মোসাদ্দেক হোসেন ফালুর ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে চাকরি করার সুবাদে জাকির হোসেন ক্ষমতা ব্যবহার করে বৈধ-অবৈধ পন্থায় কোটি কোটি টাকা আয় করেন। কিন্তু বিএনপি’র কোন কর্মকান্ডে তিনি কোন সহযোগিতা দেন নি। বিগত উপজেলা নির্বাচনের মধ্য দিয়ে তিনি বিএনপি’র রাজনীতিতে অভিশিক্ত হন। কিন্তু দুর্দিনে বিএনপি’র নেতা কর্মীদের কোন খোঁজ খবর রাখেননি তিনি।
উপজেলা চেয়ারম্যান হয়ে বছরে ত্রিশদিনও অফিস করেননি। কোন উন্নয়নও করতে পারেনি তিনি । নেননি জনগণের কোন খোঁজ খবর। বিএনপি’র সাবেক এমপি অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন দীর্ঘদিন বিএনপি’র রাজনীতির সাথে জড়িত থাকা এবং কর্মী সমর্থকদের সুখে দুখে পাশে থাকার কারণে এবার সবাই আশা করেছিল তিনি বিএনপি’র মনোনয়ন পাবেন। জাকির হোসেন সরকার ও অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন দু’জনকেই বিএনপি’র প্রাথমিক মনোনয়ন দিয়েছিল কেন্দ্র । কিন্তু টাকার কাছে হেরে গেছেন অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন । ৫ কোটি টাকার বিনিময়ে মনোনয়ন ক্রয় করেছেন জাকির হোসেন সরকার এমন সংবাদও প্রকাশিত হয়েছে মিডিয়াতে।

তাই অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিনের সমর্থকরা মেনে নিতে পারেননি জাকির হোসেনকে। তারা কেন্দ্রর উপর চরম ক্ষুদ্ধ । জাকির হোসেনকে মানিনা এমন শ্লোগান দিয়ে বিএনপি’র নেতা-কর্মী-সমর্থকরা মিছিলও করেছেন। তারা বলছেন অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিনকে মনোনয়ন দিলে তিনি ভালো করতেন নির্বাচনে । জাকির হোসেনকে মনোনয়ন দেয়ায় বিএনপি’র অধিকাংশ নেতা-কর্মী হাত গুটিয়ে বসে আছেন । তারা এখনো নামেননি নির্বাচনী মাঠে। ক্ষুদ্ধ নেতা-কর্মীদের ভয়ে জাকির হোসেন মাঠে নামতে পারছেন না । উপজেলা নির্বাচনে জাকির হোসেনের যা জনপ্রিয়তা ছিল এবার জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন পাওয়ার পর তা একেবারেই ধ্বস নেমেছে এমনটি ভাবছেন রাজনৈতিক বিশ্লেকরা। টাকা লোভী হাতে গোনা কিছু কর্মী জাকির হোসেনের সাথে আছে কিন্তু নিবেদিত প্রাণ বিএনপি’র কর্মীদের তিনি কাজে লাগাতে না পেরে পাত্তাড়ি গুটিয়ে ঢাকাতে অবস্থান নিয়ে আওয়ামীলীগের ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছেন এই বলে যে, আওয়ামী লীগ তার নির্বাচনী মাঠে নামতে দিচ্ছে না।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ন্যাশনালিষ্ট ফ্রন্ট বিএনএফ’র টেলিভিশন মার্কার প্রার্থী মো: আসাদুল হক বলেন,নির্বাচনে আমরা প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছি আমাদের কেউ বাধা দেয়নি বরং ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ আমাদের নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে উৎসাহিত করছে। তিনি আরো বলেন আওয়ামীলীগ-বিএনপি বাদে এখানে আরো ৪টি রাজনৈতিক দল থেকে আমরা নির্বাচনে অংশ নিয়েছি কিন্তু কেউ নির্বাচনী প্রচারণায় বাধার সম্মুখিন হয়েছে তা আমি শুনিনি।
অনেকেরই ধারণা মাহবুবউল আলম হানিফ’র রাজনৈতিক প্রজ্ঞা,মানুষের প্রতি মমতাবোধ,ধৈর্য সহনসশীলতা,সুন্দর আচরণ এবং কুষ্টিয়ায় দৃশ্যমান বেশ কয়েকটি বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন করে কুষ্টিয়াবাসীর অন্তর জয় করেছেন।

এ সব প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল নির্মাণ,বাইপাস সড়ক নির্মাণ, হরিপুর শেখ রাসেল সেতু নির্মাণ ( বিএনপি’র ১৫ বছর শাসনামলে এই প্রকল্প গুলো বাস্তবায়নের জন্য বার বার প্রতিশ্রুতি দিলেও তা তারা বাস্তবায়ন করতে পারেনি),সুইমিং পুল নির্মাণ,মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ,জিমনেসিয়াম ও ক্রিকেট স্টেডিয়াম নির্মাণ,সুপেয় পানির সংরক্ষণ ব্যবস্থা করা,শতভাগ বিদ্যুৎ নিশ্চিৎ করা,বিনোদন পার্ক নির্মাণ, বিভিন্ন মাদ্রসা,স্কুল,কলেজসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন, রাস্তা ঘাট পাকাকরণসহ বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন করেন। এছাড়া মাহবুবউল আলম হানিফ কুষ্টিয়ার উন্নয়নে হাতে নিয়েছেন যুগান্তকারী কর্মসূচি :
১. আইটি পার্ক নির্মাণ ২. এক হাজার আসন বিশিষ্ট অডিটরিয়ম ৩. আধুনিক শিল্পকলা একাডেমি ভবন নির্মাণ ৪. কেন্দ্রীয় মসজিদ ভবন নির্মাণ ৫.গড়াই নদীর তীর রক্ষা বাধ নির্মাণসহ আরো বেশ কয়েকটি প্রকল্প।
অভিজ্ঞ মহল বলছে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে বিগত আওয়ামীলীগের ১০ বছরের শাসনামলে মাহবুবউল আলম হানিফ কুষ্টিয়াতে যে উন্নয়ন করেছেন তা স্বাধীনতার ৪৭ বছরের মধ্যে কেউ করতে পারেননি । বাকী যে প্রকল্প গুলো তিনি হাতে নিয়েছেন এবার নির্বাচিত হলে তিনি অল্প সময়ের মধ্যেই তা বাস্তবায়ন করতে পারবেন এ বিশ্বাস জন্মেছে কুষ্টিয়াবাসীর মনে।

