শিরোনাম:
●   কুষ্টিয়ায় নিখোঁজ সাংবাদিকের মরদেহ উদ্ধার ●   কাফন মিছিলের পর শাবিতে এবার গণঅনশনের ডাক ●   ●   কুষ্টিয়ায় পরিবেশ বান্ধব জিকজাক ইট ভাটার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ওরা কারা ? ●   কুষ্টিয়ার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নবাসী তাদের প্রিয় নেত্রী সম্পা মাহমুদকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানিয়েছে ●   ঢাকাসহ সারাদেশে রেড অ্যালার্ট জারি ●   অবশেষে ‘‘সৈয়দ মাছ-উদ-রুমী সেতুুর’’ (গড়াই সেতু) টোলে পে-অর্ডারর জাতিয়াতির টাকা ফেরৎ দিল ব্যাংক ●   কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মশাল প্রতীকের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি ●   দৌলতপুরে কৃষি, ব্যাংক কর্মকর্তার ১৩ বছরের কারাদণ্ড ●   ‘একটি গোষ্ঠী ঘটনার জন্ম দিয়ে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত করতে চায়’
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ৩ ভাদ্র ১৪২৯

Bijoynews24.com
বৃহস্পতিবার, ১০ মার্চ ২০১৬
প্রথম পাতা » সংগঠন সংবাদ » বনপা নিয়ে কিছু কথা…
প্রথম পাতা » সংগঠন সংবাদ » বনপা নিয়ে কিছু কথা…
বৃহস্পতিবার, ১০ মার্চ ২০১৬
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

বনপা নিয়ে কিছু কথা…

---বিজয় নিউজ: নির্মল বড়ুয়া মিলন :: বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা’র কিছু কথা নিজের দায়বদ্ধতা থেকে লিখতে হচ্ছে। কাউকে ছোট করার জন্য ও নয়, আবার কাউকে বড় করার জন্যও নয়। বনপা ও বিজয় নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ও সম্পাদক শামসুল আলম স্বপন নাম দু’টি অবিচ্ছেদ্য। শামসুল আলম স্বপন একেবারে সহজ সরল, সংগঠন প্রিয় মানুষ। শামসুল আলম স্বপন ও অধ্যাপক আকতার চৌধুরী দু’জনের-ই বাংলাদেশের অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলোর প্রকাশক ও সম্পাদকদের তৃণমুল পর্যায়ের সংগঠন বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা গঠনের ভুমিকা অনস্বীকার্য।

২০১৫ সালে মাঝামাঝি এসে স্বপন ভাই বনপা’কে আরো গতিশীল করার জন্য বনপা’র সম্মেলন-২০১৫ ডাক দেন। শামসুল আলম স্বপনের ডাকে সাড়া দিয়ে সারা দেশের তৃণমুল পর্যায়ের হাজার খানিক নিউজ পোর্টালের প্রকাশক ও সম্পাদক সাধারন পরিষদের সদস্য পদ গ্রহণ করে। সম্মেলন পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয় দিনাজপুর নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ইঞ্জিনিয়ার রোকমুনুর জামান রনিকে। তিনি ২১ আগষ্ট ২০১৫ তারিখ সাধারন পরিষদ ডেকে বনপা’র সম্মেলন সম্পন্ন করেন। এতে পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হন শামসুল আলম স্বপন।

সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন বিষের বাঁশি ডটকম এর প্রকাশক সুভাষ সাহা। তখনো কিন্তু বনপা’র পুর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি। সম্মেলনের ৩ দিনের মাথায় সাধারন সম্পাদক কাউকে কিছু না জানিয়ে হঠাৎ করে বনপা’র সভা ডেকে বসলেন।এতে ক্ষুব্ধ হন বনপা’র কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ। এর থেকে শুরু হয় সুভাষ সাহা গং ও বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে মতবিরোধ।মাঝখানে বনপা’র সিনিয়র নেতৃবৃন্দ বারবার মতবিরোধ নিরসনের চেষ্টা করেন।

কিন্তু সুভাষ বাবু গুটিকয়েক ব্যাক্তির কান কথা শুনে বনপা’র বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা ও তার সদস্যদের নিউজ পোর্টাল গুলি হচ্ছে অলাভজনক, অধ্যাবধি নেই কোন নীতিমালা ও সরকারের কোন ধরনের সুযোগ সুবিধা। এই বিষয়টি মাথায় রেখে আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দের আরো কৌশলী হওয়া প্রয়োজন ছিল, কিন্তু তাঁরা তা করেন নাই। বর্তমান সময়ে সংবাদ মাধ্যমে একে অপরের বিরুদ্ধে বিষাদগারে লিপ্ত থাকায় সাধারন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের হতাশ করেছে। এ থেকে উত্তোরনের একমাত্র পথ দ্বীমত নয় ঐক্যমত।

বাংলাদেশে এমনিতেই অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলির দৈন্য দশা, তারপরে রয়েছে নিন্দুকদের কাজে অকাজে সমালোচনা। আমাদের মধ্যে বিভক্তি শত্রুদের মধ্যে রসদ যোগায়, আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দ বিষয়টি উপলদ্ধি করেন কিনা জানা নেই। আমি বনপা’র সদস্য হওয়ার পর চেষ্টা করেছি বনপা ডট নেট নিউজ পোর্টালটি বাংলাদেশের অন্যতম একটি জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল হিসেবে সাজাতে, বনপা’র সকল সদস্য নিউজ পোর্টাল গুলিকে ছবি সংবলিত একটি তালিকায় আনতে,যাতে করে পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে যে কেউ দেশের যেকোন মন্ত্রণালয় থেকে বা প্রশাসন থেকে ভিজিট করলে অতি সহজে বনপা’র সদস্য পোর্টালগুলি পেয়ে যান। কিন্তু অতিবুদ্ধিমান বনপা’র নেতাদের কারণে সে কাজে হাত দিয়েও বাস্তবায়ন না করে পিছিয়ে আসতে হয়েছে। এখন যদি প্রশ্ন করা হয় বনপা নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের কি স্বার্থ সংরক্ষণ করে? সদস্যদের কাছে আমাদের উত্তরটা কি হবে ?

দেশ ও বিদেশে অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সংগঠন হিসেবে একমাত্র বনপা’ই পরিচিত। সেখানে বনপা’র নিজস্ব ওয়েভ সাইটটি আপগ্রেড করা হয়না।ভাবতেও অবাক লাগে আমরা সংবাদিকতা পেশায় জড়িত। সবাই জানেন সাংবাদিকতা পেশা একটি মহৎ পেশা, কিন্তু আমাদের মধ্যে মহত্তের বিন্দু মাত্র রেষ ও নেই। যেখানে প্রতিনিয়ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকরা ডোমেইন ও ওয়েভ সাইট ডিজাইনার ব্যবসায়ীদের কাছে প্রতারিত হচ্ছে, সেখানে বনপা’র ভুমিকা কি থাকা উচিৎ  বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দরা কি একবারও ভেবে দেখেছেন?

