শিরোনাম:
●   নোয়াখালীতে পুলিশের পরিচয়ে এক কিশোরীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ ●   অপরাধের শাস্তি ভোগ করছেন খালেদা জিয়া : প্রধানমন্ত্রী ●   খালেদা জিয়ার জামিনের শুনানি রোববার : জরিমানা স্থগিত ●   শ্বাশুড়ী যখন পুত্রবধু,চাঁদপুরে বিধবা দাদির সন্তান প্রসব, নাতির সাথে বিয়ে!! ●   মাসিক বেতন ১০ হাজার, বাড়ি কিনেছেন আড়াই কোটি টাকার ●   কুষ্টিয়ায় সড়ক সংস্কারসহ ৭দফা দাবীতে কুষ্টিয়ায় মানববন্ধন ●   কুষ্টিয়ার পৌর শিশু পার্কে১১ জোড়া প্রেমিক যুগল আটক ●   মক্কা শরীফে তাস খেলছেন নারীরা! ●   আর ছাপা নয়: পরীক্ষার হলে ডিজিটাল ডিভাইসে ভেসে উঠবে প্রশ্ন ●   কুষ্টিয়ার খোকসায় বিয়ের দাবিতে ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে যুবলীগ নেতার স্ত্রী
ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪
Bijoynews24.com
প্রথম পাতা » Slider » ঝিনাইদহে ৪ মামলায় বিএনপির ২৫০ জন আসামী বাদ যায়নি মৃত ব্যক্তিও!
সোমবার ● ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮
Email this News Print Friendly Version

ঝিনাইদহে ৪ মামলায় বিএনপির ২৫০ জন আসামী বাদ যায়নি মৃত ব্যক্তিও!

---ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহ পুলিশের বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের করা সরকার উৎখাতের ৪টি মামলায় বিএনপি জামায়াতের ২২৫ জনের নাম উল্লেখ করে আড়াই শতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এর মধ্যে মৃত এক বিএনপির নাম নিয়ে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে। ইদ্রিস আলী নামে দুই বছর আগে মারা যাওয়া নলডাঙ্গা গ্রামের ওই বিএনপি নেতা ঝিনাইদহ সদর থানা বিএনপির সহ-সভাপতি ছিলেন। মামলায় তার পদবীও সহ-সভাপতি ব্যবহার করা হয়েছে। তবে তার গ্রাম বা পিতার নাম না থাকায় বিভান্তি দেখা দিয়েছে। তবে বিএনপি নেতারা দাবী করছেন গনহারে আসামী করতে গিয়ে মৃত ব্যক্তিরাও বাদ যায়নি। ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বাজারগোপালপুর পুলিশ ক্যাম্পের তদন্ত কর্মকর্তা আলাউদ্দীনের দায়েরকৃত ১৫ নং মামলায় এজাহারভুক্ত আসামি করা হয়েছে সহ-সভাপতি ইদ্রিস আলীকে। তিনি এই মামলায় ২১ নং আসামী। এছাড়া নারিকেলবাড়িয়া পুলিশ ক্যাম্পের তদন্ত কর্মকর্তা বদিউর রহমানের দায়েরকৃত ১৭ নং মামলাও ইদ্রিস আলীকে ১৭ নং আসামী করা হয়েছে। কিন্তু সহ-সভাপতি পদে ইদ্রিস আলী নামে বিএনপির জেলা, থানা ও পৌর কমিটিতে কেও নেই। এদিকে ই¯্রসি আলীর ছেলে আহসান কবীর জানান, তার পিতা ২০১৬ সালের ১৮ নভেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেন। তিনি সদর থানা বিএনপির পুরানো কমিটির সহ-সভাপতি ছিলেন। হয়তো ভুল করে তার পিতার নাম এসেছে বলেও দাবী করেন আহসান। আদালত সুত্রে জানা গেছে, গত ৪ ফেব্রয়ারী ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কাতলামারী পুলিশ ক্যাম্পের তদন্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৬/২ ও ২৫ (খ) ধারায় ২৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৮০/৯০ জনকে আসামি করে মামলা করেন। ৬ ফেব্রয়ারী ঝিনাইদহ সদর থানার এসআই ফজলুর রহমান বাদী হয়ে একই ধারায় করা দায়েরকৃত মামলায় ৫৯ জনের নাম উল্লেখসহ আরো ৫০/৬০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। গত ৭ ফেব্রয়ারী সদর উপজেলার বাজারগোপালপুর পুলিশ ক্যাম্পের তদন্ত কর্মকর্তা আলাউদ্দীনের দায়েরকৃত মামলায় ৬২ জনের নাম উল্লেখসহ আরো ৪০/৫০ জন আসামী হয়েছেন। গত ৮ ফেব্রয়ারী সদর উপজেলার নারিকেলবাড়িয়া পুলিশ ক্যাম্পের তদন্ত কর্মকর্তা বদিউর রহমানের দায়েরকৃত মামলায় ৭৯ জনের নাম উল্লেখসহ আরো ৪০/৫০ জনকে আসামী করা হয়েছে। সর্বশেষ দুটি মামলায় আসামী হয়েছেন বিএনপির প্রয়াত নেতা কথিত ইদ্রিস আলী। জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক জানান, জেলা, থানা ও পৌর বিএনপির নতুন কমিটিতে ইদ্রিস আলী নামে তাদের কোন সহ-সভাপতি নেই। তবে পুরানো কমিটিতে নলডাঙ্গ গ্রামের মরহুম ইদ্রিস আলী ছিল বলে আব্দুল মালেক যোগ করেন। তিনি আরো বলেন, ৩ বছর আগের পুরানো কমিটির অনেকের পদ পদবী দিয়ে মামলা করা হলেও বর্তমান কমিটিতে তাদের পদ পদবী ভিন্ন। সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ বিশ্বাস জানান, বিএনপির সাবেক নেতা ইদ্রিস আলীই হচ্ছে ওই মামলার আসামী করা হয়েছে। কারণ সহ-সভাপতি পদে ইদ্রিস আলী নামে কেবল তিনিই ছিলেন। জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, মামলায় যে ইদ্রিস আলীকে দেখানো হয়েছে তিনি দুই বছর আগেই মারা গেছেন। বিষয়টি নিয়ে বাজারগোপালপুর পুলিশ ক্যাম্পের তদন্ত কর্মকর্তা ও ১৫ নং মামলার বাদী আলাউদ্দীন জানান, গ্রেফতারকৃতদের দেওয়া তথ্যমতে ইদ্রিস আলীর নাম এসেছে। ইদ্রিস আলী মৃত হলে বিষয়টি ভুলের কারণে হয়েছে বলেও তিনি স্বীকার করেন। এদিকে নারিকেলবাড়িয়া পুলিশ ক্যাম্পের তদন্ত কর্মকর্তা এবং ১৭ নং মামলার বাদী বদিউর রহমান জানান, তিনি মৃত হলে আদালতে লিখিত দিয়ে সংশোধন করা যাবে। বিষয়টি নিয়ে সদর থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ বলেন, না ওটার তো কোন ঠিকানা ছিল না। পরে আমরা ঠিক করে দিয়েছি।

