শিরোনাম:
●   যুদ্ধ বাধলে ইসরাইলকে মুুছে ফেলার হুঙ্কার ইরানের ●   শেরপুর বাংলার রাম রহিম : দরজা বন্ধ করেই চলে নারীদের থেরাপি! ●   আ’লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদিকাকে কুপিয়ে হত্যা ●   ইরানের পক্ষে ইউরোপের সব দেশ ●   মসজিদে নববীতে ইহুদি প্রবেশের অনুমতি দিলো সৌদি ●   প্রেমিকের ফেসবুকে ছবি পোস্ট করায় প্রেমিকার আত্মহত্যা, প্রেমিক গ্রেপ্তার! ●   ঘুমে ব্যাঘাত ঘটায় বাবাকে নির্মমভাবে খুন করলো ছেলে! ●   স্টুডিও’র অন্তরালে পর্ণো ভিডিও ব্যবসার অভিযোগে কুমারখালীর চরসাদীপুর থেকে ৩টি কম্পিউটার জব্দ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় ও কম্পিউটার বাজেয়াপ্ত ●   স্বাধীনতা যুদ্ধে জিয়াউর রহমান পাকিস্তানের এজেন্ট ছিলেন: হানিফ ●   কুষ্টিয়া জেলা টেলিভিশন ক্যমেরাপার্সন এসোসিয়েশন (টিসিএ) জরুরী সভা অনুষ্ঠিত
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ৮ অগ্রহায়ন ১৪২৪
Bijoynews24.com
প্রথম পাতা » Slider » বিএনপির সমাবেশ আজ, ব্যাপক শোডাউনের প্রস্তুতি
রবিবার ● ১২ নভেম্বর ২০১৭
Email this News Print Friendly Version

বিএনপির সমাবেশ আজ, ব্যাপক শোডাউনের প্রস্তুতি

---Bijoynews : জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির সমাবেশ আজ। সমাবেশ থেকে চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী জাতীয় নির্বাচনের দাবি আদায়ে গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দেবেন চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। রাজধানীতে প্রায় দুই বছর পর খালেদা জিয়ার এ সমাবেশকে কেন্দ্র করে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে বিএনপি। নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে মহানগরের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে প্রস্তুতি সভা নিয়ে দুই সপ্তাহ ধরে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন বিএনপি ও অঙ্গদলের নেতারা। সমানে প্রস্তুতি নিয়েছে ঢাকার প্রতিবেশী কয়েকটি জেলার বিএনপির নেতারাও। লক্ষ্য একটাই, কর্মী-সমর্থকদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের বিপুল উপস্থিতির মাধ্যমে তারা সমাবেশকে পরিণত করতে চায় জনসমুদ্রে।

 

ভাঙতে চায় সোহরাওয়ার্দীতে অতীতের সমাবেশের সব রেকর্ড। সোহরাওয়ার্দীর সমাবেশের মাধ্যমে দেশবাসীর পাশাপাশি সরকারকেও কিছু বার্তা দিতে চায় দলটি। তেমন ইঙ্গিত দিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলছেন, সমাবেশটি জাতীয় রাজনীতি ও বিএনপির জন্য সাংগঠনিকভাবে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এ সমাবেশ থেকে চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দেবেন। এদিকে সমাবেশের আগের দিন পুলিশের অনুমতি পেয়েছে বিএনপি। তবে অনুমতিপত্রে জুড়ে দেয়া হয়েছে ২৩টি শর্ত। যদিও সমাবেশ সফল করতে সে শর্তকে বড় কোনো প্রতিবন্ধক মনে করছেন না দলটির নেতারা। ওদিকে সমাবেশকে কেন্দ্র করে রাজধানীতে শুক্রবার রাত থেকেই নেতাদের বাসাবাড়িতে পুলিশ তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে বলে বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। শুক্রবার রাতেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে শতাধিক নেতাকর্মীকে। শনিবার রাতেও অব্যাহত ছিল পুলিশের সে অভিযান। বিএনপি ও অঙ্গদলের দায়িত্বশীল নেতারা