আমরা শুধু বনপা’র সংগঠন এবং সদস্য বাড়ানো নিয়ে ব্যস্ত আছি কিন্তু তাদের পেশাগত দক্ষতা ও অনলাইন সাংবাদিকতার পেশাগত মান বৃদ্ধি করা এবং সর্বত্রে অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকদের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করা নিয়ে কাজ করিনা, চিন্তাও করি না।

আমরা শুধু ব্যস্ত আছি সদস্য তালিকা বাড়ানোর কাজে। প্রতিমাসে পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের টাকা ব্যয় করতে হয় ইন্টারনেট সংযোগ বিল, বিদ্যুৎ বিল, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ক্যামেরা, মডেম, গাড়ীর জালানী এছাড়া বছর শেষে ডোমেইন পুনঃরেজিষ্ট্রি, হোষ্টিং বাড়ানো, পোর্টাল সাংবাদিকদের সম্মানী ইত্যাদি। বনপা’র পক্ষ থেকে সদস্যদের জন্য বর্তমান সময়ে যাহা করণীয় এবং অত্যাবশ্যক সেগুলো কিছু অংশ বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে তুলে ধরছি , যেমন:

১. নিউজ পোর্টাল নিবন্ধন প্রক্রিয়া সহজ ও স্বচ্ছ ভাবে সমাধান করা।

২, বিটিসিএল সহ অন্যান্য মোবাইল কোম্পানীর সাথে চুক্তি করে নিউজ পোর্টালের জন্য দ্রুতগতি সম্পন্ন ইন্টারনেট সংযোগ অর্ধেকমুল্যে ব্যবস্থা করা।

৩. ডোমেইন ও হোষ্টিং বিক্রেতাদের নির্দিষ্ট তালিকা তৈরী করা যেন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সাথে যে কোন ধরনের প্রতারণা করতে না পারে।

৪. মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল নিউজ পোর্টাল গুলির একটি তালিকা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, তথ্য মন্ত্রণালয়, প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ও সরকারের আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর দপ্তরে হস্তান্তর করা।

৫. রাষ্ট্রদ্রোহী যে সমস্ত পোর্টালে যোগাযোগের অথবা প্রকাশক, সম্পাদকের নাম নেই, অশ্লীল ও পর্ণোগ্রাফী প্রকাশ করে এমন ধরনের নিউজ পোর্টাল গুলির তালিকা সরকারের গোয়েন্দা সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা।

৬. সকল ধরনের নির্বাচনে অনলাইন মিডিয়া সংবাদ কর্মীদের পর্যবেক্ষনের সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়া।

৭. প্রেস ইনষ্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) কর্তৃক প্রতি জেলায় পরিচালিত সাংবাদিকদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মীদের অন্তর্ভুক্তির ব্যবস্থা করা।

৮. বিনা মুল্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্প থেকে নিউজ পোর্টল প্রকাশক ও সম্পাদকদেরকে কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ওয়েভ ক্যামেরা,মডেম ও অত্যাধুনিক ক্যামেরা ইত্যাদি পাওয়ার ব্যাবস্থা করা।

৯. বনপা’র সদস্য যে সকল নিউজ পোর্টাল প্রতিদিন নিয়মিত  সংবাদ প্রকাশিত হয়না এবং যে সকল সদস্যদের কোন ধরনের নিউজ পোর্টাল নাই সে সকল সদস্যদের বনপা থেকে অব্যাহতি দেওয়া।

১০. দেশের প্রতিটি উপজেলায় সরকারী খরচে প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে কমপক্ষে ২ টি স্বতন্ত্র কমিউনিটি নিউজ পোর্টাল চালুর ব্যবস্থা করা ইত্যাদি।

দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে বদ্ধ পরিকর। কর্মপরিকল্পনা কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা হতে পারে অনলাইন মিডিয়া জগতের দেশের শীর্ষ একমাত্র সংগঠন। আমাদের দরকার সমন্বিত উদ্যোগ এবং আগামীর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে দক্ষ অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মী হিসাবে আগামী দিনের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করা।

নির্মল বড়ুয়া মিলন :: বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা’র কিছু কথা নিজের দায়বদ্ধতা থেকে লিখতে হচ্ছে। কাউকে ছোট করার জন্য ও নয়, আবার কাউকে বড় করার জন্যও নয়। বনপা ও বিজয় নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ও সম্পাদক শামসুল আলম স্বপন নাম দু’টি অবিচ্ছেদ্য। শামসুল আলম স্বপন একেবারে সহজ সরল, সংগঠন প্রিয় মানুষ। শামসুল আলম স্বপন ও অধ্যাপক আকতার চৌধুরী দু’জনের-ই বাংলাদেশের অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলোর প্রকাশক ও সম্পাদকদের তৃণমুল পর্যায়ের সংগঠন বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা গঠনের ভুমিকা অনস্বীকার্য।

২০১৫ সালে মাঝামাঝি এসে স্বপন ভাই বনপা’কে আরো গতিশীল করার জন্য বনপা’র সম্মেলন-২০১৫ ডাক দেন। শামসুল আলম স্বপনের ডাকে সাড়া দিয়ে সারা দেশের তৃণমুল পর্যায়ের হাজার খানিক নিউজ পোর্টালের প্রকাশক ও সম্পাদক সাধারন পরিষদের সদস্য পদ গ্রহণ করে। সম্মেলন পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয় দিনাজপুর নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ইঞ্জিনিয়ার রোকমুনুর জামান রনিকে। তিনি ২১ আগষ্ট ২০১৫ তারিখ সাধারন পরিষদ ডেকে বনপা’র সম্মেলন সম্পন্ন করেন। এতে পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হন শামসুল আলম স্বপন।

সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন বিষের বাঁশি ডটকম এর প্রকাশক সুভাষ সাহা। তখনো কিন্তু বনপা’র পুর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি। সম্মেলনের ৩ দিনের মাথায় সাধারন সম্পাদক কাউকে কিছু না জানিয়ে হঠাৎ করে বনপা’র সভা ডেকে বসলেন।এতে ক্ষুব্ধ হন বনপা’র কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ। এর থেকে শুরু হয় সুভাষ সাহা গং ও বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে মতবিরোধ।মাঝখানে বনপা’র সিনিয়র নেতৃবৃন্দ বারবার মতবিরোধ নিরসনের চেষ্টা করেন।

কিন্তু সুভাষ বাবু গুটিকয়েক ব্যাক্তির কান কথা শুনে বনপা’র বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা ও তার সদস্যদের নিউজ পোর্টাল গুলি হচ্ছে অলাভজনক, অধ্যাবধি নেই কোন নীতিমালা ও সরকারের কোন ধরনের সুযোগ সুবিধা। এই বিষয়টি মাথায় রেখে আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দের আরো কৌশলী হওয়া প্রয়োজন ছিল, কিন্তু তাঁরা তা করেন নাই। বর্তমান সময়ে সংবাদ মাধ্যমে একে অপরের বিরুদ্ধে বিষাদগারে লিপ্ত থাকায় সাধারন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের হতাশ করেছে। এ থেকে উত্তোরনের একমাত্র পথ দ্বীমত নয় ঐক্যমত।

বাংলাদেশে এমনিতেই অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলির দৈন্য দশা, তারপরে রয়েছে নিন্দুকদের কাজে অকাজে সমালোচনা। আমাদের মধ্যে বিভক্তি শত্রুদের মধ্যে রসদ যোগায়, আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দ বিষয়টি উপলদ্ধি করেন কিনা জানা নেই। আমি বনপা’র সদস্য হওয়ার পর চেষ্টা করেছি বনপা ডট নেট নিউজ পোর্টালটি বাংলাদেশের অন্যতম একটি জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল হিসেবে সাজাতে, বনপা’র সকল সদস্য নিউজ পোর্টাল গুলিকে ছবি সংবলিত একটি তালিকায় আনতে,যাতে করে পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে যে কেউ দেশের যেকোন মন্ত্রণালয় থেকে বা প্রশাসন থেকে ভিজিট করলে অতি সহজে বনপা’র সদস্য পোর্টালগুলি পেয়ে যান। কিন্তু অতিবুদ্ধিমান বনপা’র নেতাদের কারণে সে কাজে হাত দিয়েও বাস্তবায়ন না করে পিছিয়ে আসতে হয়েছে। এখন যদি প্রশ্ন করা হয় বনপা নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের কি স্বার্থ সংরক্ষণ করে? সদস্যদের কাছে আমাদের উত্তরটা কি হবে ?