কোটচাঁদপুরে যুবলীগ সভাপতির কান্ড বাঁওড়ের মাছ লুট করতে না পেরে মৎস্যজীবিকে হাতুড়ি পেটা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর সরকারী বলুহর বাঁওড়ের মাছ লুটপাট করতে বাঁধা দেওয়ায় হাতুড়ি ও রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে শান্তি হালদার (৫০) নামে এক মৎস্যজীবিকে। বলুহর ইউনিয়ন যুবলীগের ওয়ার্ড সভাপতি তাপস গড়াই ও সম্পাদক তরিকুল ইসলামের নেতৃত্বে শনিবার রাতে তাকে পিটিয়ে আহত করা হয় বলে থানায় দায়ের করা এজাহারে উল্লেখ করা হয়। এ ঘটনায় বাঁওড় সংশ্লিষ্ট সকল মৎস্য জীবিদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শান্তি হালদার রোববার বিকালে জানান, শনিবার বিকালে মৎস্যজীবিরা বাঁওড় থেকে মাছ ধরে সিঙ্গিয়া নামক ঘাটে তোলেন। রাতের বেলা বাঁওড় সংলগ্ন বলুহর গ্রামের যুবলীগ সভাপতি তাপস গড়াই, সেক্রেটারী তরিকুল ইসলাম, আক্কাস, রামচন্দ্রপুর গ্রামের সোহাগসহ ৮/১০ জন মাছ লুট করতে আসলে মৎস্যজীবিরা বাধা দেন। এ সময় তারা বলুহর গ্রামের রামচন্দ্র হালদারের ছেলে মৎস্যজীবি শান্তি হালদারকে বকাবকি করে চলে যায়। শনিবার রাতে শান্তি হালদার বাজার থেকে বাড়ী ফেরার পথে বলুহর প্রাইমারী স্কুলের সামনে পৌঁছানো মাত্র আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা যুবলীগ নেতা তরিকুলসহ ৪/৫জন শান্তি হালদারকে একা পেয়ে হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে অচেতন অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়। স্থানীয়রা শান্তি হালদারকে উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে। বাঁওড় সমিতির সেক্রেটারী রনজিৎ হালদার অভিযোগ করেন, প্রায় আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নাম ভাঙ্গিয়ে বাঁওড়ের সম্পদ তছরুপ করে, কিন্তু ভয়ে আমরা তাদের কিছুই বলতে পারিনা। বাঁওড়ের ক্ষেত্রসহকারী কবির হোসেন বলেন, আমি বিষয়টি শুনে হাসপাতালে আহত শান্তি হালদার দেখতে গিয়েছিলাম। শান্তি হালদারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা করেছে বলে শুনেছি। কোটচাঁদপুর থানার ওসি বিপ্লব কুমার সাহা বলেন, বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এদিকে বাঁওড় পাড়ের গ্রামের মানুষ অভিযোগ করেছেন, বাঁওড় ব্যবস্থাপক সিদ্দিকুর রহমানের সীমাহীন দুর্ণীতির কারণে উৎশৃংখল যুবকরা এমন অপরাধ কর্মকান্ড করতে সাহস পাচ্ছে। রাতের অন্ধকারে মাছ মেরে বিক্রি করাসহ নানা অপকর্মের সহযোগী হচ্ছে কিছু উৎশৃংখল যুবক।

কালীগঞ্জে ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধির কারণে সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে বৃদ্ধি পেয়েছে ডায়রিয়ার প্রকোপ। গত এক সপ্তাহ ধরে এমনটি দেখা দিয়েছে। আক্রান্তরা  হাসপাতাল ও প্রাইভেট ক্লিনিকগুলোতে চিকিৎসাসেবা নিচ্ছেন। আবার হাসপাতালে যথেষ্ঠ পরিমানে আসন না থাকায় কেউ কেউ নিজ বাড়িতে চিকিৎসা নিতে বাধ্য হচ্ছেন। চিকিৎসকরা বলছেন ভাইরাল ও আবহাওয়া জনিত কারনে এমনটি হচ্ছে। তবে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীরা ঠিকমত চিকিৎসা সেবা নিয়েই বাড়ি ফিরছেন। এদিকে হঠাৎ ডায়রিয়াসহ নানা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেলেও হাসপাতালে নিয়মিত চিকিৎসক আছেন টিএইচ এ বাদে মাত্র ২ জন। ফলে চিকিৎসক সঙ্কটের কারনে চিকিৎসা সেবা খানিকটা ব্যাহত হচ্ছে। চিকিৎসকদের ভাষ্য রোগীদের সর্বোচ্চ সেবা দিতে তাদেরকে প্রতিনিয়ত হিমশিম খেতে হচ্ছে। সরেজমিনে দেখা যায়, ৫০ শয্যাবিশিষ্ঠ হাসপাতাল হলেও রোগী ভর্তি আছেন ৭২ জন। অতিরিক্তরা শয্যা ছাড়াও দ্বিতল ভবনের বারান্দা ও ফ্লোরে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন। বেশির ভাগই ডায়রিয়ায় আক্রান্ত শিশুসহ সব বয়সী মানুষ। এতোগুলো রোগী সামলাচ্ছেন মাত্র ২ জন চিকিসক। হাসপাতালসূত্রে জানাগেছে,গত এক সপ্তাহে হাসপাতালটিতে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছে প্রায় শতাধিক। তাছাড়াও অনেকে বিভিন্ন বেসরকারী ক্লিনিক ও বাড়িতে চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন। শুধু শিশুরাই নয় সব বয়সী মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। চিকিৎসকদের ভাষ্য এটা ভাইরাল জনিত কারনে হচ্ছে। ফলে আক্রান্তদের সুস্থ হতে একটু সময় লাগছে। এখানে ডায়রিয়ায় আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য খাবার স্যালাইনের ঘাটতি না থাকলে  শিরায় প্রয়োগের কলেরা স্যালাইনের অপেক্ষাকৃত কম রয়েছে। হাসপাতালটিতে মেডিসিন,গাইনী,শিশু,অর্থো,ই.এন.টি,চর্ম,চক্ষু,সার্জারীসহ ১০ জন বিশেষজ্ঞসহ মোট ২১ জন চিকিৎসক থাকার কথা থাকলেও আছে টি এইচ.এ বাদে সহকারী সার্জন হিসেবে ডাঃ অরুণ কুমার কিন্তু তিনি ২ মাসের জন্য বুনিয়াদি প্রশিক্ষনে বাইরে আছেন। আর ডাঃ সম্পা মোদক অসুস্থতার জন্য রয়েছেন ছুটিতে। বর্তমানে মেডিসিনে ডাঃ মোঃ মাহাফুজুল আলম সোহাগ ও গাইনী বিশেষজ্ঞ হিসেবে ডাঃ আলাউদ্দীন মাত্র এ ২ জন নিয়মিত চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। ডাঃ মোঃ মাহাফুজুল আলম সোহাগ জানান, সেবামূলক খাতে চাকরী ফলে যত কষ্টই হোক না কেন এটা মেনে নিয়েই সেবা দিয়ে যাচ্ছি। তবে এভাবে রাতদিন দায়িত্ব পালন করতে হলে এক সময়ে তাদের নিজেদেরও রোগী হয়ে যেতে হবে। কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের কর্মকর্তা হোসাইন সাফায়েত জানান, সম্প্রতি ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগী বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে আবহাওয়া পরিবর্তনের সাথে সাথে ডায়রিয়ার প্রকোপটা কিছুটা কমতে শুরু করেছে। চিকিৎসক সঙ্কটের বিষয়ে তিনি জানান, এটা উপরি মহলে রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে। আশা করছেন খুব তাড়াতাড়ি সঙ্কট কেটে যাবে। তাছাড়াও ইতোমধ্যে ইউনিয়ন পর্যায়ে পোষ্টিংকৃত ২ জন চিকিৎসক ডাঃ শারমিন সুলতানা লুবনা ও সুলতান আহম্মেদকে উভয় স্থানে কাজে লাগাচ্ছেন। তারপরও বর্তমানে রোগীর চাপে তাদের পক্ষে হাসপাতাল সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