জানিয়েছেন, সমাবেশকে কেন্দ্র করে গ্রেপ্তার এড়াতে সপ্তাহখানেক ধরে ঢাকা মহানগরের নেতাকর্মীরা নিরাপদে অবস্থান করছেন। সমাবেশে লোক সমাগম ঠেকাতে সরকারের তরফে সম্ভাব্য নানা প্রতিবন্ধকতার বিষয়গুলো বিবেচনায় রেখে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে বিএনপি ও অঙ্গদলের নেতাকর্মীরা রাজধানীতে ভিড় করছেন শুক্রবার থেকেই। গ্রেপ্তার এড়াতে হোটেলের এড়িয়ে অবস্থান নিয়েছেন আত্মীয়-স্বজনের বাসাবাড়িতে। রাজধানীর প্রতিবেশী জেলাগুলো থেকে নেতাকর্মীরা শনিবার দুপুর থেকে ঢাকা ঢুকেছেন। নেতারা জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া চিকিৎসার শেষে দেশে ফেরার পর নানা প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে নেতাকর্মীরা যেভাবে বিমানবন্দর সড়কে অবস্থান নিয়েছিল সোহরাওয়ার্দীতেও তাই ঘটবে। জনস্রোতের কাছে অনুমতিপত্রের শর্তসহ হারিয়ে যাবে সরকারের যাবতীয় কৌশল। সমাবেশের প্রস্তুতির ব্যাপারে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিএনপি বৃহৎ রাজনৈতিক দল। সমাবেশের ব্যাপারে সব ধরনের প্রস্তুতি আমাদের আছে। সমাবেশে বিএনপির তরফে শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তার বিষয়টি সমন্বয় করছেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান। শনিবার বিকালে সমাবেশস্থল পরিদর্শন শেষে তার নেতৃত্বে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সভা করেছে নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা কমিটি। নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা সম্পর্কে প্রস্তুতি নিয়ে বলেন, সরকারের দুঃশাসন, নিপীড়ন ও নির্যাতনে অতিষ্ঠ জনগণ আজ ঐক্যবদ্ধ। খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে অনির্বাচিত সরকারকে ‘না’ বলতে তারা উদগ্রীব। সোহরাওয়ার্দীর সমাবেশে স্মরণকালের বৃহত্তম জনসমাগম ঘটবে। জনতার যে জোয়ার সৃষ্টি হবে তা ঠেকানোর সাধ্য কারও নেই। জনসভা ওইদিন নির্ধারিত হবে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ রাজনীতির গতিপথ। নোমান বলেন, সমাবেশের নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলায় ১ হাজার নেতাকর্মীকে স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্ব দেয়া হলেও দলের প্রতিটি নেতাকর্মীই স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্ব পালন করবেন। সমাবেশে ঢোকার পথে আর্চওয়ে স্থাপন ও স্বেচ্ছাসেবকরা মেটাল ডিটেকটর নিয়ে সংশ্লিষ্ট দায়িত্ব পালন করবে। স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসিন আলী বলেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী-সমর্থকরাই সোহরাওয়ার্দী সমাবেশস্থলটি ভরিয়ে দিতে চায়। সে লক্ষ্যে সোহরাওয়ার্দীর গণসমাবেশ সফল করতে স্বেচ্ছাসেবক দল কেন্দ্রীয়, ঢাকা মহানগর ও ঢাকার আশপাশের জেলাগুলোতে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এদিকে আনুষ্ঠানিক অনুমতি পাওয়ার পর গতকাল শুরু হয় মঞ্চ নির্মাণসহ আনুষঙ্গিক প্রস্তুতি। দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসসহ সিনিয়র নেতারা সমাবেশস্থল পরিদর্শন করেন। বিএনপির সমাবেশস্থল পরিদর্শন করে পুলিশের ডিসি মারুফ হোসেন সরদার। এ সময় তিনি মঞ্চ নির্মাণের বিষয়ে বিএনপি নেতাদের নির্দেশনা দেন। এসময় সেখানে থাকা সমাবেশের নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা বিষয়ক সমন্বয়কের দায়িত্বপ্রাপ্ত আবদুল্লাহ আল নোমান জনসমাগম ও মানুষজনের চলাচলের সুবিধা-অসুবিধার যুক্তি তুলে ধরে সামান্য সরিয়ে মঞ্চ নির্মাণের জায়গা চিহ্নিত করে দেন। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির সমাবেশের নিরাপত্তার বিষয়টি জানতে চাইলে পুলিশের রমনা বিভাগের ডিসি মারুফ হোসেন সরদার মানবজমিনকে জানান, ২৩টি শর্তে বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দেয়া হয়েছে। সমাবেশকে ঘিরে কঠোর ও পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তুলবে পুলিশ। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের আশপাশে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে। পোশাকের পাশাপাশি সাদা পোশাকেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও দায়িত্ব পালন করবেন। সন্দেহভাজনদের দেহতল্লাশি করা হবে। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে পুলিশ সতর্ক থাকবে। উল্লেখ্য, প্রথমে ৮ই নভেম্বর সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ করতে চেয়েছিল বিএনপি। তবে সিপিএ সম্মেলনের কারণে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) ৯ই নভেম্বরের পর সমাবেশ করার পরামর্শ দেয়। এরপর ১১ই নভেম্বর সমাবেশের ঘোষণা দিয়েও যুবলীগের ৪৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সেদিন সোহরাওয়ার্দীতে অনুষ্ঠান থাকায় একদিন পিছিয়ে ১২ই নভেম্বর সমাবেশের দিন চূড়ান্ত করে বিএনপি। প্রায় দুই বছর পর রাজধানীতে এটি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জনসভা। সর্বশেষ ২০১৬ সালের ৫ই জানুয়ারি নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করেছিলেন তিনি। অন্যদিকে সোহরাওয়ার্দীতে খালেদার সর্বশেষ সমাবেশ হয় ২০১৪ সালের ২০শে জানুয়ারি।
গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দেবেন খালেদা
সোহরাওয়ার্দীর সমাবেশে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দেবেন বলে জানিয়েছেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালনই কেবল এই গণসমাবেশের মূল লক্ষ্য নয়। জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্যে চলমান আন্দোলনকে সুসংহত ও জনগণের কাছে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে খালেদা জিয়ার বার্তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে দেশের মানুষ মনে করে। এই সমাবেশ সাংগঠনিকভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ সমাবেশ জাতীয় রাজনীতির জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এ সমাবেশ থেকে চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দেবেন। দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার যে বার্তা আমরা তা জনগণের মাঝে পৌঁছে দিতে চাই। আশা করি জনগণকে আমরা সেই বার্তা দিতে পারবো। সরকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা চেয়ে মির্জা আলমগীর বলেন, সমাবেশ সফল করতে সহযোগিতা করুন। গণতন্ত্রের পথকে সুষ্ঠু করার জন্য আমাদের যে প্রচেষ্টা তাতে সহযোগিতা করুন। কারণ ইতিমধ্যে কয়েকদিনের যেসব ঘটনা আপনারা ঘটিয়েছেন সেগুলো কিন্তু একটা ভিন্ন অর্থ বহন করে। ঢাকা মহানগরসহ বিভিন্নস্থানে নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা ও গ্রেপ্তারসহ পুলিশি তাণ্ডব চলছে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, বিএনপিতে কোনো বিশৃঙ্খলা