শিরোনাম:
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫

Bijoynews24.com
বৃহস্পতিবার, ২২ নভেম্বর ২০১৮
প্রথম পাতা » জাতীয় সংবাদ | ঢাকা | ফটো গ্যালারী | বক্স্ নিউজ | শিরোনাম | সংগঠন সংবাদ » শিশু সংবেদনশীল সংবাদ পরিবেশন শিশু পাচার মোকাবেলায় কার্যকরী
প্রথম পাতা » জাতীয় সংবাদ | ঢাকা | ফটো গ্যালারী | বক্স্ নিউজ | শিরোনাম | সংগঠন সংবাদ » শিশু সংবেদনশীল সংবাদ পরিবেশন শিশু পাচার মোকাবেলায় কার্যকরী
বৃহস্পতিবার, ২২ নভেম্বর ২০১৮
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

শিশু সংবেদনশীল সংবাদ পরিবেশন শিশু পাচার মোকাবেলায় কার্যকরী

---বিজয় নি্উজ টুয়েন্টিফোর ডটকম,ঢাকা: লিংগ ও শিশু সংবেদনশীল সংবাদ পরিবেশন ও প্রতিবেদন প্রকাশের মাধ্যমে মানব পাচার বিশেষ করে নারী ও শিশু পাচারের মতো গুরুতর জাতীয় সমস্যা মোকাবেলা করার ক্ষেত্রে গণমাধ্যম কর্মীরা গুরুত্বপূর্ণ ভ’মিকা পালন করতে পারে বলে অধিকার কর্মীরা মনে করেন।

সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ তার বিভিন্ন খাতে অগ্রগতি ও সাফল্য অর্জন করলেও দেশটিকে এখনও অনেক প্রতিবন্ধকতা ও সমস্যা মোকাবেলা করতে হচ্ছে বলে তারা মনে করেন। এর মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে নারী ও শিশু পাচার।

এই বিষয় নিয়ে কর্মরত অধিকার কর্মীরা মনে করেন, বাংলাদেশে বর্তমানে আশংকাজনকভাবে ঘটে যাচ্ছে আভ্যন্তরীণ ও আন্ত:সীমান্ত পাচার। এই পাচারের মাধ্যমে শ্রম ও যেীন শোষণের পাশাপাশি চাকরী দেওয়ার মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে বিদেশে শোষণমূলক ও অমানবিক পরিবেশে সকল ধরণের অধিকার বঞ্চিত হয়ে থাকতে হচ্ছে।

নারী ও শিশু পাচার এর কারণ ও প্রতিরোধে বাধাসমূহ হচ্ছে তাদের প্রতি পারিবারিক ও সামাজিক স্তরে বৈষম্যমূলক আচরণ, শিশু অধিকার রক্ষায় অপ্রতুল তহবিল এবং শিশুসুরক্ষা সেবার অভাব। পাচারের সাথে আর্থ-সামাজিক ও অন্যান্য বিবিধ বিষয় ও জড়িত রয়েছে।

এছাড়া, অনেকেরই হয়তো ধারণা যে, তাদের নিজেদের ঘরের শিশুরা পাচার হবেনা কারণ তারা সচেতন। আবার কারো কারো এমন ধারনা পোষণ করেন যে, কেবলমাত্র দরিদ্র পরিবারের শিশুরাই পাচারের শিকার হয়। কেউ কেউ আবার ভাবেন যে, কেবলমাত্র মেয়ে শিশুরাই পাচারের শিকার হয়।

অধিকার কর্মীরা মনে করেন এই সবগুলো ধারণাই ভুল। ধনী ও দরিদ্র যে কোনো পরিবারের  শিশুরাই পাচারের শিকার হয়ে থাকে। তাদের মতে, শিশু পাচার হলো বাণিজ্যের এমন একটি রুপ যার উদ্দেশ্য থাকে সাধারণত যেীন দাসত্ব, জোরপূর্বক শ্রম, বাধ্যতামূলক শোষণমূলক শ্রম ও অংগপাচারের মতো কার্যকলাপের মাধ্যমে মুনাফা অর্জন।