অবকঠামো উন্নয়নের ক্ষেত্রেই শুধু নয়, কুষ্টিয়ার আইন-শৃঙ্খলার উন্নয়নেও মাহবুবউল আলম হানিফ বিশেষ অবদান রেখে চলেছেন ১৯৯৯ সাল থেকে। যখন অনেকেই তাঁকে চিনতেন না। আপনাদের নিশ্চয় মনে আছে ১৯৯৯ সালের ১৬ই ফ্রেরুয়ারী কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে উপজেলার কালিদাসপুর ঘটে যায় এক মর্মান্তিক হৃদয় বিদারক ঘটনা । চরমপন্থীরা প্রকাশ্য জনসভায় ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করে জাসদ সভাপতি কাজী আরেফ আহমেদসহ ৫ নেতাকে। এতে সরকার অত্যন্ত বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে। সরকার চরমপন্থীদের নির্মুলে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহন করে। শক্তি প্রয়োগের আগে সরকার কৌশল হিসেবে চরমপন্থীদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করে চরমপন্থীদের করা সুযোগ দেয়। প্রথমে যশোরে পরে ২৩ জুলাই কুষ্টিয়া ষ্টেডিয়ামে চরমপন্থীদের আত্মসমর্পন করার ব্যবস্থা করা হয়। এ দিন তৎকালীন স্বরাষ্টমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের হাতে অস্ত্র সমর্পন করেন ফাঁসির আসামী গণবাহিনীর প্রধান কসাই সিরাজ, তার সেকেন্ড ইন কমান্ড ঝাউদিয়া ইউনিয়নের মেম্বর পরে চেয়ারম্যান আজিবর রহমান ,আব্দালপুর ইউনিয়নের চরপড়া গ্রামের আইনাল হক আনুসহ শতাধিক স্বশস্ত্র ক্যাডার। যারা গণবাহিনী তৈরী করেছিলেন তাদের কেউ নন, আত্মঘাতী অন্ধকারের পথ ছেড়ে চরমপন্থীদের আলোর পথে আসার সুযোগ করে দিয়েছিলেন আজকের জননন্দিত নেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি । তাঁর কারণে কুষ্টিয়ার ২০ লক্ষ মানুষ আজ ঘুমোতে পারছে শান্তিতে।

সন্ত্রাস ও মাদক নির্মূলে জননেতা হানিফ কঠোর অবস্থানে থাকায় কুষ্টিয়া অনেকটা মাদক মুক্ত। বিরোধী রাজনৈতিক দলের প্রতিও রয়েছে তাঁর সহমর্মিতা। এ সব কারণেই মাহবুবউল আলম হানিফ কুষ্টিয়াবাসীর কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় নেতা এ কথা বলছেন সাধারণ জনগণ।

 

 

 

প্রতিবেদক:

 

--- শামসুল আলম স্বপন
সম্পাদক
বিজয় নিউজ ২৪ ডটকম

সাবেক জেলা গ্রাম সরকার প্রধান,কুষ্টিয়া।
মোবাইল : ০১৭১৬৯৫৪৯১৯



আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
‘আমাদের বিয়ে নিয়ে আমি নিশ্চিত ছিলাম না’
সিলেট সীমান্তে বিজিবি-চোরাচালানি গোলাগুলিতে কিশোর নিহত
মীরসরাইয়ে স্বামীকে গলাকেটে হত্যা, প্রথম স্ত্রী আটক
প্রকল্প বাস্তবায়নে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
সাবেক প্রধান বন সংরক্ষকের সাজা আপিলেও বহাল
চাঁপাইনবাবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে র‌্যাবের অভিযান সমাপ্ত, আটক ১
কুমিল্লায় একই পরিবারের পাঁচ জনের হিন্দু থেকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ
সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬
কুষ্টিয়ায় জামায়াত কর্মীদের জাসদে যোগদানের খবরে তোলপাড়
ক্রিকেট জুয়ায় কাঁপছে দেশ
আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল আর নেই
এখন থেকে কেউ মিথ্যা মামলা করলে জেলে যেতে হবে
গাইবান্ধায় মানুষদের চরম বিপাকে ফেলেছে ট্রাক্টর নামক মালামাল পরিবহনের যানটি
সুন্দরগঞ্জে পাকা সড়ক বিনষ্ট করছে একশ্রেণীর বাহন
লালপুরে দুর্বৃত্তদের হাতে নিহত জামিরুলের দাফন সম্পন্ন
মৌলভীবাজারে ইয়াবাসহ আটক-১
ইবি কর্মকর্তার পিতার মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক
প্রাথমিক জেলা মনিটরিং অফিসার হঠাৎ ক্লাসে : নীলফামারীতে ৪র্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা বাংলা রিডিং পড়তে পারে না
নিজ গ্রামের বাড়ি আসছেন রেলপথ মন্ত্রী
ঝিনাইদহ জেলা জুড়ে যত্রতত্র বেকারী, নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে নিন্মমানের খাবার তৈরী