ঝিনাইদহে যুবলীগ নেতা বিবেকানন্দ বিশ্বাসের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ঘোড়শাল ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি বিবেকানন্দ বিশ্বাসের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মুনুড়িয়া স্কুলমাঠে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বিকেলে ঘোড়শাল ইউনিয়নের মুনড়িয়া স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ঘোড়শাল ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি এমদাদ হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঝিনাইদহ জেলা যুবলীগের আহবায়ক আশফাক মাহমুদ জন, ঘোড়শাল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পারভেজ মাসুদ লিল্টন, জেলা যুবলীগের সাবেক সহ-সভাপতি বিনয় কুমার বিশ্বাস, যুগ্ম-আহবায়ক শফিকুল ইসলাম শিমুল,, রাশিদুর রহমান রাসেল, হাফিজুর রহমান, রাজু আহম্মেদ, জেলা পরিষদের সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন সোহেল, কালীগঞ্জ যুবলীগ নেতা শিবলী নোমানী, কালীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনিচুর রহমান মিঠু মালিতা, ঘোড়শাল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক রনজিৎ কুমার বিশ্বাস। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঝিনাইদহ সদর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক নুর এ আলম বিপ্লব, যুগ্ম-আহবায়ক এনামুল হক এনাম। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, আওয়ামীলীগের আমলে কোন সন্ত্রাসীদের ঠাই নাই। যুবলীগের সভাপতি বিবেকানন্দ বিশ্বাসের যে ভাবে কুপিয়েছে সন্ত্রাসী জাহিদ বাহিনী তাদের বিচার অচিরেই হবে। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর এ ধরনের নির্যাতনের সাথে যেই জড়িত থাকুক না কেন তারও বিচার হবে। উল্লেখ্য, ১১ জানুয়ারী মুনুড়িয়া বাজারে বসে থাকা অবস্থায় বিবেকানন্দ বিশ্বাসকে কুপিয়ে যখম করে সন্ত্রাসীরা।