হয় না। আওয়ামী লীগে তা মানায়। তাদের কোন্দল সম্পর্কে পত্রিকার পাতা খুললেই দেখা যায়। ওবায়দুল কাদের সাহেব ভিত্তিহীন কথা বলবেন না। মিথ্যা প্রচারণা চালিয়ে গণতন্ত্রের পথে যাওয়ার প্রক্রিয়াকে বাধা দেবেন না। আপনারা উসকানি দিয়ে সমাবেশে সমস্যা তৈরি করবেন না। সমাবেশ ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করবেন না। সুষ্ঠু, অবাধ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের যে প্রক্রিয়া আমরা শুরু করেছি তা ব্যাহত করবেন না। আজকে যদি সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হয়, এর দায় আপনাদের নিতে হবে। বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিএনপিকে সমাবেশ করার অনুমতি দেয়া ছাড়া সরকারের সামনে কোনো পথ খোলা নেই। আমরা শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করবো। কিন্তু আওয়ামী লীগ আমাদের সমাবেশের ব্যাপারে নানা টালবাহানা ও উসকানিমূলক কথা বলে আসছে। বিএনপি ও অঙ্গদলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে মির্জা আলমগীর বলেন, রাজধানীর সব থানা-ওয়ার্ড থেকে ঐক্যবদ্ধভাবে গণসমাবেশে যোগ দিন। এই গণসমাবেশে সব নেতাকর্মীকে সবর্দা সতর্ক থাকতে বলা হচ্ছে। চরম উসকানিতেও আপনারা ধৈর্য ধরে এই সমাবেশকে সফল করার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করবেন। আমাদের প্রত্যাশা এই গণসমাবেশে ব্যাপক লোক সমাগমের মধ্যদিয়ে জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটবে। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, আহমদ আজম খান, নিতাই রায় চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, খায়রুল কবির খোকন, হারুন অর রশীদ, কেন্দ্রীয় নেতা ফজলুল হক মিলন, শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, হাবিবুল ইসলাম হাবিব ও শরীফুল আলম উপস্থিত ছিলেন।
অভিযান, গণগ্রেপ্তার
সোহরাওয়ার্দীর সমাবেশকে কেন্দ্র করে শুক্রবার রাত থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় চলছে পুলিশি অভিযান। এসব অভিযানে মহানগর বিএনপি ও অঙ্গদলের প্রায় শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নতুন করে দায়ের করা কয়েকটি মামলায় যুবদল সভাপতিসহ নগর বিএনপি ও অঙ্গদলের বেশ কয়েকজন নেতাকে আসামি করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে নেতাদের বাসাবাড়িতে পুলিশি অভিযান, গ্রেপ্তার ও মামলার একটি বিবরণ তুলে ধরেছেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিএনপি মহাসচিব অভিযোগ করেন, সমাবেশকে ঘিরে বরাবরের মতোই বিএনপি নেতাকর্মীদের গণগ্রেপ্তার করা হচ্ছে। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে রয়েছেন- ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি আতিক উল্লাহ আতিক, শ্রমিক দলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল খায়ের খাজা, ছাত্রদলের সহ-সভাপতি জাকির হোসেন মিন্টু, আশরাফুর রহমান বাবু, যুগ্ম সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি ও অঙ্গদলের নেতাদের মধ্যে- মোহাম্মদপুরের শুক্কুর আলী কোম্পানী, দক্ষিণখানের ইমরান হোসেন, হাজি আশরাফউদ্দিন, আদাবরের লুৎফর রহমান দীপ্তি, বিমানবন্দরের বেলায়েত হোসেন ভূঁইয়া; ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি ও অঙ্গদলের নেতাদের মধ্যে- যাত্রাবাড়ী আমির হোসেন, আবদুল কাদের, শাহবাগে শামসুদ্দিন ভূঁইয়া, শ্যামপুরের মাইনুল ইসলাম মুক্তার, চকবাজারের ইমরান খান, ওয়ারীর মো. রাব্বী, মোহাম্মদ রাসেল, রমনার মিজানুর রহমান, হাবিব উল্লাহ মাহবুব, নিজাম উদ্দিন, গেন্ডারিয়ার বাবলু, বাসেদ, পল্টনের নাছির, শাজাহানপুরের নাছিম, সেলিম, পল্টনের মাসুদ হোসেন, খিলগাঁওয়ের বেলায়েত হোসেন, সবুজবাগের লিটন খান, কামরুজ্জামান উৎপল, কলাবাগানের নিজাম, মিজু, মান্ডার নবী হোসেন, সূত্রাপুরের কাজী সালেহ উদ্দিন, শ্যামপুরের রহমত উল্লাহ ও ফয়সাল, ছাত্রদল নেতা রবিউল ইসলাম রবি, ইয়াসির আরাফাত লিয়ন, ঢাকা কলেজের আবদুল্লাহ আল মামুন, কামরুল ইসলাম, সোহরাওয়ার্দী কলেজের রুবেল, আল আমিন, ইব্রাহিম, নোয়াখালী জেলার আবুল হাসান, ক্রীড়া পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মুনীর হোসেন, যুবদল নেতা মানিক দত্ত ও মুনির। অন্যদিকে জাতীয়তাবাদী যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, ঢাকা মহানগর উত্তর যুবদল সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা জামাল রিয়াদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম রাহিমী, ঢাকা মহানগর বিএনপি নেতা ভিপি হানিফ, সাবেক কমিশনার আবদুল মজিদ, নাজমুল হক মাসুম, যুবদল নেতা শাহীন, টুটুল ও কাকনসহ অসংখ্য নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে বানোয়াট মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিএনপি মহাসচিব জানান, শুক্রবার রাতে দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল মান্নানের ধানমন্ডির বাসভবন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি ইউনুস মৃধা, নবী উল্লাহ নবী, সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমেদ রবিন, মহানগর উত্তরের প্রচার সম্পাদক ভিপি হানিফ, যুবদল ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা জামাল রিয়াদ, সহ-সম্পাদক মনিরুল ইসলাম রাহিমী, কদমতলী যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি সুমন আহমেদ, সূত্রাপুর বিএনপি নেতা মজিবুর রহমান আনু, নুরুল ইসলাম সেন্টু, মান্ডা ইউপি চেয়ারম্যান আলমাসসহ অর্ধশতাধিক নেতার বাসায় অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। বিএনপি মহাসচিব নেতাকর্মীদের বাসাবাড়িতে তল্লাশির নামে তাণ্ডব বন্ধ ও অবিলম্বে গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তি ও তাদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।


বড়পুকুরিয়ায় তৃতীয় ইউনিটে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু : জাতীয় গ্রিডে যোগ হলো ১০০ মেগাওয়াট

অপহরণ করা হলো প্রভাকে!


আরো পড়ুন...

যুদ্ধ বাধলে ইসরাইলকে মুুছে ফেলার হুঙ্কার ইরানের যুদ্ধ বাধলে ইসরাইলকে মুুছে ফেলার হুঙ্কার ইরানের
শেরপুর বাংলার রাম রহিম : দরজা বন্ধ করেই চলে নারীদের থেরাপি! শেরপুর বাংলার রাম রহিম : দরজা বন্ধ করেই চলে নারীদের থেরাপি!
আ’লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদিকাকে কুপিয়ে হত্যা আ’লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদিকাকে কুপিয়ে হত্যা
ইরানের পক্ষে ইউরোপের সব দেশ ইরানের পক্ষে ইউরোপের সব দেশ
মসজিদে নববীতে ইহুদি প্রবেশের অনুমতি দিলো সৌদি মসজিদে নববীতে ইহুদি প্রবেশের অনুমতি দিলো সৌদি
প্রেমিকের ফেসবুকে ছবি পোস্ট করায় প্রেমিকার আত্মহত্যা, প্রেমিক গ্রেপ্তার! প্রেমিকের ফেসবুকে ছবি পোস্ট করায় প্রেমিকার আত্মহত্যা, প্রেমিক গ্রেপ্তার!
