শিরোনাম:
●   এমপি বদির বেয়াইর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার ‘বন্দুকযুদ্ধ’ অব্যাহত নিহত আরো ১১ ●   হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশের স্বার্থে সমস্যার কথা এখানে উত্থাপন করতে চাই না সাংস্কৃতিক কূটনীতি ●   এবার কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় গোলাগুলি; দুই শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী নিহত ●   নেত্রকোনায় নিহত ২জন টেকনাফের, নিশ্চিত করেছে পরিবার ●   পশ্চিমবঙ্গের বঙ্গবন্ধুর নামে ভবন নির্মাণ করা হবে!:মমতা ●   বনপা’র উদ্যোগে “জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মহাকাশে বাংলাদেশ” শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল আজ ●   ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘গোলাগুলি’তে শামীম নামের এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত ! ●   আজ মাদক প্রতিরোধ কমিটির মানববন্ধন ●   ভেড়ামারায় হাজী আফছার উদ্দীন দারুল ইসলাম হাফিজিয়া মাদ্রাসায় দোয়া ও ইফতার মাহফিল ●   আজও ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৮
ঢাকা, শনিবার, ২৬ মে ২০১৮, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
Bijoynews24.com
প্রথম পাতা » Slider » রাসূল (সা.) যেভাবে রোজা রাখতেন |
সোমবার ● ১৪ মে ২০১৮
Email this News Print Friendly Version

রাসূল (সা.) যেভাবে রোজা রাখতেন |


---রাসুল (সা.) রমজানের জন্য দু’মাস আগ থেকেই প্রস্তুতি নিতেন। রজবের চাঁদ দেখে তিনি বার বার রমজান পর্যন্ত পৌঁছার দোয়া করতেন।

হজরত আনাস ইবনে মালেক (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রজব মাস শুরু হলে রাসুল (সা.) এই দোয়া পড়তেন- ‘আল্লাহুম্মা বারিকলানা ফি রাজাবিও ওয়া শা’বান। ওয়া বাল্লিগনা রমজান।’

অর্থ- ‘হে আল্লাহ আমাদের জন্য রজব ও শাবান মাসকে বরকতময় করে দিন। আর আমাদেরকে রমজান মাস পর্যন্ত পৌঁছে দিন।’ (নাসায়ী)।

এভাবেই রজবের প্রতিটি দিন রমজানের প্রার্থনায় সিক্ত হত রাসুল ও সাহাবীদের নূরানী চোখগুলো। শাবান এলেই প্রতীক্ষার নদীতে জোয়ার আসত। হৃদয়ের প্রতীক্ষা যেন শেষ হয় না।

তাই রমজানের প্রস্তুতির জন্য শাবন থেকেই নফল রোজা শুরু করতেন নবীজী (সা.)।

হজরত আয়শা (রা.) বলেন, ‘আমি রাসুল (সা.)-কে শাবান মাস ছাড়া আর কোন মাসেই এত বেশি নফল রোজা রাখতে দেখিনি। (বুখারি।)

তিনি সাহবিদেরও রোজার প্রস্তুতির জন্য উৎসাহ দিতেন।

হজরত ইমরান ইবনে হুসাইন (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) কোন একজনকে বলছিলেন, হে অমুকের পিতা! তুমি কি শাবান মাসের শেষ দিকে রোজা রাখনি? তিনি বললেন, না। রাসুল (সা.) বললেন, তাহলে তুমি রমজানের পরে দুটি রোজা পূর্ণ কর। (বুখারি)।

রমজানের ঠিক আগে আগেই রাসুল (সা.) রমজানের ফজিলত এবং বরকত সম্পর্কে সাহাবিদের জানিয়ে দিতেন। এ সম্পর্কে অনেকগুলো হাদিসের মধ্যে একটি হাদিস উল্লেখ করছি।