দেশ ও বিদেশে অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সংগঠন হিসেবে একমাত্র বনপা’ই পরিচিত। সেখানে বনপা’র নিজস্ব ওয়েভ সাইটটি আপগ্রেড করা হয়না।ভাবতেও অবাক লাগে আমরা সংবাদিকতা পেশায় জড়িত। সবাই জানেন সাংবাদিকতা পেশা একটি মহৎ পেশা, কিন্তু আমাদের মধ্যে মহত্তের বিন্দু মাত্র রেষ ও নেই। যেখানে প্রতিনিয়ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকরা ডোমেইন ও ওয়েভ সাইট ডিজাইনার ব্যবসায়ীদের কাছে প্রতারিত হচ্ছে, সেখানে বনপা’র ভুমিকা কি থাকা উচিৎ  বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দরা কি একবারও ভেবে দেখেছেন?

আমরা শুধু বনপা’র সংগঠন এবং সদস্য বাড়ানো নিয়ে ব্যস্ত আছি কিন্তু তাদের পেশাগত দক্ষতা ও অনলাইন সাংবাদিকতার পেশাগত মান বৃদ্ধি করা এবং সর্বত্রে অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকদের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করা নিয়ে কাজ করিনা, চিন্তাও করি না।

আমরা শুধু ব্যস্ত আছি সদস্য তালিকা বাড়ানোর কাজে। প্রতিমাসে পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের টাকা ব্যয় করতে হয় ইন্টারনেট সংযোগ বিল, বিদ্যুৎ বিল, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ক্যামেরা, মডেম, গাড়ীর জালানী এছাড়া বছর শেষে ডোমেইন পুনঃরেজিষ্ট্রি, হোষ্টিং বাড়ানো, পোর্টাল সাংবাদিকদের সম্মানী ইত্যাদি। বনপা’র পক্ষ থেকে সদস্যদের জন্য বর্তমান সময়ে যাহা করণীয় এবং অত্যাবশ্যক সেগুলো কিছু অংশ বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে তুলে ধরছি , যেমন:

১. নিউজ পোর্টাল নিবন্ধন প্রক্রিয়া সহজ ও স্বচ্ছ ভাবে সমাধান করা।

২, বিটিসিএল সহ অন্যান্য মোবাইল কোম্পানীর সাথে চুক্তি করে নিউজ পোর্টালের জন্য দ্রুতগতি সম্পন্ন ইন্টারনেট সংযোগ অর্ধেকমুল্যে ব্যবস্থা করা।

৩. ডোমেইন ও হোষ্টিং বিক্রেতাদের নির্দিষ্ট তালিকা তৈরী করা যেন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সাথে যে কোন ধরনের প্রতারণা করতে না পারে।

৪. মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল নিউজ পোর্টাল গুলির একটি তালিকা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, তথ্য মন্ত্রণালয়, প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ও সরকারের আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর দপ্তরে হস্তান্তর করা।

৫. রাষ্ট্রদ্রোহী যে সমস্ত পোর্টালে যোগাযোগের অথবা প্রকাশক, সম্পাদকের নাম নেই, অশ্লীল ও পর্ণোগ্রাফী প্রকাশ করে এমন ধরনের নিউজ পোর্টাল গুলির তালিকা সরকারের গোয়েন্দা সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা।

৬. সকল ধরনের নির্বাচনে অনলাইন মিডিয়া সংবাদ কর্মীদের পর্যবেক্ষনের সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়া।

৭. প্রেস ইনষ্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) কর্তৃক প্রতি জেলায় পরিচালিত সাংবাদিকদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মীদের অন্তর্ভুক্তির ব্যবস্থা করা।

৮. বিনা মুল্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্প থেকে নিউজ পোর্টল প্রকাশক ও সম্পাদকদেরকে কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ওয়েভ ক্যামেরা,মডেম ও অত্যাধুনিক ক্যামেরা ইত্যাদি পাওয়ার ব্যাবস্থা করা।

৯. বনপা’র সদস্য যে সকল নিউজ পোর্টাল প্রতিদিন নিয়মিত  সংবাদ প্রকাশিত হয়না এবং যে সকল সদস্যদের কোন ধরনের নিউজ পোর্টাল নাই সে সকল সদস্যদের বনপা থেকে অব্যাহতি দেওয়া।

১০. দেশের প্রতিটি উপজেলায় সরকারী খরচে প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে কমপক্ষে ২ টি স্বতন্ত্র কমিউনিটি নিউজ পোর্টাল চালুর ব্যবস্থা করা ইত্যাদি।

দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে বদ্ধ পরিকর। কর্মপরিকল্পনা কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা হতে পারে অনলাইন মিডিয়া জগতের দেশের শীর্ষ একমাত্র সংগঠন। আমাদের দরকার সমন্বিত উদ্যোগ এবং আগামীর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে দক্ষ অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মী হিসাবে আগামী দিনের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করা।

- See more at: https://www.dinajpurnews24.com/site/detail/10197#sthash.ZdKzmS9G.dpuf

নির্মল বড়ুয়া মিলন :: বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা’র কিছু কথা নিজের দায়বদ্ধতা থেকে লিখতে হচ্ছে। কাউকে ছোট করার জন্য ও নয়, আবার কাউকে বড় করার জন্যও নয়। বনপা ও বিজয় নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ও সম্পাদক শামসুল আলম স্বপন নাম দু’টি অবিচ্ছেদ্য। শামসুল আলম স্বপন একেবারে সহজ সরল, সংগঠন প্রিয় মানুষ। শামসুল আলম স্বপন ও অধ্যাপক আকতার চৌধুরী দু’জনের-ই বাংলাদেশের অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলোর প্রকাশক ও সম্পাদকদের তৃণমুল পর্যায়ের সংগঠন বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা গঠনের ভুমিকা অনস্বীকার্য।

২০১৫ সালে মাঝামাঝি এসে স্বপন ভাই বনপা’কে আরো গতিশীল করার জন্য বনপা’র সম্মেলন-২০১৫ ডাক দেন। শামসুল আলম স্বপনের ডাকে সাড়া দিয়ে সারা দেশের তৃণমুল পর্যায়ের হাজার খানিক নিউজ পোর্টালের প্রকাশক ও সম্পাদক সাধারন পরিষদের সদস্য পদ গ্রহণ করে। সম্মেলন পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয় দিনাজপুর নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ইঞ্জিনিয়ার রোকমুনুর জামান রনিকে। তিনি ২১ আগষ্ট ২০১৫ তারিখ সাধারন পরিষদ ডেকে বনপা’র সম্মেলন সম্পন্ন করেন। এতে পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হন শামসুল আলম স্বপন।

সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন বিষের বাঁশি ডটকম এর প্রকাশক সুভাষ সাহা। তখনো কিন্তু বনপা’র পুর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি। সম্মেলনের ৩ দিনের মাথায় সাধারন সম্পাদক কাউকে কিছু না জানিয়ে হঠাৎ করে বনপা’র সভা ডেকে বসলেন।এতে ক্ষুব্ধ হন বনপা’র কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ। এর থেকে শুরু হয় সুভাষ সাহা গং ও বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে মতবিরোধ।মাঝখানে বনপা’র সিনিয়র নেতৃবৃন্দ বারবার মতবিরোধ নিরসনের চেষ্টা করেন।

কিন্তু সুভাষ বাবু গুটিকয়েক ব্যাক্তির কান কথা শুনে বনপা’র বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা ও তার সদস্যদের নিউজ পোর্টাল গুলি হচ্ছে অলাভজনক, অধ্যাবধি নেই কোন নীতিমালা ও সরকারের কোন ধরনের সুযোগ সুবিধা। এই বিষয়টি মাথায় রেখে আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দের আরো কৌশলী হওয়া প্রয়োজন ছিল, কিন্তু তাঁরা তা করেন নাই। বর্তমান সময়ে সংবাদ মাধ্যমে একে অপরের বিরুদ্ধে বিষাদগারে লিপ্ত থাকায় সাধারন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের হতাশ করেছে। এ থেকে উত্তোরনের একমাত্র পথ দ্বীমত নয় ঐক্যমত।

