ঢাকা, শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮, ৮ আষাঢ় ১৪২৫
Bijoynews24.com
প্রথম পাতা » Slider » গোবিন্দগঞ্জে পিস্তল-গুলিসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক
বুধবার ● ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭
Email this News Print Friendly Version

গোবিন্দগঞ্জে পিস্তল-গুলিসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

---আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা শহরের পান্তাপাড়া গ্রাম থেকে মঙ্গলবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে রাকিব ইসলাম ওরফে চেংটু (৩০) নামের এক মাদক ব্যবসায়িকে ৩০ পিস ইয়াবাসহ পুলিশ তাকে আটক করে। এসময় পুলিশ তার কাছ থেকে ১টি পিস্তল, ১টি ম্যাগজিন, ২ রাউন্ড গুলি, ৪টি মোবাইল জব্দ করা হয়। রাকিব ইসলাম চেংটু ওই গ্রামের আব্দুল সরকারের ছেলে।

পুলিশ জানায়, রাকিব ইসলাম চেংটু দীর্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছে। আমাদের কাছে তথ্য ছিল দীর্ঘদিন ধরে রাকিব অস্ত্র নিয়ে গভীর রাতে ইয়াবা বিক্রি করতো এবং ঘুরে বেড়াত। এরই সূত্র ধরে অভিযান চালিয়ে দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টায় তাকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। এছাড়া গোবিন্দগঞ্জ থানায় চেংটুর নামে তিনটি মাদক মামলা রয়েছে।

সুন্দরগঞ্জে মামলা তুলে নিতে হুমকি

পরিবার নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় বাদী

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় জমি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় মামলার বাদীকে মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি ও বসতভিটা থেকে উচ্ছেদের চাপ দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অপরদিকে আসামীরা জামিনে মুক্ত হয়ে বাদিকে নানাভাবে হয়রানি করছেন। আসামীদের ভয়ে বাদী তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছেন। এদিকে জখমের সাথে মিল রেখে ডাক্তারী সার্টিফিকেট না পাওয়ায় ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে বাদির। পুলিশে দাবি বাদির জখমের সাথে ডাক্তারী সার্টিফিকেটের গড়মিল রয়েছে। তাই পুনরায় সিভিল সার্জনের কাছে মেডিকেল বোর্ড গঠন করে বাদির জখমের সাথে মিল রেখে ডাক্তারী সার্টিফিকেট চাওয়া হয়েছে।

অভিযোগে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার কঞ্চিবাড়ী ইউনিয়নের কঞ্চিবাড়ী গ্রামের আব্দুল ওয়াহেদের(৫২) সাথে একই গ্রামের আয়নাল হকের জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে চলতি বছরের ১ জুন আয়নাল হক তার লোকজন নিয়ে আব্দুল ওয়াহেদের জমি জবরদখলের উদ্দেশ্যে পাওয়ার টিলার নিয়ে চাষ শুরু করে। এসময় আব্দুল ওয়াহেদ ও তার স্ত্রী রাশেদা বেগম বাঁধা দিতে গেলে আয়নাল হক ও তার লোকজন তাদের উপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা করে। তারা আব্দুল ওয়াহেদের মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপালে তিনি গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতলে ভর্তি করে। তার মাথায় কাটাজখমে ২৩টি সেলাই করা হয়। হাসপাতালে আব্দুুল ওয়াহেদ দীর্ঘদিন চিকিৎসা গ্রহন করেন। এই ঘটনায় আব্দুল ওয়াহেদ বাদি হয়ে আয়নাল হকসহ সাতজনকে আসামী করে সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ওয়াহেদ আলী অভিযোগ করেন, আমার মাথায় আসামিরা ধারালো অস্ত্র দ্বারা আঘাত করলে দুইটি কাটাজখমে ২৩টি সেলাই করা হয়েছে। আমি গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতালে ১৯ দিন ভর্তি ছিলাম। অথচ আসামিদের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার(আরএমও) ডাঃ শাহীনুল ইসলাম আমাকে ১৯ জুলাই ছাড়পত্র দিয়ে হাসপাতাল থেকে বের করে দেয়। তখনও আমি অসুস্থ্য ছিলাম। তিনি আরও বলেন, আমার মাথায় কাটাজখম ও ২৩টি সেলাই দেওয়াকে হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আসামীদের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে আমার মাথায় কাটা জখমকে সামান্য আহত উল্লেখ করে পুলিশের কাছে ডাক্তারী সনদপত্র দেন। এতে করে আমি ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশংকা করছি। তিনি বলেন, আমার মামলায় আসামীরা জামিনে মুক্ত হয়ে এসে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য আমাকে ও আমার পরিবারের সদস্যদের নানাভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি দিচ্ছে।