রাসুল (সা.) বলেছে, ‘রমজান বরকতময় মাস। এ মাসে শয়তানকে শৃংখলাবদ্ধ করা হয়। আকাশের দরজাসমূহ খুলে দেয়া হয়। জাহান্নামের দরজাগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়। এ মাসে এমন একটি মহিমান্বিত রাত রয়েছে যা হাজার মাসের চেয়েও শ্রেষ্ঠ।’ (মুসলিম।)

বিভিন্ন হাদিস থেকে জানা যায় রাসুল (সা.) চাঁদ দেখে রোজা শুরু করতেন। হাদিসের বর্ণনা থেকে পাওয়া কেউ এসে তাকে সংবাদ দিত তিনি তা ঘোষণা করার অনুমতি দিতেন।

রাসূল (সা.) ইরশাদ করেছেন, ‘তোমরা চাঁদ দেখে রোজা রাখ এবং চাঁদ দেখেই রোজা ছাড়। বুখারি।

জাকজমকহীন অনাড়ম্ব রোজা পালন করতেন রাসুল (সা.)। নবীজী (সা.) এর সাহারি ও ইফতার অতি সাধারন।

হজরত আনাস (রা.) বলেন, ‘রাসুল (সা.) কয়েকটি ভেজা খেজুর দিয়ে ইফতার করতেন। ভেজা খেজুর না থাকলে শুকনো খেজুর দিয়ে ইফতার করতেন। ভেজা কিংবা শুকনো খেজুর কোনটাই না পেলে কয়েক ঢোক পানিই হতো তাঁর দিয়ে ইফতার।’ (তিরমিজি)।

রাসুল (সা.) সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গেই ইফতার করতে পছন্দ করতেন।

ইফতারে দেরি করা তিনি পছন্দ করতেন না। তেমনিভাবে তাঁর সেহরিও ছিল খুব সাধারণ। তিনি দেরি করে একেবারে শেষ সময়ে সেহরি খেতেন। সেহরিতে তিনি দুধ ও খেজুর পছন্দ করতেন। সেহরিতে সময় নিয়ে কঠোরতা করা তিনি পছন্দ করতেন না।

অন্যান্য সময়ের চেয়ে রমজানে রাসুল (সা.) এর ইবাদতের পরিমাণ বেড়ে যেত।

বুখারির বর্ণনা অনুযায়ী তিনি (সা.) রমজানে প্রবাহিত বাতাসের মত দান করতেন।

রমজানে রাসূল (সা.) জিবরাইল (আ.) কে কোরআন শুনাতেন। আবার জীবরাইল (আ.) রাসূল (সা.)কে কোরআন শুনাতেন।

রমজানের রাতে তিনি (সা.) খুব কম সময় বিশ্রাম নিয়ে বাকি সময় নফল নামাজে কাটিয়ে দিতেন।

নির্ভযোগ্য হাদিস থেকে জানাযায়, রাসুল (সা.) ৩দিন সাহাবীদের নিয়ে তারাবি পড়েছেন। চতুর্থ দিন থেকে তিন ঘরে আর সাহাবিরা বাইরে নিজেদের মত নামাজ পড়ত।

খলিফা ওমর (রা.) এর সময় জামাতে তারাবি পড়ার প্রচলন হয়।

শেষ দশ দিন  ইতিকাফ করা রাসুল (সা.) এর নিয়মিত সুন্নাত ছিল। ইতিকাফে কদরের রাত তালাশ করাই মূল উদ্দেশ্য।

অনুলিখন : আল ফাতাহ মামুন


বাংলা ট্রিবিউনের সেরা প্রতিবেদকের পুরুস্কার পেলেন জিল্লুর রহমান পলাশ

জেরুজালেম ইস্যুতে উত্তাল গাজা ফিলিস্তিনি নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৩


আরো পড়ুন...