বাংলাদেশে এমনিতেই অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলির দৈন্য দশা, তারপরে রয়েছে নিন্দুকদের কাজে অকাজে সমালোচনা। আমাদের মধ্যে বিভক্তি শত্রুদের মধ্যে রসদ যোগায়, আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দ বিষয়টি উপলদ্ধি করেন কিনা জানা নেই। আমি বনপা’র সদস্য হওয়ার পর চেষ্টা করেছি বনপা ডট নেট নিউজ পোর্টালটি বাংলাদেশের অন্যতম একটি জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল হিসেবে সাজাতে, বনপা’র সকল সদস্য নিউজ পোর্টাল গুলিকে ছবি সংবলিত একটি তালিকায় আনতে,যাতে করে পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে যে কেউ দেশের যেকোন মন্ত্রণালয় থেকে বা প্রশাসন থেকে ভিজিট করলে অতি সহজে বনপা’র সদস্য পোর্টালগুলি পেয়ে যান। কিন্তু অতিবুদ্ধিমান বনপা’র নেতাদের কারণে সে কাজে হাত দিয়েও বাস্তবায়ন না করে পিছিয়ে আসতে হয়েছে। এখন যদি প্রশ্ন করা হয় বনপা নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের কি স্বার্থ সংরক্ষণ করে? সদস্যদের কাছে আমাদের উত্তরটা কি হবে ?

দেশ ও বিদেশে অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সংগঠন হিসেবে একমাত্র বনপা’ই পরিচিত। সেখানে বনপা’র নিজস্ব ওয়েভ সাইটটি আপগ্রেড করা হয়না।ভাবতেও অবাক লাগে আমরা সংবাদিকতা পেশায় জড়িত। সবাই জানেন সাংবাদিকতা পেশা একটি মহৎ পেশা, কিন্তু আমাদের মধ্যে মহত্তের বিন্দু মাত্র রেষ ও নেই। যেখানে প্রতিনিয়ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকরা ডোমেইন ও ওয়েভ সাইট ডিজাইনার ব্যবসায়ীদের কাছে প্রতারিত হচ্ছে, সেখানে বনপা’র ভুমিকা কি থাকা উচিৎ  বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দরা কি একবারও ভেবে দেখেছেন?

আমরা শুধু বনপা’র সংগঠন এবং সদস্য বাড়ানো নিয়ে ব্যস্ত আছি কিন্তু তাদের পেশাগত দক্ষতা ও অনলাইন সাংবাদিকতার পেশাগত মান বৃদ্ধি করা এবং সর্বত্রে অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকদের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করা নিয়ে কাজ করিনা, চিন্তাও করি না।

আমরা শুধু ব্যস্ত আছি সদস্য তালিকা বাড়ানোর কাজে। প্রতিমাসে পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের টাকা ব্যয় করতে হয় ইন্টারনেট সংযোগ বিল, বিদ্যুৎ বিল, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ক্যামেরা, মডেম, গাড়ীর জালানী এছাড়া বছর শেষে ডোমেইন পুনঃরেজিষ্ট্রি, হোষ্টিং বাড়ানো, পোর্টাল সাংবাদিকদের সম্মানী ইত্যাদি। বনপা’র পক্ষ থেকে সদস্যদের জন্য বর্তমান সময়ে যাহা করণীয় এবং অত্যাবশ্যক সেগুলো কিছু অংশ বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে তুলে ধরছি , যেমন:

১. নিউজ পোর্টাল নিবন্ধন প্রক্রিয়া সহজ ও স্বচ্ছ ভাবে সমাধান করা।

২, বিটিসিএল সহ অন্যান্য মোবাইল কোম্পানীর সাথে চুক্তি করে নিউজ পোর্টালের জন্য দ্রুতগতি সম্পন্ন ইন্টারনেট সংযোগ অর্ধেকমুল্যে ব্যবস্থা করা।

৩. ডোমেইন ও হোষ্টিং বিক্রেতাদের নির্দিষ্ট তালিকা তৈরী করা যেন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সাথে যে কোন ধরনের প্রতারণা করতে না পারে।

৪. মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল নিউজ পোর্টাল গুলির একটি তালিকা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, তথ্য মন্ত্রণালয়, প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ও সরকারের আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর দপ্তরে হস্তান্তর করা।

৫. রাষ্ট্রদ্রোহী যে সমস্ত পোর্টালে যোগাযোগের অথবা প্রকাশক, সম্পাদকের নাম নেই, অশ্লীল ও পর্ণোগ্রাফী প্রকাশ করে এমন ধরনের নিউজ পোর্টাল গুলির তালিকা সরকারের গোয়েন্দা সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা।

৬. সকল ধরনের নির্বাচনে অনলাইন মিডিয়া সংবাদ কর্মীদের পর্যবেক্ষনের সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়া।

৭. প্রেস ইনষ্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) কর্তৃক প্রতি জেলায় পরিচালিত সাংবাদিকদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মীদের অন্তর্ভুক্তির ব্যবস্থা করা।

৮. বিনা মুল্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্প থেকে নিউজ পোর্টল প্রকাশক ও সম্পাদকদেরকে কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ওয়েভ ক্যামেরা,মডেম ও অত্যাধুনিক ক্যামেরা ইত্যাদি পাওয়ার ব্যাবস্থা করা।

৯. বনপা’র সদস্য যে সকল নিউজ পোর্টাল প্রতিদিন নিয়মিত  সংবাদ প্রকাশিত হয়না এবং যে সকল সদস্যদের কোন ধরনের নিউজ পোর্টাল নাই সে সকল সদস্যদের বনপা থেকে অব্যাহতি দেওয়া।

১০. দেশের প্রতিটি উপজেলায় সরকারী খরচে প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে কমপক্ষে ২ টি স্বতন্ত্র কমিউনিটি নিউজ পোর্টাল চালুর ব্যবস্থা করা ইত্যাদি।

দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে বদ্ধ পরিকর। কর্মপরিকল্পনা কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা হতে পারে অনলাইন মিডিয়া জগতের দেশের শীর্ষ একমাত্র সংগঠন। আমাদের দরকার সমন্বিত উদ্যোগ এবং আগামীর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে দক্ষ অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মী হিসাবে আগামী দিনের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করা।

- See more at: https://www.dinajpurnews24.com/site/detail/10197#sthash.ZdKzmS9G.dpuf

নির্মল বড়ুয়া মিলন :: বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা’র কিছু কথা নিজের দায়বদ্ধতা থেকে লিখতে হচ্ছে। কাউকে ছোট করার জন্য ও নয়, আবার কাউকে বড় করার জন্যও নয়। বনপা ও বিজয় নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ও সম্পাদক শামসুল আলম স্বপন নাম দু’টি অবিচ্ছেদ্য। শামসুল আলম স্বপন একেবারে সহজ সরল, সংগঠন প্রিয় মানুষ। শামসুল আলম স্বপন ও অধ্যাপক আকতার চৌধুরী দু’জনের-ই বাংলাদেশের অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলোর প্রকাশক ও সম্পাদকদের তৃণমুল পর্যায়ের সংগঠন বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা গঠনের ভুমিকা অনস্বীকার্য।

২০১৫ সালে মাঝামাঝি এসে স্বপন ভাই বনপা’কে আরো গতিশীল করার জন্য বনপা’র সম্মেলন-২০১৫ ডাক দেন। শামসুল আলম স্বপনের ডাকে সাড়া দিয়ে সারা দেশের তৃণমুল পর্যায়ের হাজার খানিক নিউজ পোর্টালের প্রকাশক ও সম্পাদক সাধারন পরিষদের সদস্য পদ গ্রহণ করে। সম্মেলন পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয় দিনাজপুর নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ইঞ্জিনিয়ার রোকমুনুর জামান রনিকে। তিনি ২১ আগষ্ট ২০১৫ তারিখ সাধারন পরিষদ ডেকে বনপা’র সম্মেলন সম্পন্ন করেন। এতে পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হন শামসুল আলম স্বপন।

সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন বিষের বাঁশি ডটকম এর প্রকাশক সুভাষ সাহা। তখনো কিন্তু বনপা’র পুর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি। সম্মেলনের ৩ দিনের মাথায় সাধারন সম্পাদক কাউকে কিছু না জানিয়ে হঠাৎ করে বনপা’র সভা ডেকে বসলেন।এতে ক্ষুব্ধ হন বনপা’র কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ। এর থেকে শুরু হয় সুভাষ সাহা গং ও বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে মতবিরোধ।মাঝখানে বনপা’র সিনিয়র নেতৃবৃন্দ বারবার মতবিরোধ নিরসনের চেষ্টা করেন।

কিন্তু সুভাষ বাবু গুটিকয়েক ব্যাক্তির কান কথা শুনে বনপা’র বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা ও তার সদস্যদের নিউজ পোর্টাল গুলি হচ্ছে অলাভজনক, অধ্যাবধি নেই কোন নীতিমালা ও সরকারের কোন ধরনের সুযোগ সুবিধা। এই বিষয়টি মাথায় রেখে আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দের আরো কৌশলী হওয়া প্রয়োজন ছিল, কিন্তু তাঁরা তা করেন নাই। বর্তমান সময়ে সংবাদ মাধ্যমে একে অপরের বিরুদ্ধে বিষাদগারে লিপ্ত থাকায় সাধারন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের হতাশ করেছে। এ থেকে উত্তোরনের একমাত্র পথ দ্বীমত নয় ঐক্যমত।

বাংলাদেশে এমনিতেই অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলির দৈন্য দশা, তারপরে রয়েছে নিন্দুকদের কাজে অকাজে সমালোচনা। আমাদের মধ্যে বিভক্তি শত্রুদের মধ্যে রসদ যোগায়, আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দ বিষয়টি উপলদ্ধি করেন কিনা জানা নেই। আমি বনপা’র সদস্য হওয়ার পর চেষ্টা করেছি বনপা ডট নেট নিউজ পোর্টালটি বাংলাদেশের অন্যতম একটি জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল হিসেবে সাজাতে, বনপা’র সকল সদস্য নিউজ পোর্টাল গুলিকে ছবি সংবলিত একটি তালিকায় আনতে,যাতে করে পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে যে কেউ দেশের যেকোন মন্ত্রণালয় থেকে বা প্রশাসন থেকে ভিজিট করলে অতি সহজে বনপা’র সদস্য পোর্টালগুলি পেয়ে যান। কিন্তু অতিবুদ্ধিমান বনপা’র নেতাদের কারণে সে কাজে হাত দিয়েও বাস্তবায়ন না করে পিছিয়ে আসতে হয়েছে। এখন যদি প্রশ্ন করা হয় বনপা নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের কি স্বার্থ সংরক্ষণ করে? সদস্যদের কাছে আমাদের উত্তরটা কি হবে ?

দেশ ও বিদেশে অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সংগঠন হিসেবে একমাত্র বনপা’ই পরিচিত। সেখানে বনপা’র নিজস্ব ওয়েভ সাইটটি আপগ্রেড করা হয়না।ভাবতেও অবাক লাগে আমরা সংবাদিকতা পেশায় জড়িত। সবাই জানেন সাংবাদিকতা পেশা একটি মহৎ পেশা, কিন্তু আমাদের মধ্যে মহত্তের বিন্দু মাত্র রেষ ও নেই। যেখানে প্রতিনিয়ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকরা ডোমেইন ও ওয়েভ সাইট ডিজাইনার ব্যবসায়ীদের কাছে প্রতারিত হচ্ছে, সেখানে বনপা’র ভুমিকা কি থাকা উচিৎ  বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দরা কি একবারও ভেবে দেখেছেন?

আমরা শুধু বনপা’র সংগঠন এবং সদস্য বাড়ানো নিয়ে ব্যস্ত আছি কিন্তু তাদের পেশাগত দক্ষতা ও অনলাইন সাংবাদিকতার পেশাগত মান বৃদ্ধি করা এবং সর্বত্রে অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকদের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করা নিয়ে কাজ করিনা, চিন্তাও করি না।

আমরা শুধু ব্যস্ত আছি সদস্য তালিকা বাড়ানোর কাজে। প্রতিমাসে পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের টাকা ব্যয় করতে হয় ইন্টারনেট সংযোগ বিল, বিদ্যুৎ বিল, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ক্যামেরা, মডেম, গাড়ীর জালানী এছাড়া বছর শেষে ডোমেইন পুনঃরেজিষ্ট্রি, হোষ্টিং বাড়ানো, পোর্টাল সাংবাদিকদের সম্মানী ইত্যাদি। বনপা’র পক্ষ থেকে সদস্যদের জন্য বর্তমান সময়ে যাহা করণীয় এবং অত্যাবশ্যক সেগুলো কিছু অংশ বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে তুলে ধরছি , যেমন:

১. নিউজ পোর্টাল নিবন্ধন প্রক্রিয়া সহজ ও স্বচ্ছ ভাবে সমাধান করা।

২, বিটিসিএল সহ অন্যান্য মোবাইল কোম্পানীর সাথে চুক্তি করে নিউজ পোর্টালের জন্য দ্রুতগতি সম্পন্ন ইন্টারনেট সংযোগ অর্ধেকমুল্যে ব্যবস্থা করা।

৩. ডোমেইন ও হোষ্টিং বিক্রেতাদের নির্দিষ্ট তালিকা তৈরী করা যেন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সাথে যে কোন ধরনের প্রতারণা করতে না পারে।

৪. মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল নিউজ পোর্টাল গুলির একটি তালিকা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, তথ্য মন্ত্রণালয়, প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ও সরকারের আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর দপ্তরে হস্তান্তর করা।

৫. রাষ্ট্রদ্রোহী যে সমস্ত পোর্টালে যোগাযোগের অথবা প্রকাশক, সম্পাদকের নাম নেই, অশ্লীল ও পর্ণোগ্রাফী প্রকাশ করে এমন ধরনের নিউজ পোর্টাল গুলির তালিকা সরকারের গোয়েন্দা সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা।

৬. সকল ধরনের নির্বাচনে অনলাইন মিডিয়া সংবাদ কর্মীদের পর্যবেক্ষনের সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়া।

৭. প্রেস ইনষ্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) কর্তৃক প্রতি জেলায় পরিচালিত সাংবাদিকদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মীদের অন্তর্ভুক্তির ব্যবস্থা করা।

৮. বিনা মুল্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্প থেকে নিউজ পোর্টল প্রকাশক ও সম্পাদকদেরকে কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ওয়েভ ক্যামেরা,মডেম ও অত্যাধুনিক ক্যামেরা ইত্যাদি পাওয়ার ব্যাবস্থা করা।

৯. বনপা’র সদস্য যে সকল নিউজ পোর্টাল প্রতিদিন নিয়মিত  সংবাদ প্রকাশিত হয়না এবং যে সকল সদস্যদের কোন ধরনের নিউজ পোর্টাল নাই সে সকল সদস্যদের বনপা থেকে অব্যাহতি দেওয়া।

১০. দেশের প্রতিটি উপজেলায় সরকারী খরচে প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে কমপক্ষে ২ টি স্বতন্ত্র কমিউনিটি নিউজ পোর্টাল চালুর ব্যবস্থা করা ইত্যাদি।

দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে বদ্ধ পরিকর। কর্মপরিকল্পনা কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা হতে পারে অনলাইন মিডিয়া জগতের দেশের শীর্ষ একমাত্র সংগঠন। আমাদের দরকার সমন্বিত উদ্যোগ এবং আগামীর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে দক্ষ অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মী হিসাবে আগামী দিনের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করা।

- See more at: https://www.dinajpurnews24.com/site/detail/10197#sthash.ZdKzmS9G.dpuf

