শিরোনাম:
●   কাফন মিছিলের পর শাবিতে এবার গণঅনশনের ডাক ●   ●   কুষ্টিয়ায় পরিবেশ বান্ধব জিকজাক ইট ভাটার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ওরা কারা ? ●   কুষ্টিয়ার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নবাসী তাদের প্রিয় নেত্রী সম্পা মাহমুদকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানিয়েছে ●   ঢাকাসহ সারাদেশে রেড অ্যালার্ট জারি ●   অবশেষে ‘‘সৈয়দ মাছ-উদ-রুমী সেতুুর’’ (গড়াই সেতু) টোলে পে-অর্ডারর জাতিয়াতির টাকা ফেরৎ দিল ব্যাংক ●   কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মশাল প্রতীকের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি ●   দৌলতপুরে কৃষি, ব্যাংক কর্মকর্তার ১৩ বছরের কারাদণ্ড ●   ‘একটি গোষ্ঠী ঘটনার জন্ম দিয়ে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত করতে চায়’ ●   আবরারের মাও যেন বলতে পারে, ‘ন্যায়বিচার পেয়েছি
ঢাকা, সোমবার, ৪ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯

Bijoynews24.com
মঙ্গলবার, ৯ জুন ২০২০
প্রথম পাতা » জাতীয় সংবাদ | বক্স্ নিউজ | ময়মনসিংহ | রাজনীতি | শিরোনাম » ডাক্তার স্বামীকে দাহ করলেন জজ স্ত্রী : পাশে পেলেন না হিন্দু সম্প্রদায়ের কাউকে !
প্রথম পাতা » জাতীয় সংবাদ | বক্স্ নিউজ | ময়মনসিংহ | রাজনীতি | শিরোনাম » ডাক্তার স্বামীকে দাহ করলেন জজ স্ত্রী : পাশে পেলেন না হিন্দু সম্প্রদায়ের কাউকে !
মঙ্গলবার, ৯ জুন ২০২০
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

ডাক্তার স্বামীকে দাহ করলেন জজ স্ত্রী : পাশে পেলেন না হিন্দু সম্প্রদায়ের কাউকে !