এমপি বদির বেয়াইর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার ‘বন্দুকযুদ্ধ’ অব্যাহত নিহত আরো ১১ এমপি বদির বেয়াইর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার ‘বন্দুকযুদ্ধ’ অব্যাহত নিহত আরো ১১
হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশের স্বার্থে সমস্যার কথা এখানে উত্থাপন করতে চাই না সাংস্কৃতিক কূটনীতি হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশের স্বার্থে সমস্যার কথা এখানে উত্থাপন করতে চাই না সাংস্কৃতিক কূটনীতি
এবার কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় গোলাগুলি; দুই শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী নিহত এবার কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় গোলাগুলি; দুই শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
নেত্রকোনায় নিহত ২জন টেকনাফের, নিশ্চিত করেছে পরিবার নেত্রকোনায় নিহত ২জন টেকনাফের, নিশ্চিত করেছে পরিবার
পশ্চিমবঙ্গের বঙ্গবন্ধুর নামে ভবন নির্মাণ করা হবে!:মমতা পশ্চিমবঙ্গের বঙ্গবন্ধুর নামে ভবন নির্মাণ করা হবে!:মমতা
বনপা’র উদ্যোগে “জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মহাকাশে বাংলাদেশ” শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল আজ বনপা’র উদ্যোগে “জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মহাকাশে বাংলাদেশ” শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল আজ
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘গোলাগুলি’তে শামীম নামের এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত ! ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘গোলাগুলি’তে শামীম নামের এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত !
আজ মাদক প্রতিরোধ কমিটির মানববন্ধন আজ মাদক প্রতিরোধ কমিটির মানববন্ধন
ভেড়ামারায় হাজী আফছার উদ্দীন দারুল ইসলাম হাফিজিয়া মাদ্রাসায় দোয়া ও ইফতার মাহফিল ভেড়ামারায় হাজী আফছার উদ্দীন দারুল ইসলাম হাফিজিয়া মাদ্রাসায় দোয়া ও ইফতার মাহফিল
আজও ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৮ আজও ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৮

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
এমপি বদির বেয়াইর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার ‘বন্দুকযুদ্ধ’ অব্যাহত নিহত আরো ১১
হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশের স্বার্থে সমস্যার কথা এখানে উত্থাপন করতে চাই না সাংস্কৃতিক কূটনীতি
এবার কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় গোলাগুলি; দুই শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
নেত্রকোনায় নিহত ২জন টেকনাফের, নিশ্চিত করেছে পরিবার
পশ্চিমবঙ্গের বঙ্গবন্ধুর নামে ভবন নির্মাণ করা হবে!:মমতা
বনপা’র উদ্যোগে “জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মহাকাশে বাংলাদেশ” শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল আজ
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘গোলাগুলি’তে শামীম নামের এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত !
আজ মাদক প্রতিরোধ কমিটির মানববন্ধন
ভেড়ামারায় হাজী আফছার উদ্দীন দারুল ইসলাম হাফিজিয়া মাদ্রাসায় দোয়া ও ইফতার মাহফিল
আজও ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৮
লালমনিরহাটে ফেন্সিডিলসহ রংপুরের তিন ভুয়া ‘সাংবাদিক’ আটক
কুষ্টিয়া সুগারমিল কর্মচারীদের ৩ মাস ধরে বেতন বন্ধ!
বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল এখন সিলেটে
বন্দুকযুদ্ধে এমপি বদির বেয়াই মাদক ব্যবসায়ী কামাল নিহত
কুলাউড়ায় অপহরণ ও ধষর্নের ঘটনায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন পিবিআই এর সাফল্য
দু’দিনের সফরে কলকাতা গেলেন প্রধানমন্ত্রী
পদ্মা সেতুর খরচ বাড়ল আরও ৪ হাজার কোটি টাকা
কালীগঞ্জে বন্দুকযুদ্ধে মাদকব্যবসায়ী নিহত, ৪ পুলিশ আহত
সেনাসদস্যের ভাড়া বাড়িতে পুলিশের জালে ধরা পড়ল স্মরণকালের বড় অস্ত্রের চালান
নতুন দুই বিজ্ঞাপনে মিথিলা