পাচারের ভয়াবহ পরিণতির কথা উল্লেখ করে তারা বলেন যে, এটি ব্যক্তি অধিকার হরণ করে ও আক্রান্ত ব্যক্তির ব্যক্তিগত নিরাপত্তা, মর্যাদা, শারীরিক এবং মানসিক স্বাধীনতা হরণ করে।

পাচারের শিকার ব্যক্তিরা সাধারণত দাসের মতো বন্দী হয়ে শোষিত হয়। মেয়ে শিশুদের মতো ছেলে শিশুরাও পাচারের শিকার হয়। গবেষণার উদ্ধৃতি দিয়ে অধিকার কর্মীরা বলেন যে, ছেলে শিশুরা মেয়ে শিশুদের মতই অপরাধীদের হাতে বন্দী হয়ে যেীন দাসত্ব বা পতিতাবৃত্তির শিকার হয়ে থাকে।

পতিতাবৃত্তি ছাড়াও মেয়ে ও ছেলে শিশুরা বিভিন্ন ধরণের জোরপূর্বক শ্রম ও বাধ্যতামূলক শোষণমূলক শ্রমের উদ্দেশ্যে পাচারের শিকার হয়।

এই বিষয়ে উদাহরণ দিতে গিয়ে তারা বলেন যে, নিজের পরিবারের মতই ¯েœহধন্য পরিবেশে লেখাপড়া ও খেলাধূলার পাশাপাশি ঘরের কাজ করতে হবে  ্এই কথা বলে শিশুদের নিয়োগ করে তাদের কোন ধরণের শিক্ষা ও ¯েœহ প্রদান না করে অত্যাচার ও দীর্ঘ সময় বিনা বা স্বল্প মজুরিতে কাজ করানো এবং ছুটি বা ঘরে ফেরার দাবী উপেক্ষা করা।

”আগাম শ্রম কিনে নিয়ে ইটের ভাটা বা মাছ ধরা/শুটটি তৈরীর কাজে শিশুদের নিয়োগ দেওয়া, জোরপূর্বক ভিক্ষাবৃত্তি, ছেলে-মেয়ে উভয়ই অংগ পাচারের শিকার হওয়া ইত্যাদি। তাছাড়াও তারা পাচারকারীদের হতে যেীন শোষিত হয়”।

পাচার প্রতিরোধে প্রণীত ’মানব পাচার দমন ও প্রতিরোধ আইন, ২০১২’ তে পাচারকে কিভাবে সংগায়িত করা হয়েছে, সে বিষয়ে আলাকপাত করে অধিকার কর্মীরা বলেন যে, মানব পাচার অর্থ হলো কোনো ব্যক্তিকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন বা বলপ্রয়োগ করে; বা প্রতারণা করে বা উক্ত ব্যক্তির আর্থ-সামাজিক বা পরিবেশগত বা অন্য কোনো অসহায়ত্বকে কাজে লাগিয়ে।

”অর্থ বা অন্য কোনো সুবিধা লেনদেনপূর্বক উক্ত ব্যক্তি ওপর নিয়ন্ত্রণ আছে এমন ব্যক্তির সম্মতি গ্রহণ করে; বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বা বাইরে যেীন শোষণ বা নিপীড়ন বা শ্রম শোষণ, বা অন্য কোনো শোষণ বা নিপীড়নের উদ্দেশ্যে বিক্রয় বা ক্রয়, সংগ্রহ বা গ্রহণ, নির্বাসন বা স্থানান্তর, চালান বা আটক করা বা লুকিয়ে রাখা বা আশ্রয় দেওয়া”।

শিশু পাচার বিষয়ে উক্ত আইনের বিশদ ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে অধিকার কর্মীরা বলেন, ”যখন কোনো শিশু পাচারের শিকার হয়, সে ক্ষেত্রে কি পদ্ধতিতে শিশুটিকে নিয়ন্ত্রিত করা হয়েছে তা বিবেচিত হবে না। এবং শিশু পাচারের ক্ষেত্রে শিশু কোনো প্রকার সম্মতি প্রকাশ করেছে কিনা তাও বিবেচিত হবেনা। এর অর্থ হলো, কোনো শিশু যদি পাচারের শিকার হয় তাহলে তাকে পাচারের জন্য হুমকি বা শক্তি প্রয়োগ করা হয়েছিলো কিনা বা জবরদস্তি, অপহরণ বা প্রতারণা করা হয়েছিলো কিনা অথবা তার সম্মতি নেওয়া হয়েছিলো কিনা তাও বিবেচ্য নয়”।