------Bijoynews :  ময়মনসিংহের সিনিয়র সহকারী বিচারক উমা দাস ঘর বেধেছিলেন ডঃ দেবাশীষ দাসের সাথে। নিজে বিচারক হয়েই ইচ্ছা করে বিয়ে করেছিলেন একজন ডাক্তারকে। দুজনের প্রচন্ড ইচ্ছা ছিলো মানবসেবার কাজে নিয়োজি থাকবে আজীবন। একদিকে বিচার বঞ্চিত জনগণকে ন্যায়বিচার, অন্যদিকে অসহায়দের অসুখ-বিসুখের ডাক্তারি সেবা। ভালোই চলছিলো উমা দেবাশীষের সংসার, কাজকর্মের প্রশাসনিক ব্যাস্ততার সাথে সংসারের ব্যাস্ততা মিলেমিশে একাকার হয়ে চলছিলো তাদের সংসার , এরমধ্যে বছর আড়াই আগে কোল জুড়ে এসেছিলো এক ফুটফুটে সন্তান। স্বপ্ন দেখেছিলো আগামীদিনের মানবসেবার জন্য উপযুক্ত ভাবে গড়ে তুলবে সন্তানকে। কিন্তু হঠাৎ করেই উমা দাসের সংসারে হানা দিলো সর্বনাশা করোনা ভাইরাস। উমাদেবী ঘূনাক্ষরেও চিন্তা করেনি এই ভাইরাসই তার ঘরে ভয়ংকর এক সর্বনাশা লিকলিকে বিষধর সাপ হয়ে ঢুকেছে। এই বিষধর সাপ তার কালোকুট বিষে জর্জরিত করবে তার সাধের সংসার! হলোও তাই!! মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই চিকিৎসায় থাকা অবস্থায় অবস্থায় স্বামী দেবাশীষ দাস হার মানলেন করোনার কাছে। সর্বনাশের এই খবরটা পাবার পরেই উমাদেবী বুঝলো আজ সে একা, বড়ই একা,বিশেষ করে এই মুহুর্তে। ডানে বামে সামনে পিছনে কেউ নেই আজ তার। করোনা ছোয়ার আতন্কে আত্মীয়স্বজন বন্ধুবান্ধব অফিস সহকারী সবাই আজ দূরে, বহুদূরে। চেনা শহরটাকেই আজ খুব অচেনা মনে হচ্ছে উমাদেবীর। একদিকে বাড়িতে আড়াই বছরের অবোধ অবুঝ সন্তান অন্যদিকে হাসপাতালের মর্গে স্বামীর মৃতদেহ। কি করবে এখন সে? হঠাৎ করেই মন বাধলেন উমাদেবী, স্থীর করলেন নিজেকে, ধীর শান্ত হলেন কিছুক্ষণের জন্য, পায়ের নীচে মাটি না থাকলেও পাথরের মতো শক্ত হয়ে দাড়ালেন উমাদেবী। একা এবং একাই আয়োজন করলেন স্বামীর শেষ যাত্রার, বাড়ি থেকে নিজেই শিশু পুত্র সন্তানের হাত ছুইয়ে পাটকাঠী সাথে নিয়ে আসলেন শহরের শশ্বান ঘাটে, হিন্দু শাস্ত্রমতে পুত্র সন্তানেরই যে অধিকার পিতার মুখাগ্নিতে।একাই নিরবে নিথরে নির্জন শশ্বানভুমিতে অপেক্ষা করলেন উমাদেবী, কিছুক্ষনের মধ্যেই মৃতদেহের বহর আসলো শশ্বানে, যে কয়জন মৃতদেহ নিয়ে এসেছিলো তাদের সাহায্যেই স্বামীর সৎকারের কাজ শুরু করলেন। জানতে চাইলেন না শশ্বানবন্দীর শেষযাত্রার বন্ধুরা কোন ধর্মের! কোন জাতের? জানতে ইচ্ছাও হলো না তার। উমাদেবী ভালোভাবেই বুঝেছিলেন নিজেদের বিপদকে উপেক্ষা করে যারা মানুষের বিপদে এগিয়ে আসে, তারাই প্রকৃত মানুষ, সব ধর্মের উপরেই তাদের অবস্থান। পুত্রসন্তানের হাতের ছোয়া কাঠিতে আগুন লাগিয়ে মুখাগ্নি করলেন স্বামীর। ঘন্টা তিনেক স্থির হয়ে দাড়িয়ে রইলেন উমাদেবী দাউদাউ করে জ্বলা জলন্ত শশ্বানের দিকে তাকিয়ে। সদ্যমৃত প্রিয় স্বামীর দেহ আগুনে পুড়ে যাচ্ছে, সাথে সাথে পুড়ে ছারখার হয়ে যাচ্ছে উমাদেবীর স্বপ্ন সাধ ভবিষ্যৎ! একাই এসেছিলেন উমাদেবী শশ্বানভুমিতে, চিতার আগুনে স্বামীর দেহ বিলীন করে দিয়ে একাই নিজে নিজের কপালের সিদুর মুছলেন, নিজেই ভেংগে ফেললেন নিজের হাতের মংগল শাখা দুগাছি, বিধবা বেশে একাই রওনা দিলেন বাড়ির পথে। সে জানে বাড়িতে কেই নেই আজ, যে তার মাথায় হাত বুলিয়ে দিয়ে একটু সহানুভূতির আশ্বাস দেবে, বুকে টেনে নিয়ে ঝাপটে ধরে একটু স্বান্তনার প্রলেপ দিবে, শুধু পথ চেয়ে বসে আছে তার আড়াই বছরের সন্তান তার জন্য। উমাদেবীর বড় ইচ্ছা আজ মা সন্তানে জড়াজড়ি করে বসে থাকবে বেশ কিছুক্ষণ, কিছুটা হলেও হয়তো খুজে পাবে স্বামীর স্পর্শ, অবুঝ সন্তান পাবে বাবার পরশ। যাই হোক! দ্রুতই অবসান ঘটুক উমাদেবীর অন্ধকার কালো রাত্রের। মানসিক ভাবে সুস্থ হয়ে উঠুক উমাদেবী, কঠিন কঠোর দুনিয়ায় সাথে নিজেকে আত্মস্ত করে, খাপ খাইয়ে উঠুক ধীরে ধীরে। বুকের ধন সন্তানকে মানুষ করুক নিজের মতো করে, সমাজ সংসারের কাছে আজ সে ন্যায্য পাওনা বিচার না পেলেও বিচারক উমাদেবী বিচারকের চেয়ারে বসে ন্যায্য বিচার বুঝিয়ে দিক বিচার বঞ্চিত বিচারপ্রার্থী মানুষদের! এই অসহায় পৃথীবির জন্য একজন উপযুক্ত মানুষ হয়ে তৈরি হোক উমাদেবীর বুকের মানিক। মা সন্তান ভালো থাকুক এই আর্শীবাদ রাখি আজ সবাই…