নির্মল বড়ুয়া মিলন :: বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা’র কিছু কথা নিজের দায়বদ্ধতা থেকে লিখতে হচ্ছে। কাউকে ছোট করার জন্য ও নয়, আবার কাউকে বড় করার জন্যও নয়। বনপা ও বিজয় নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ও সম্পাদক শামসুল আলম স্বপন নাম দু’টি অবিচ্ছেদ্য। শামসুল আলম স্বপন একেবারে সহজ সরল, সংগঠন প্রিয় মানুষ। শামসুল আলম স্বপন ও অধ্যাপক আকতার চৌধুরী দু’জনের-ই বাংলাদেশের অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলোর প্রকাশক ও সম্পাদকদের তৃণমুল পর্যায়ের সংগঠন বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা গঠনের ভুমিকা অনস্বীকার্য।

২০১৫ সালে মাঝামাঝি এসে স্বপন ভাই বনপা’কে আরো গতিশীল করার জন্য বনপা’র সম্মেলন-২০১৫ ডাক দেন। শামসুল আলম স্বপনের ডাকে সাড়া দিয়ে সারা দেশের তৃণমুল পর্যায়ের হাজার খানিক নিউজ পোর্টালের প্রকাশক ও সম্পাদক সাধারন পরিষদের সদস্য পদ গ্রহণ করে। সম্মেলন পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয় দিনাজপুর নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ইঞ্জিনিয়ার রোকমুনুর জামান রনিকে। তিনি ২১ আগষ্ট ২০১৫ তারিখ সাধারন পরিষদ ডেকে বনপা’র সম্মেলন সম্পন্ন করেন। এতে পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হন শামসুল আলম স্বপন।

সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন বিষের বাঁশি ডটকম এর প্রকাশক সুভাষ সাহা। তখনো কিন্তু বনপা’র পুর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি। সম্মেলনের ৩ দিনের মাথায় সাধারন সম্পাদক কাউকে কিছু না জানিয়ে হঠাৎ করে বনপা’র সভা ডেকে বসলেন।এতে ক্ষুব্ধ হন বনপা’র কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ। এর থেকে শুরু হয় সুভাষ সাহা গং ও বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে মতবিরোধ।মাঝখানে বনপা’র সিনিয়র নেতৃবৃন্দ বারবার মতবিরোধ নিরসনের চেষ্টা করেন।

কিন্তু সুভাষ বাবু গুটিকয়েক ব্যাক্তির কান কথা শুনে বনপা’র বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা ও তার সদস্যদের নিউজ পোর্টাল গুলি হচ্ছে অলাভজনক, অধ্যাবধি নেই কোন নীতিমালা ও সরকারের কোন ধরনের সুযোগ সুবিধা। এই বিষয়টি মাথায় রেখে আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দের আরো কৌশলী হওয়া প্রয়োজন ছিল, কিন্তু তাঁরা তা করেন নাই। বর্তমান সময়ে সংবাদ মাধ্যমে একে অপরের বিরুদ্ধে বিষাদগারে লিপ্ত থাকায় সাধারন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের হতাশ করেছে। এ থেকে উত্তোরনের একমাত্র পথ দ্বীমত নয় ঐক্যমত।

বাংলাদেশে এমনিতেই অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলির দৈন্য দশা, তারপরে রয়েছে নিন্দুকদের কাজে অকাজে সমালোচনা। আমাদের মধ্যে বিভক্তি শত্রুদের মধ্যে রসদ যোগায়, আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দ বিষয়টি উপলদ্ধি করেন কিনা জানা নেই। আমি বনপা’র সদস্য হওয়ার পর চেষ্টা করেছি বনপা ডট নেট নিউজ পোর্টালটি বাংলাদেশের অন্যতম একটি জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল হিসেবে সাজাতে, বনপা’র সকল সদস্য নিউজ পোর্টাল গুলিকে ছবি সংবলিত একটি তালিকায় আনতে,যাতে করে পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে যে কেউ দেশের যেকোন মন্ত্রণালয় থেকে বা প্রশাসন থেকে ভিজিট করলে অতি সহজে বনপা’র সদস্য পোর্টালগুলি পেয়ে যান। কিন্তু অতিবুদ্ধিমান বনপা’র নেতাদের কারণে সে কাজে হাত দিয়েও বাস্তবায়ন না করে পিছিয়ে আসতে হয়েছে। এখন যদি প্রশ্ন করা হয় বনপা নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের কি স্বার্থ সংরক্ষণ করে? সদস্যদের কাছে আমাদের উত্তরটা কি হবে ?

দেশ ও বিদেশে অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সংগঠন হিসেবে একমাত্র বনপা’ই পরিচিত। সেখানে বনপা’র নিজস্ব ওয়েভ সাইটটি আপগ্রেড করা হয়না।ভাবতেও অবাক লাগে আমরা সংবাদিকতা পেশায় জড়িত। সবাই জানেন সাংবাদিকতা পেশা একটি মহৎ পেশা, কিন্তু আমাদের মধ্যে মহত্তের বিন্দু মাত্র রেষ ও নেই। যেখানে প্রতিনিয়ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকরা ডোমেইন ও ওয়েভ সাইট ডিজাইনার ব্যবসায়ীদের কাছে প্রতারিত হচ্ছে, সেখানে বনপা’র ভুমিকা কি থাকা উচিৎ  বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দরা কি একবারও ভেবে দেখেছেন?

আমরা শুধু বনপা’র সংগঠন এবং সদস্য বাড়ানো নিয়ে ব্যস্ত আছি কিন্তু তাদের পেশাগত দক্ষতা ও অনলাইন সাংবাদিকতার পেশাগত মান বৃদ্ধি করা এবং সর্বত্রে অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকদের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করা নিয়ে কাজ করিনা, চিন্তাও করি না।

আমরা শুধু ব্যস্ত আছি সদস্য তালিকা বাড়ানোর কাজে। প্রতিমাসে পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের টাকা ব্যয় করতে হয় ইন্টারনেট সংযোগ বিল, বিদ্যুৎ বিল, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ক্যামেরা, মডেম, গাড়ীর জালানী এছাড়া বছর শেষে ডোমেইন পুনঃরেজিষ্ট্রি, হোষ্টিং বাড়ানো, পোর্টাল সাংবাদিকদের সম্মানী ইত্যাদি। বনপা’র পক্ষ থেকে সদস্যদের জন্য বর্তমান সময়ে যাহা করণীয় এবং অত্যাবশ্যক সেগুলো কিছু অংশ বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে তুলে ধরছি , যেমন:

১. নিউজ পোর্টাল নিবন্ধন প্রক্রিয়া সহজ ও স্বচ্ছ ভাবে সমাধান করা।

২, বিটিসিএল সহ অন্যান্য মোবাইল কোম্পানীর সাথে চুক্তি করে নিউজ পোর্টালের জন্য দ্রুতগতি সম্পন্ন ইন্টারনেট সংযোগ অর্ধেকমুল্যে ব্যবস্থা করা।

৩. ডোমেইন ও হোষ্টিং বিক্রেতাদের নির্দিষ্ট তালিকা তৈরী করা যেন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সাথে যে কোন ধরনের প্রতারণা করতে না পারে।

৪. মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল নিউজ পোর্টাল গুলির একটি তালিকা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, তথ্য মন্ত্রণালয়, প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ও সরকারের আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর দপ্তরে হস্তান্তর করা।

৫. রাষ্ট্রদ্রোহী যে সমস্ত পোর্টালে যোগাযোগের অথবা প্রকাশক, সম্পাদকের নাম নেই, অশ্লীল ও পর্ণোগ্রাফী প্রকাশ করে এমন ধরনের নিউজ পোর্টাল গুলির তালিকা সরকারের গোয়েন্দা সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা।

৬. সকল ধরনের নির্বাচনে অনলাইন মিডিয়া সংবাদ কর্মীদের পর্যবেক্ষনের সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়া।