উল্লেখ্য, আমাদের দেশে শিশু আইন (২০১৩) অনুযায়ী ১৮ বছরের নিচে সকলেই শিশু।

’শিশু পাচার প্রতিরোধে কমিউনিটি ও নেটওয়ার্কিং সুদৃঢ়করণ’ মোর্চার অন্যতম সদস্য কমিউনিটি পার্টিসিপেশন এন্ড ডেভেলপমেন্ট (সিপিডি) এর নির্বাহী পরিচালক মোসলেমা বারী মনে করেন, পাচারকৃত ও অন্যান্য নির্যাতনের শিকার শিশুদের জরুরী সেবা ও সহায়তা, নিরাপত্তা ও দীর্ঘমেয়াদি পুনর্বাসন এর ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ও উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণের ক্ষেত্রে গণমাধ্যম এর ইতিবাচক সংবাদ পরিবেশন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।

তিনি মনে করেন,  শিশু সুরক্ষা ও কল্যাণে যে সমস্ত আইন, বিধিমালা এবং কর্মপরিকল্পনা আছে তা কতটুকু বাস্তবায়ন হচ্ছে সে বিষয়ে গণমাধ্যমে অব্যাহতভাবে ইতিবাচক সংবাদ পরিবেশন করা হলে সহজেই দেশের নীতি নির্ধারকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা যাবে।



আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
শিক্ষা ব্যবস্থা আরও যুগোপযোগী করা হবে : শিক্ষামন্ত্রী
চতুর্থ শ্রেণির শিশুকে ‘ধর্ষণ চেষ্টা’
আগুনে পুড়ে ছাই ২টি গরু নিবাতে গিয়ে ঝলছে আহত-৩
গাইবান্ধার বিভিন্ন এলাকায় ভারতের বনাঞ্চল থেকে একটি হনুমানের দেখা গেছে
গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ছয় কোচিং সেন্টার সিলগালা : বেঞ্চ ধ্বংস
পদকপ্রাপ্তদের মাঝে একুশে পদক প্রদান করলেন প্রধানমন্ত্রী
ফেসবুকে পরিচয়,প্রেম-বিয়ে অত:পর
পরিবারের সবাইকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে শ্যালিকাকে ধর্ষণ
ইবিতে আন্তর্জাতিক পর্যটনের উপর সেমিনার
মনু নদী খননের দাবীতে বিশাল মানববন্ধন
সুন্দরগঞ্জে অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধন
কুষ্টিয়ার বটতৈল জিকে খাল থেকে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার
বাচ্চা শিশুদের বিষ খাওয়াচ্ছেন? কাপড়ের রং আর স্যাকারিন দিয়ে ম্যাঙ্গো জুস
সাড়ে ৩শ মাদক স্পট থেকে কোটি টাকা মাসোহারা, আখাউড়ার ওসি ক্লোজড
ইমরানের যুদ্ধ উস্কানির পরেই সীমান্তে ব্যাপক গোলাগুলি, পাল্টা জবাব ভারতের
চুপ করে বসে থাকবো না, পাল্টা হামলা চালাব: ইমরান খান
ভারতে পৌঁছেছেন সৌদি যুবরাজ
টেকনাফে ইয়াবা পাচারকারীদের সঙ্গে বিজিবির ‘বন্দুকযুদ্ধ’, রোহিঙ্গা নিহত
৬৫ বছরের বৃদ্ধাকে ধর্ষণ করলো এই দুই বখাটে!
কুষ্টিয়া ডিবি পুলিশের সফল অভিযান : ৩শ বোতল ফেন্সিডিল ৩ কেজি গাঁজাসহ আটক-১