ঘুমে ব্যাঘাত ঘটায় বাবাকে নির্মমভাবে খুন করলো ছেলে! ঘুমে ব্যাঘাত ঘটায় বাবাকে নির্মমভাবে খুন করলো ছেলে!
স্টুডিও’র অন্তরালে পর্ণো ভিডিও ব্যবসার অভিযোগে কুমারখালীর চরসাদীপুর থেকে ৩টি কম্পিউটার জব্দ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় ও কম্পিউটার বাজেয়াপ্ত স্টুডিও’র অন্তরালে পর্ণো ভিডিও ব্যবসার অভিযোগে কুমারখালীর চরসাদীপুর থেকে ৩টি কম্পিউটার জব্দ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় ও কম্পিউটার বাজেয়াপ্ত
স্বাধীনতা যুদ্ধে জিয়াউর রহমান পাকিস্তানের এজেন্ট ছিলেন: হানিফ স্বাধীনতা যুদ্ধে জিয়াউর রহমান পাকিস্তানের এজেন্ট ছিলেন: হানিফ
কুষ্টিয়া জেলা টেলিভিশন ক্যমেরাপার্সন এসোসিয়েশন (টিসিএ) জরুরী সভা অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়া জেলা টেলিভিশন ক্যমেরাপার্সন এসোসিয়েশন (টিসিএ) জরুরী সভা অনুষ্ঠিত

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
যুদ্ধ বাধলে ইসরাইলকে মুুছে ফেলার হুঙ্কার ইরানের
শেরপুর বাংলার রাম রহিম : দরজা বন্ধ করেই চলে নারীদের থেরাপি!
আ’লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদিকাকে কুপিয়ে হত্যা
ইরানের পক্ষে ইউরোপের সব দেশ
মসজিদে নববীতে ইহুদি প্রবেশের অনুমতি দিলো সৌদি
প্রেমিকের ফেসবুকে ছবি পোস্ট করায় প্রেমিকার আত্মহত্যা, প্রেমিক গ্রেপ্তার!
ঘুমে ব্যাঘাত ঘটায় বাবাকে নির্মমভাবে খুন করলো ছেলে!
স্টুডিও’র অন্তরালে পর্ণো ভিডিও ব্যবসার অভিযোগে কুমারখালীর চরসাদীপুর থেকে ৩টি কম্পিউটার জব্দ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় ও কম্পিউটার বাজেয়াপ্ত
স্বাধীনতা যুদ্ধে জিয়াউর রহমান পাকিস্তানের এজেন্ট ছিলেন: হানিফ
কুষ্টিয়া জেলা টেলিভিশন ক্যমেরাপার্সন এসোসিয়েশন (টিসিএ) জরুরী সভা অনুষ্ঠিত
বগুড়ায় মসজিদে লক্ষাধিক টাকার চুরি
পলাশবাড়ীতে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা নিয়েও ভেলকিবাজির অভিযোগ ॥ খতিয়ে দেখার কেউ নেই
তেঁতুলিয়াকে অন্যতম পর্যটন এলাকা গড়ার লক্ষে শোভাবর্ধন কাজের উদ্বোধন
স্ত্রীকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে সৎ মেয়েকে ধর্ষণ,বাবার যাবজ্জীবন
মাদ্রাসার সুপারের দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ!!
মৌলভীবাজারে দলিল লেখক সমিতির মানববন্ধন ও স্বারকলিপি প্রদান
চাচির সাথে বাবার পরকীয়া দেখে ফেলাই কাল হলো ফরিদার
কুষ্টিয়ায় ২ জনের ফাঁসি, ৮ জনের যাবজ্জীবন
চাকুরি দেয়ার নামে প্রতারণা, ৬ প্রতারক আটক
কুষ্টিয়ায় ৩৭৬ বোতল ফেনসিডিলসহ ২জন আটক