৭. প্রেস ইনষ্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) কর্তৃক প্রতি জেলায় পরিচালিত সাংবাদিকদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মীদের অন্তর্ভুক্তির ব্যবস্থা করা।

৮. বিনা মুল্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্প থেকে নিউজ পোর্টল প্রকাশক ও সম্পাদকদেরকে কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ওয়েভ ক্যামেরা,মডেম ও অত্যাধুনিক ক্যামেরা ইত্যাদি পাওয়ার ব্যাবস্থা করা।

৯. বনপা’র সদস্য যে সকল নিউজ পোর্টাল প্রতিদিন নিয়মিত  সংবাদ প্রকাশিত হয়না এবং যে সকল সদস্যদের কোন ধরনের নিউজ পোর্টাল নাই সে সকল সদস্যদের বনপা থেকে অব্যাহতি দেওয়া।

১০. দেশের প্রতিটি উপজেলায় সরকারী খরচে প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে কমপক্ষে ২ টি স্বতন্ত্র কমিউনিটি নিউজ পোর্টাল চালুর ব্যবস্থা করা ইত্যাদি।

দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে বদ্ধ পরিকর। কর্মপরিকল্পনা কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা হতে পারে অনলাইন মিডিয়া জগতের দেশের শীর্ষ একমাত্র সংগঠন। আমাদের দরকার সমন্বিত উদ্যোগ এবং আগামীর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে দক্ষ অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মী হিসাবে আগামী দিনের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করা।

- See more at: https://www.dinajpurnews24.com/site/detail/10197#sthash.ZdKzmS9G.dpuf

নির্মল বড়ুয়া মিলন :: বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা’র কিছু কথা নিজের দায়বদ্ধতা থেকে লিখতে হচ্ছে। কাউকে ছোট করার জন্য ও নয়, আবার কাউকে বড় করার জন্যও নয়। বনপা ও বিজয় নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ও সম্পাদক শামসুল আলম স্বপন নাম দু’টি অবিচ্ছেদ্য। শামসুল আলম স্বপন একেবারে সহজ সরল, সংগঠন প্রিয় মানুষ। শামসুল আলম স্বপন ও অধ্যাপক আকতার চৌধুরী দু’জনের-ই বাংলাদেশের অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলোর প্রকাশক ও সম্পাদকদের তৃণমুল পর্যায়ের সংগঠন বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা গঠনের ভুমিকা অনস্বীকার্য।

২০১৫ সালে মাঝামাঝি এসে স্বপন ভাই বনপা’কে আরো গতিশীল করার জন্য বনপা’র সম্মেলন-২০১৫ ডাক দেন। শামসুল আলম স্বপনের ডাকে সাড়া দিয়ে সারা দেশের তৃণমুল পর্যায়ের হাজার খানিক নিউজ পোর্টালের প্রকাশক ও সম্পাদক সাধারন পরিষদের সদস্য পদ গ্রহণ করে। সম্মেলন পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয় দিনাজপুর নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রকাশক ইঞ্জিনিয়ার রোকমুনুর জামান রনিকে। তিনি ২১ আগষ্ট ২০১৫ তারিখ সাধারন পরিষদ ডেকে বনপা’র সম্মেলন সম্পন্ন করেন। এতে পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হন শামসুল আলম স্বপন।

সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন বিষের বাঁশি ডটকম এর প্রকাশক সুভাষ সাহা। তখনো কিন্তু বনপা’র পুর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি। সম্মেলনের ৩ দিনের মাথায় সাধারন সম্পাদক কাউকে কিছু না জানিয়ে হঠাৎ করে বনপা’র সভা ডেকে বসলেন।এতে ক্ষুব্ধ হন বনপা’র কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ। এর থেকে শুরু হয় সুভাষ সাহা গং ও বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে মতবিরোধ।মাঝখানে বনপা’র সিনিয়র নেতৃবৃন্দ বারবার মতবিরোধ নিরসনের চেষ্টা করেন।

কিন্তু সুভাষ বাবু গুটিকয়েক ব্যাক্তির কান কথা শুনে বনপা’র বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা ও তার সদস্যদের নিউজ পোর্টাল গুলি হচ্ছে অলাভজনক, অধ্যাবধি নেই কোন নীতিমালা ও সরকারের কোন ধরনের সুযোগ সুবিধা। এই বিষয়টি মাথায় রেখে আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দের আরো কৌশলী হওয়া প্রয়োজন ছিল, কিন্তু তাঁরা তা করেন নাই। বর্তমান সময়ে সংবাদ মাধ্যমে একে অপরের বিরুদ্ধে বিষাদগারে লিপ্ত থাকায় সাধারন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের হতাশ করেছে। এ থেকে উত্তোরনের একমাত্র পথ দ্বীমত নয় ঐক্যমত।

বাংলাদেশে এমনিতেই অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলির দৈন্য দশা, তারপরে রয়েছে নিন্দুকদের কাজে অকাজে সমালোচনা। আমাদের মধ্যে বিভক্তি শত্রুদের মধ্যে রসদ যোগায়, আমাদের বনপা’র নেতৃবৃন্দ বিষয়টি উপলদ্ধি করেন কিনা জানা নেই। আমি বনপা’র সদস্য হওয়ার পর চেষ্টা করেছি বনপা ডট নেট নিউজ পোর্টালটি বাংলাদেশের অন্যতম একটি জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল হিসেবে সাজাতে, বনপা’র সকল সদস্য নিউজ পোর্টাল গুলিকে ছবি সংবলিত একটি তালিকায় আনতে,যাতে করে পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে যে কেউ দেশের যেকোন মন্ত্রণালয় থেকে বা প্রশাসন থেকে ভিজিট করলে অতি সহজে বনপা’র সদস্য পোর্টালগুলি পেয়ে যান। কিন্তু অতিবুদ্ধিমান বনপা’র নেতাদের কারণে সে কাজে হাত দিয়েও বাস্তবায়ন না করে পিছিয়ে আসতে হয়েছে। এখন যদি প্রশ্ন করা হয় বনপা নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের কি স্বার্থ সংরক্ষণ করে? সদস্যদের কাছে আমাদের উত্তরটা কি হবে ?

দেশ ও বিদেশে অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সংগঠন হিসেবে একমাত্র বনপা’ই পরিচিত। সেখানে বনপা’র নিজস্ব ওয়েভ সাইটটি আপগ্রেড করা হয়না।ভাবতেও অবাক লাগে আমরা সংবাদিকতা পেশায় জড়িত। সবাই জানেন সাংবাদিকতা পেশা একটি মহৎ পেশা, কিন্তু আমাদের মধ্যে মহত্তের বিন্দু মাত্র রেষ ও নেই। যেখানে প্রতিনিয়ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকরা ডোমেইন ও ওয়েভ সাইট ডিজাইনার ব্যবসায়ীদের কাছে প্রতারিত হচ্ছে, সেখানে বনপা’র ভুমিকা কি থাকা উচিৎ  বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দরা কি একবারও ভেবে দেখেছেন?

আমরা শুধু বনপা’র সংগঠন এবং সদস্য বাড়ানো নিয়ে ব্যস্ত আছি কিন্তু তাদের পেশাগত দক্ষতা ও অনলাইন সাংবাদিকতার পেশাগত মান বৃদ্ধি করা এবং সর্বত্রে অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকদের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করা নিয়ে কাজ করিনা, চিন্তাও করি না।

আমরা শুধু ব্যস্ত আছি সদস্য তালিকা বাড়ানোর কাজে। প্রতিমাসে পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের টাকা ব্যয় করতে হয় ইন্টারনেট সংযোগ বিল, বিদ্যুৎ বিল, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ক্যামেরা, মডেম, গাড়ীর জালানী এছাড়া বছর শেষে ডোমেইন পুনঃরেজিষ্ট্রি, হোষ্টিং বাড়ানো, পোর্টাল সাংবাদিকদের সম্মানী ইত্যাদি। বনপা’র পক্ষ থেকে সদস্যদের জন্য বর্তমান সময়ে যাহা করণীয় এবং অত্যাবশ্যক সেগুলো কিছু অংশ বনপা’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে তুলে ধরছি , যেমন:

১. নিউজ পোর্টাল নিবন্ধন প্রক্রিয়া সহজ ও স্বচ্ছ ভাবে সমাধান করা।

২, বিটিসিএল সহ অন্যান্য মোবাইল কোম্পানীর সাথে চুক্তি করে নিউজ পোর্টালের জন্য দ্রুতগতি সম্পন্ন ইন্টারনেট সংযোগ অর্ধেকমুল্যে ব্যবস্থা করা।

৩. ডোমেইন ও হোষ্টিং বিক্রেতাদের নির্দিষ্ট তালিকা তৈরী করা যেন নিউজ পোর্টাল প্রকাশক ও সম্পাদকদের সাথে যে কোন ধরনের প্রতারণা করতে না পারে।

৪. মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল নিউজ পোর্টাল গুলির একটি তালিকা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, তথ্য মন্ত্রণালয়, প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ও সরকারের আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর দপ্তরে হস্তান্তর করা।

৫. রাষ্ট্রদ্রোহী যে সমস্ত পোর্টালে যোগাযোগের অথবা প্রকাশক, সম্পাদকের নাম নেই, অশ্লীল ও পর্ণোগ্রাফী প্রকাশ করে এমন ধরনের নিউজ পোর্টাল গুলির তালিকা সরকারের গোয়েন্দা সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা।

৬. সকল ধরনের নির্বাচনে অনলাইন মিডিয়া সংবাদ কর্মীদের পর্যবেক্ষনের সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়া।

৭. প্রেস ইনষ্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) কর্তৃক প্রতি জেলায় পরিচালিত সাংবাদিকদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মীদের অন্তর্ভুক্তির ব্যবস্থা করা।

৮. বিনা মুল্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্প থেকে নিউজ পোর্টল প্রকাশক ও সম্পাদকদেরকে কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ওয়েভ ক্যামেরা,মডেম ও অত্যাধুনিক ক্যামেরা ইত্যাদি পাওয়ার ব্যাবস্থা করা।

৯. বনপা’র সদস্য যে সকল নিউজ পোর্টাল প্রতিদিন নিয়মিত  সংবাদ প্রকাশিত হয়না এবং যে সকল সদস্যদের কোন ধরনের নিউজ পোর্টাল নাই সে সকল সদস্যদের বনপা থেকে অব্যাহতি দেওয়া।

১০. দেশের প্রতিটি উপজেলায় সরকারী খরচে প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে কমপক্ষে ২ টি স্বতন্ত্র কমিউনিটি নিউজ পোর্টাল চালুর ব্যবস্থা করা ইত্যাদি।

দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে বদ্ধ পরিকর। কর্মপরিকল্পনা কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন বনপা হতে পারে অনলাইন মিডিয়া জগতের দেশের শীর্ষ একমাত্র সংগঠন। আমাদের দরকার সমন্বিত উদ্যোগ এবং আগামীর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে দক্ষ অনলাইন মিডিয়ার সংবাদ কর্মী হিসাবে আগামী দিনের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করা।

- See more at: https://www.dinajpurnews24.com/site/detail/10197#sthash.ZdKzmS9G.dpuf



এ পাতার আরও খবর

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মশাল প্রতীকের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মশাল প্রতীকের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৭৫’তম জন্মদিন উপলক্ষে চিলাহাটি সরকারী কলেজে স্মরকবৃক্ষ রোপন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৭৫’তম জন্মদিন উপলক্ষে চিলাহাটি সরকারী কলেজে স্মরকবৃক্ষ রোপন
অনলাইন সংবাদপোর্টাল নিবন্ধন চলমান প্রক্রিয়া, হাইকোর্টের নির্দেশনা শৃঙ্খলায় সহায়ক -তথ্যমন্ত্রী অনলাইন সংবাদপোর্টাল নিবন্ধন চলমান প্রক্রিয়া, হাইকোর্টের নির্দেশনা শৃঙ্খলায় সহায়ক -তথ্যমন্ত্রী
বনপা হাইকোর্টে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সদস্য অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলো সচল রাখবে বনপা হাইকোর্টে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সদস্য অনলাইন নিউজ পোর্টাল গুলো সচল রাখবে
আজ রাত ৯টায় বনপার জরুরি সভা আজ রাত ৯টায় বনপার জরুরি সভা
কুষ্টিয়া সিটি প্রেসক্লাব এখন “ কুষ্টিয়া জেলা প্রেসক্লাব ” স্বপন সভাপতি, রবি সাধারন সম্পাদক কুষ্টিয়া সিটি প্রেসক্লাব এখন “ কুষ্টিয়া জেলা প্রেসক্লাব ” স্বপন সভাপতি, রবি সাধারন সম্পাদক
১৪/০৮/২১ এ অনুষ্ঠিত বিএনএফ এর জাতীয় স্থায়ী কমিটির জরুরী সভার প্রস্তাবঃ ১৪/০৮/২১ এ অনুষ্ঠিত বিএনএফ এর জাতীয় স্থায়ী কমিটির জরুরী সভার প্রস্তাবঃ
বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট-বিএনএফ’র জরুরি সভা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট-বিএনএফ’র জরুরি সভা অনুষ্ঠিত
কুষ্টিয় জেলা মহিলা ফ্রন্টের কমিটি গঠন  : কুমকুম সভাপতি :  ফারজানা  সাধারণ সম্পাদক কুষ্টিয় জেলা মহিলা ফ্রন্টের কমিটি গঠন : কুমকুম সভাপতি : ফারজানা সাধারণ সম্পাদক

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
কুষ্টিয়ায় পরিবেশ বান্ধব জিকজাক ইট ভাটার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ওরা কারা ?
কুষ্টিয়ার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নবাসী তাদের প্রিয় নেত্রী সম্পা মাহমুদকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানিয়েছে
ঢাকাসহ সারাদেশে রেড অ্যালার্ট জারি
অবশেষে ‘‘সৈয়দ মাছ-উদ-রুমী সেতুুর’’ (গড়াই সেতু) টোলে পে-অর্ডারর জাতিয়াতির টাকা ফেরৎ দিল ব্যাংক
কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মশাল প্রতীকের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি
দৌলতপুরে কৃষি, ব্যাংক কর্মকর্তার ১৩ বছরের কারাদণ্ড
‘একটি গোষ্ঠী ঘটনার জন্ম দিয়ে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত করতে চায়’
আবরারের মাও যেন বলতে পারে, ‘ন্যায়বিচার পেয়েছি
সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদ শাহবাগে ‘গণঅনশন ও অবস্থান’ কর্মসূচিতে সংখ্যালঘুদের ৮ দফা দাবি
আজ বিআরবি কেবল ইন্ড্রাষ্টিজ লিমিটেড এর ৪৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী
কুষ্টিয়া জেলা প্রেসক্লাবের অভিনন্দন
মণ্ডপে হামলা : উস্কানিদাতা ইসলামিক বক্তা গ্রেপ্তার
প্রেমিককে স্বামী বানিয়ে প্রবাসীর সম্পদ লিখে নেন সাকুরা
আবারও বাড়ছে ভোজ্যতেলের দাম
তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে সাঈদ খোকনের চ্যালেঞ্জ ইসলাম ত্যাগ করেন, দুই দিনও মন্ত্রী থাকতে পারবেন না
কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে আপত্তিকর অবস্থা থেকে পালাতে গিয়ে ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে যুবকের মৃত্যু
কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসির নবনির্বাচিত কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ ও শপথ অনুষ্ঠিত
চিলাহাটি গার্লস্ স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষের প্রদায়ন ও নবাগত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠিত
স্বামী বিদেশে নেওয়ার আগেই রাতের আধারে প্রেমিকের সঙ্গে পালালেন স্ত্রী