এ পাতার আরও খবর

কুষ্টিয়ায় পরিবেশ বান্ধব জিকজাক ইট ভাটার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ওরা কারা ? কুষ্টিয়ায় পরিবেশ বান্ধব জিকজাক ইট ভাটার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ওরা কারা ?
কুষ্টিয়ার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নবাসী তাদের প্রিয় নেত্রী সম্পা মাহমুদকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানিয়েছে কুষ্টিয়ার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নবাসী তাদের প্রিয় নেত্রী সম্পা মাহমুদকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানিয়েছে
ঢাকাসহ সারাদেশে রেড অ্যালার্ট জারি ঢাকাসহ সারাদেশে রেড অ্যালার্ট জারি
অবশেষে ‘‘সৈয়দ মাছ-উদ-রুমী সেতুুর’’ (গড়াই সেতু) টোলে পে-অর্ডারর জাতিয়াতির টাকা ফেরৎ দিল ব্যাংক অবশেষে ‘‘সৈয়দ মাছ-উদ-রুমী সেতুুর’’ (গড়াই সেতু) টোলে পে-অর্ডারর জাতিয়াতির টাকা ফেরৎ দিল ব্যাংক
কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মশাল প্রতীকের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মশাল প্রতীকের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি
দৌলতপুরে কৃষি, ব্যাংক কর্মকর্তার ১৩ বছরের কারাদণ্ড দৌলতপুরে কৃষি, ব্যাংক কর্মকর্তার ১৩ বছরের কারাদণ্ড
‘একটি গোষ্ঠী ঘটনার জন্ম দিয়ে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত করতে চায়’ ‘একটি গোষ্ঠী ঘটনার জন্ম দিয়ে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত করতে চায়’
আবরারের মাও যেন বলতে পারে, ‘ন্যায়বিচার পেয়েছি আবরারের মাও যেন বলতে পারে, ‘ন্যায়বিচার পেয়েছি
সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদ শাহবাগে ‘গণঅনশন ও অবস্থান’ কর্মসূচিতে সংখ্যালঘুদের ৮ দফা দাবি সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদ শাহবাগে ‘গণঅনশন ও অবস্থান’ কর্মসূচিতে সংখ্যালঘুদের ৮ দফা দাবি

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
কুষ্টিয়ায় পরিবেশ বান্ধব জিকজাক ইট ভাটার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ওরা কারা ?
কুষ্টিয়ার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নবাসী তাদের প্রিয় নেত্রী সম্পা মাহমুদকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানিয়েছে
ঢাকাসহ সারাদেশে রেড অ্যালার্ট জারি
অবশেষে ‘‘সৈয়দ মাছ-উদ-রুমী সেতুুর’’ (গড়াই সেতু) টোলে পে-অর্ডারর জাতিয়াতির টাকা ফেরৎ দিল ব্যাংক
কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মশাল প্রতীকের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি
দৌলতপুরে কৃষি, ব্যাংক কর্মকর্তার ১৩ বছরের কারাদণ্ড
‘একটি গোষ্ঠী ঘটনার জন্ম দিয়ে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত করতে চায়’
আবরারের মাও যেন বলতে পারে, ‘ন্যায়বিচার পেয়েছি
সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদ শাহবাগে ‘গণঅনশন ও অবস্থান’ কর্মসূচিতে সংখ্যালঘুদের ৮ দফা দাবি
আজ বিআরবি কেবল ইন্ড্রাষ্টিজ লিমিটেড এর ৪৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী
কুষ্টিয়া জেলা প্রেসক্লাবের অভিনন্দন
মণ্ডপে হামলা : উস্কানিদাতা ইসলামিক বক্তা গ্রেপ্তার
প্রেমিককে স্বামী বানিয়ে প্রবাসীর সম্পদ লিখে নেন সাকুরা
আবারও বাড়ছে ভোজ্যতেলের দাম
তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে সাঈদ খোকনের চ্যালেঞ্জ ইসলাম ত্যাগ করেন, দুই দিনও মন্ত্রী থাকতে পারবেন না
কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে আপত্তিকর অবস্থা থেকে পালাতে গিয়ে ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে যুবকের মৃত্যু
কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসির নবনির্বাচিত কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ ও শপথ অনুষ্ঠিত
চিলাহাটি গার্লস্ স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষের প্রদায়ন ও নবাগত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠিত
স্বামী বিদেশে নেওয়ার আগেই রাতের আধারে প্রেমিকের সঙ্গে পালালেন স্ত্রী