শৈলকুপার অজপাড়াগায়ে বিজ্ঞান ক্লাবের উদ্বোধন

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার সারুটিয়া ইউনিয়নের পুরাতন বাখরবা গ্রাম। জেলা সদর থেকে ৩০ কিলোমিটার দুরে জেলা সীমান্তে অবস্থিত এই গ্রামটি। বর্তমানে কিছুটা উন্নয়নের ছোয়া লাগলেও পুর্বে হাটুসমান কাদা পেরিয়ে যেত হতো গ্রামে। এই অজপাড়াগায়ে এক ক্ষুদে বিজ্ঞানী হৃদয় হোসেন অনেকটা পরিত্যাক্ত ঘরে গড়ে তুলেছেন বিজ্ঞান ক্লাব। শনিবার বিকেলে ফিতা কেটে ক্লাবটির উদ্বোধন করেন শৈলকুপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উসমান গনি। জানা গেছে, বাখরবা গ্রামের কৃষক আবুল কালাম আজাদের ছেলে হৃদয় হোসেন। ঝিনাইদহ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র। ইতিমধ্যে অটোমেটিক হাউজ ক্লিনার এন্ড লাইফ সেফটি রোবট আবিস্কার করে বেশ আলোচনায় এসেছে সে। পরে নিজের গ্রামের নাম জেলা, দেশ তথা বিশ্বের বুকে তুলে ধরার জন্য সহপাঠী ও গ্রামের ১৯ জন সদস্য নিয়ে গড়ে তুলেছেন বিজ্ঞান ক্লাব। ওই ক্লাবের সদস্যরা ইতিমধ্যে তৈরী করেছেন রোবটিক হুইল চেয়ার। যে রোবটটি শারিরীক প্রতিবন্ধীরা সেন্সরের মাধ্যমে চলাফেরা করতে পারবেন। এছাড়াও মোবাইল এ্যাপসের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রন করা যায় রোবটটি। শনিবার বিকেলে উদ্বোধন শেষে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা। ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ননটেক বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মাহবুবুল ইসলাম, ইলেক্টনিক্স বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সহ-সাধারণ সম্পাদক ও এসএ টিভি’র জেলা প্রতিনিধি ফয়সাল আহমেদ। প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উসমান গনি তার বক্তব্যে বলেন, পুরাতন বাখরবা গ্রামে আজ এই বিজ্ঞান ক্লাবটি উদ্বোধন করতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করছি।  অনেক গ্রামের যুব সমাজ যেখানে মাদকের ভয়াল থাবার শিকার হচ্ছে, সেখানে পুরাতন বাখরবা পশ্চিমপাড়ার যুব সমাজ বিজ্ঞান চর্চা করছে। এগিয়ে যাও তোমরা, যেতে হবে বহুদূর। প্রধান অতিথি বিজ্ঞান ক্লাবটিকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য আশ্বাস প্রদাণ করেন। সেই সাথে এলাকার সকলকে সর্বাত্বক সহযোগী করার আহ্বান জানান।

ঝিনাইদহের পিটিআই সংলগ্ন পরীক্ষণ বিদ্যালয়ে বার্ষিক প্রতিভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

---ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

“এসো আমরা সবাই মিলে আনন্দ করি” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ঝিনাইদহের পিটিআই সংলগ্ন পরীক্ষণ বিদ্যালয়ে বার্ষিক প্রতিভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার দিনব্যাপী পিটিআই সংলগ্ন পরীক্ষণ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ। প্রাইমারি টিচার্স ট্রেনিং ইন্সটিটিউট( পিটিআই) সুপারিনটেনডেন্ট আতিয়ার রহমান এর সার্বিক তত্বাবধানে ও সহযোগিতায় আনান্দ ঘন পরিবেশে বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দের অভিভাবকগন এ অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শেষে দুপুরে পিটিআই সুপারিনটেনডেন্ট আতিয়ার রহমান এর সভাপতিত্বে এক আলোচনা অনুষ্টিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা শিক্ষা অফিসার শেখ আক্তারুজ্জামান,এডিপিও মমিনুল ইসলাম, টিইও মোস্তাক আহমেদ,রিসোর্সপার্সন সাংবাদিক সাজ্জাদ আহমেদ, সহকারী সুপারিনটেনডেন্ট এস এম সালাউদ্দীন, টিচার্স ট্রেনিং ইন্সটিটিউট এর ইন্সট্রেক্টর( সাধারন) রাকিবউল্লাহ, নারায়ন চন্দ্র দে,সহকারী শিক্ষক গন সুপ্রতি বিশ্বাস,নাসরিন নাহার,রেশমা খাতুন,শহিদুল ইসলাম,আরিফা সুলতানা, ওমান আরা রীনা,এবিএম জাহাঙ্গীর,নিলুফার ইয়াসমিন,রোজিনা খাতুন সহ ট্রেনিং প্রাপ্ত শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ। আলোচনা শেষে অতিথিবৃন্দ, ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ ও শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ দুপুরে বার্ষিক প্রতিভোজে অংশ নেন। পিটিআই সুপারিনটেনডেন্ট আতিয়ার রহমান এর তত্বাবধানে ৫৫৫ জন ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ, অতিথিবৃন্দ শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ প্রতিভোজে অংশ নিয়ে আনান্দি হয়। প্রিতিভোজ শেষে বিকালে লটারীর মাধ্যমে বিজয়ীদের মধ্যে পুরুষ্কার বিতরন করা হয়। পিটিআই সুপারিনটেনডেন্ট আতিয়ার রহমান বলেন, এত সুন্দর পরিবেশ করতে শুধু মানসিকতা দরকার, এ সুন্দর ও মনোরম পরিবেশ কোথাও আছে কিনা আমার জানা নাই।আমি ইতি পূর্বে খুলনা বিভাগে সুনাম অর্জন করেছি। ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দের অভিভাবকগন ও শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ সুন্দর ও মনোরম পরিবেশ এর জন্য সার্বিক ভাবে সহযোগিতা করে আসছে।

হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে মহেশপুর পুড়াপাড়া পশু হাট ইজারা না পেয়ে চৌগাছার ঋষি পাড়ায় পশু হাট বসাচ্ছেন ডাবলু

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার পুড়াপাড়া পশু হাট ইজারা না পেয়ে আনোয়াররুল ইকবল ডাবলু অবৈধ ভাবে পার্শবর্তী চৌগাছার ঋষি পাড়ায় হাট বসাচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার বিবরণে প্রকাশ খুলনা বিভাগের সর্ব বৃহৎ পশু হাট ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়নের পুড়াপাড়া পশু হাট। বাংলা ১৪২৪ সালে সিডিউলের মাধ্যমে হাটটি ডাক হয় । সর্বোচ্চ দরদাতা হিসাবে হাটটি ইজারা পান ঝিনাইদহের ওয়াহিদ সাদিক। তিনি প্রায় দেড় কোটি টাকায় হাট ইজারা নেন। কিন্তু বাংলা ১৪২৩ সালের হাট ইজারাদার জনাব আনোয়ারুল ইকবল ডাবলু ১৪২৪ সালের জন্য হাট ইজারা না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। তিনি স্থানীয় কতিপয় ব্যক্তিদের নিয়ে পুড়াপাড়া পশু হাটের দিন বুধ ও রবিবার পার্শবর্তী চৌগাছা পৌরসভার ভিতর ঋষি পাড়া নামক জায়গায় পশু হাট বসান। উল্লেখ্য যে, পুড়াপাড়া বাজারের পূর্ব নির্ধারিত হাট হচ্ছে বুধ ও রবিবার এবং চৌগাছা পশু হাটের পূর্ব নির্ধারিত দিন হচ্ছে শুক্র ও সোমবার। আনোয়ারুল ইকবল ডাবলু জোর পূর্বক ঋষি পাড়ায় হাট বসানোর প্রেক্ষিতে পুড়াপাড়া পশু হাট ইজারাদার ওয়াহিদ সাদিক বিভাগীয় কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট জায়গায় ঋষি পাড়ার পশু হাট উচ্ছেদের জন্য আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে বিভাগীয় কমিশনার সরেজমিন তদন্ত করে ঋষি পাড়ার পশু হাট অবৈধ বলে প্রতিবেদন দিলে স্থানীয় মন্ত্রনালয় যশোর জেলা প্রশাসকের সহোযোগীতায় র‌্যাব, পুলিশ, বিজিবি দিয়ে হাটটি উচ্ছেদ করেন। উচ্ছেদ এর বিরুদ্ধে আনোয়ারুল ইকবল ডাবলু সুপ্রীম কোর্টের হাইকোট বিভাগে মাননীয় বিচারপতি জনাব নাইমা হায়দারের একক বেঞ্চে ১৩৮৫০/২০১৭ নং একটি মামলা করেন। মাননীয় বিচারপতি ঋষি পাড়ায় ৩০শে চৈত্র পর্যন্ত হাট বসানোর রায় প্রদান করেন। এর বিরুদ্ধে রাষ্ট্র ও পুড়াপাড়া হাটের ইজারাদার আপিল করলে আপিল বিভাগ মাননীয় বিচারপতি জনাব নাইমা হায়দার এবং মাননীয় বিচারপতি জনাব জাফর আহমেদ এর সমন্বয়ে গঠিত দ্বৈত বেঞ্চে  মামলাটি শুনানী করে নিষ্পত্তির জন্য পাঠান। মাননীয় বিচারপতি জনাব নাইমা হায়দার এবং মাননীয় বিচারপতি জনাব জাফর আহমেদ এর সমন্বয়ে গঠিত দ্বৈত বেঞ্চ গত ০৫/০২/২০১৮ তারিখ  আনোয়ারুল ইকবল ডাবলুর রিট ১৩৮৫০/২০১৭ নং শুনানী অন্তে অবৈধ বলে খারিজ করে পুড়াপাড়া পশু হাটের পক্ষে রায় প্রদান করেন। এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়, বিভাগীয় কমিশনার, খুলনা, জেলা প্রশাসক, যশোরসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্দেশ দেন। কিন্তু সুপ্রীম কোর্টের হাইকোট বিভাগ রায় প্রদান করলেও আনোয়ারুল ইকবল রায়কে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে গত ৮ ও ১১ই ফেব্রুয়ারী/১৮চৌগাছার ঋষি পাড়ায় পশু হাট বসিয়েছে। ফলে আইনের শাসন নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন উঠেছে। বাদী আনোয়ারুল ইকবল ডাবলুর পক্ষে হাইকোট বিভাগের আইনজীবী ছিলেন মেহেদী হাসান। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন ডিওজি এ্যাডঃ ইউসুফ হোসেন হুমায়ন ও এ্যাডঃ মেহেদী হাসান। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার জন্য জরুরী ভিত্তিতে ঋষিপাড়ার পশু হাটটি বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট এলাকাবাসী আহবান জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে গত২৬ এপ্রিল ও ২৫ মে ১৭ইং সালে বিভিন্ন প্রকার জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশিত হলে জেলা প্রশাসক এর নির্দেশে ও সহোযোগীতায় র‌্যাব, পুলিশ, বিজিবি দিয়ে হাটটি উচ্ছেদ করেন।