এই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সুন্দরগঞ্জ থানার এসআই বাবুল হোসেন বলেন, গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসারের (আরএমও) দেওয়া বাদির জঘমের সাথে চিকিৎসকের সনদপত্রের বিরাট গড়মিল পাওয়া গেছে। যে কারণে পুলিশ সুপার মহোদয়ের মাধ্যমে পুনরায় সিভিল সার্জনের কাছে মেডিকেল বোর্ড গঠন করে ওয়াহেদ আলীর ২৩টি সেলাই নিয়ে ১৯ দিন হাসপাতালে ভর্তি থাকায় বাদির জখমের সাথে মিল রেখে ডাক্তারী সার্টিফিকেট প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিয়ার রহমান বলেন, মামলা তদন্তাধীন রয়েছে। বাদির জঘমের সাথে মিল রেখে গাইবান্ধা সদর হাসপাতাল থেকে মেডিকেল সার্টিফিকেট পাওয়া গেলে অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে


বগুড়ায় প্রতিবন্ধী কিশোরীকে গনধর্ষন, ৫ মাসের অন্তসত্বা

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে আজ সংসদে আলোচনা


পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
উচ্ছ্বসিত বুবলী
ক্রোয়েশিয়ার গোল উৎসব, গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায়ের শঙ্কায় আর্জেন্টিনা
ময়মনসিংহে মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত ২
শ্বাসরুদ্ধকর অপেক্ষা
নতুন সেনা প্রধান লে.জে. অাজিজ অাহমেদের বর্নিল জীবন
যে যুবতী ফুটবল মাঠে পোশাকের তোয়াক্কা করেন না
ফুলবাড়ী রেলওয়ে স্টেশনে ট্রেনের টিকিট কালোবাজারীদের হাতে : দেখার কেউ নেই
আনুষ্কার সঙ্গে সম্পর্ক, মুখ খুললেন প্রভাস
৪ মিনিটে মিশরের জালে আরো ২ গোল রাশিয়ার
প্রচারণায় কেন্দ্রীয় নেতারা উত্তেজনা বাড়ছে
অপরিবর্তিত বন্যা পরিস্থিতি : কুশিয়ারা নদীর বাঁধে নতুন করে ভাঙ্গন : শহর রক্ষা বাঁধ সংস্কারে কাজ শুরু
গাইবান্ধায় মাদক বিরোধী অভিযানে : গ্রেফতার ৭
খালেদা জিয়ার মুক্তি ও চিকিৎসার দাবিতে বিএনপির বিক্ষোভ বৃহস্পতিবার
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষাৎ
পর্যটকের ভীড়ে মুখর পাহাড় ঘেরা বান্দরবান!
জাপানের ঐতিহাসিক জয়
২১ জুলাই প্রধানমন্ত্রীকে গনসংবর্ধনা দেওয়া হবে
কুতুবদিয়া থানার সাবেক ওসি আলতাফ জেলহাজতে
ড. মোশারফের গাড়িবহরে বাসের ধাক্কা, ছাত্রদল নেতা নিহত
উখিয়ায় ক্যাম্পে রোহিঙ্গা নেতাকে গলাকেটে হত্যা