ঝিনাইদহ জেলা সাহিত্য পরিষদের আয়োজনে সাহিত্য ও সাংস্কৃতি আড্ডা অনুষ্ঠান ও আলোচনা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহ শিল্পকলা একাডেমীতে সাহিত্য ও সাংস্কৃতি আড্ডা অনুষ্ঠান শনিবার রাতে অনুষ্টিত হয়েছে। জেলা সাহিত্য পরিষদ ও শিল্পকলা একাডেমীর যৌথ আয়োজনে এ উপলক্ষে এক আলোচনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন  সরকারী নুরুন্নাহার মহিলা কলেজের প্রাক্তন উপাধ্যক্ষ এন এম শাহজালাল।এসময় আলোচনা রাখেন জেলা কালচারাল অফিসার জসিম উদ্দীন, জেলা সাহিত্য পরিষদ এর সাধারন সম্পাদক  শেখ মিজানুর রহমান,কোষাধ্যক্ষ মসলেম আলী,আলহাজ্জ্ব মনোয়ার হোসেন,প্রভাষক সুনিতা শর্মা,সুরাইয়া পারভীন মলি,এম এ মান্নান,জামিরুল ইসলামা,ইসরান হোসেন,বিল্লাল হোসেন,জান-এ-আলম হোসেন,রওশন আলী,আহমদ রাকীব,সাব্বির অধহমেদ,এস আব্বাস উদ্দিন আহমেদ,বিএম আনোয়ার হোসাইন প্রমূখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন মৌ চোধুরী। আলোচনা শেষে জেলায় বিভিন্ন স্থানের ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা শিল্পী ও সাহিত্য ব্যাক্তিবর্গগন সাহিত্য ও সাংস্কৃতি পরিবেশন করেন। পরে জেলা সাহিত্য পরিষদ এর পক্ষ থেকে সাহিত্য ও সাংস্কৃতি পরিবেশনের পর তাদেরকে পুরুস্কৃত করা হয়।


সানির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০০ মিটারের মধ্যে ফোন পেলে গ্রেপ্তার


আরো পড়ুন...

নোয়াখালীতে পুলিশের পরিচয়ে এক কিশোরীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ নোয়াখালীতে পুলিশের পরিচয়ে এক কিশোরীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ
অপরাধের শাস্তি ভোগ করছেন খালেদা জিয়া : প্রধানমন্ত্রী অপরাধের শাস্তি ভোগ করছেন খালেদা জিয়া : প্রধানমন্ত্রী
খালেদা জিয়ার জামিনের শুনানি রোববার : জরিমানা স্থগিত খালেদা জিয়ার জামিনের শুনানি রোববার : জরিমানা স্থগিত
শ্বাশুড়ী যখন পুত্রবধু,চাঁদপুরে বিধবা দাদির সন্তান প্রসব, নাতির সাথে বিয়ে!! শ্বাশুড়ী যখন পুত্রবধু,চাঁদপুরে বিধবা দাদির সন্তান প্রসব, নাতির সাথে বিয়ে!!
মাসিক বেতন ১০ হাজার, বাড়ি কিনেছেন আড়াই কোটি টাকার মাসিক বেতন ১০ হাজার, বাড়ি কিনেছেন আড়াই কোটি টাকার
কুষ্টিয়ায় সড়ক সংস্কারসহ ৭দফা দাবীতে কুষ্টিয়ায় মানববন্ধন কুষ্টিয়ায় সড়ক সংস্কারসহ ৭দফা দাবীতে কুষ্টিয়ায় মানববন্ধন
কুষ্টিয়ার পৌর শিশু পার্কে১১ জোড়া প্রেমিক যুগল আটক কুষ্টিয়ার পৌর শিশু পার্কে১১ জোড়া প্রেমিক যুগল আটক
মক্কা শরীফে তাস খেলছেন নারীরা! মক্কা শরীফে তাস খেলছেন নারীরা!
আর ছাপা নয়: পরীক্ষার হলে ডিজিটাল ডিভাইসে ভেসে উঠবে প্রশ্ন আর ছাপা নয়: পরীক্ষার হলে ডিজিটাল ডিভাইসে ভেসে উঠবে প্রশ্ন
কুষ্টিয়ার খোকসায় বিয়ের দাবিতে ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে যুবলীগ নেতার স্ত্রী কুষ্টিয়ার খোকসায় বিয়ের দাবিতে ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে যুবলীগ নেতার স্ত্রী

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
নোয়াখালীতে পুলিশের পরিচয়ে এক কিশোরীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ
অপরাধের শাস্তি ভোগ করছেন খালেদা জিয়া : প্রধানমন্ত্রী
খালেদা জিয়ার জামিনের শুনানি রোববার : জরিমানা স্থগিত
শ্বাশুড়ী যখন পুত্রবধু,চাঁদপুরে বিধবা দাদির সন্তান প্রসব, নাতির সাথে বিয়ে!!
মাসিক বেতন ১০ হাজার, বাড়ি কিনেছেন আড়াই কোটি টাকার
কুষ্টিয়ায় সড়ক সংস্কারসহ ৭দফা দাবীতে কুষ্টিয়ায় মানববন্ধন
কুষ্টিয়ার পৌর শিশু পার্কে১১ জোড়া প্রেমিক যুগল আটক
মক্কা শরীফে তাস খেলছেন নারীরা!
আর ছাপা নয়: পরীক্ষার হলে ডিজিটাল ডিভাইসে ভেসে উঠবে প্রশ্ন
কুষ্টিয়ার খোকসায় বিয়ের দাবিতে ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে যুবলীগ নেতার স্ত্রী
কালীগঞ্জের ফুলের মাঠে নতুন অতিথি ইউরোপের জারবেরা
বগুড়ায় জাপা নেতার পরিবারে এমপি সমর্থকদের হামলা, নারীসহ আহত ৫
গাইবান্ধায় শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত
লাখো প্রদীপে নড়াইলবাসীর শহীদ স্মরণ
মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপারের একটি মহৎ উদ্যোগ
‘ইয়াবা পাচারে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড রেখে নতুন আইন হচ্ছে’
সিদ্ধিরগঞ্জে দুলাভাই কর্তৃক শিশু শ্যালিকা ধর্ষন, শাশুড়ির মামলা
গৌরীপুরে বাস-সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে চালকসহ নিহত-৪ : আহত-২
নতুন আইজির ‘আতঙ্কে’ দুর্নীতিগ্রস্ত পুলিশ কর্মকর্তারা
আজ রাজশাহী সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী