ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট ২০১৭, ৫ ভাদ্র ১৪২৪
Bijoynews24.com
প্রথম পাতা » Slider » নীলফামারীতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্লিপের টাকা আত্মসাত
বুধবার ● ৯ আগস্ট ২০১৭
Email this News Print Friendly Version

নীলফামারীতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্লিপের টাকা আত্মসাত


---রেজাউল করিম রঞ্জু,নীলফামারী প্রতিনিধি
: নীলফামারী সদর মধ্য রামনগড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সরকার বরাদ্দকৃত স্লিপের ৫৪ হাজার টাকা নিজ পেট ভোজন করেন প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক হিরম্ব কুমার রায়। এবং আরেক সহকারী শিক্ষক গ্রাম ডা: কামেনী মোহন রায়ের সাথে প্রধান শিক্ষক জোগসাজস করে কামেনী বিদ্যালয় ফাঁকি দেন ক্লাস করেননা। সে তার চিকিৎসা পেশা ডা: রোগী নিয়ে ব্যস্ত থাকেন সব সময়। শিক্ষক কামেনীর সাথে কথা বললে তিনি বলেন আমি রোগী নিয়ে ব্যস্ত তাই মাঝে মাঝে বিদ্যালয়ে এসে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে যাই। আর সময় পেলে ক্লাস নেই। তবে সরেজমিনে গিয়ে পাওয়া যায় ডা: কামেনী রায় হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করেন নাই। এলাকার সচেতন কিছু লোক অভিযোগকারী সুবত রায়, গলি রায়, বিধি ভুষন, লাল বাবু বলেন,ডা: কামেনী ঠিকমতো বিদ্যালয়ে আসেননা। সে এলাকার বড় ডাক্তার হিসাবে পরিচিত কাটা ফাসা সেলাই সব করেন, তাহলে সে কিভাবে মাষ্টারী করতে পারেন বলেন? প্রধান শিক্ষক হিরম্বর সাথে কথা বললে তিনি বলেন আমি স্লিপের টাকার কিছু কিনতে পারিনী। তবে আমার গতবারের সব কেনা আছে তাই এবার কেনার দরকার কি? আমার প্রয়োজন হলে কিনব। এবং তার কাছে স্লিপের কাজের টপসিট চাইলে তিনি বলেন,আমি চাবি বাড়ীতে রেখে এসেছি দেখাবো কিভাবে। আর কাজের বিষয়ে জানতে চাইলে সব বিষয়ে এলোমেলো ভাবে এড়িয়ে যান। আর বিদ্যালয়ের পরীক্ষার ফির বিষয়ে বললে তিনি বলেন কিছুতো ফি বেশী নিতেই হয়। আমাদের অফিসের চা নাস্তার তো ব্যাপার আছে। এদিকে ২নং রামনগড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের স্লিপের টাকা ও টেষ্ট রিলিপের টাকা প্রধান শিক্ষক কাজী আব্দুস সালাম সম্পুর্ন আতœসাত করেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। তাই এলাকাবাসির দাবি অনিয়ম প্রধান শিক্ষকের কর্মকান্ড সু নজরে দেখার জন্য শিক্ষা অধিদপ্তরের দৃষ্টি কামনা করেন।

নীলফামারী সদরে মাদ্রাসা গুলি চলছে

ঢিমে তালে-দেখার কেউ নেই

রেজাউল করিম রঞ্জু,নীলফামারী।

নীলফামারী সদর উপজেলার রামনগর ইউনিয়নে চড়চড়াবাড়ী দারুস সুন্নত আলিম মাদ্রাসা। দীর্ঘদিন পূর্বে মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠিত হলেও ইবতেদায়ী শাখার কাগজে পত্রে শিক্ষার্থীর সংখ্যা সর্বমোট-৩৮জন। নিয়মিত পঞ্চম শ্রেনিতে ২০জন শিক্ষার্থীর মধ্যে উপস্থিত থাকে ৬জন। অন্য কোন শ্রেনি অর্থাৎ ১ম শ্রেনি থেকে চতুর্থ শ্রেনি পযর্ন্ত কোন শিক্ষার্থী উপস্থিত থাকেনা। সরকার থেকে প্রাপ্ত পাঠ্যপুস্তক গুলো মাদ্রাসায় এখন জরাজীর্ন হয়ে স্তুপ করে রাখা হয়েছে অথচ ইবতেদায়ী শাখায় ৪জন শিক্ষক মাদ্রাসা থেকে নিয়মিত বেতন তোলা সহ অনান্য সুযোগ সুবিধা গ্রহন করছেন। মাদ্রাসায় শির্ক্ষাথীদের উপস্থিতি নেই কেন জিজ্ঞাসা করলে ইবতেদায়ী প্রধান আফজাজুল হক বলেন মাদ্রসায় বিস্কুট দেওয়া হয়না বলে শিক্ষার্থীরা মাদ্রাসায় আসেনা। একই মাদ্রাসা আলিম শাখার অধ্যক্ষ খন্দকার আহসানুল হাবিব কে তাঁর শাখার শিক্ষার্থীর সংখ্যা জিজ্ঞাসা করলে বলেন- ৯৭জন ভর্তি হলেও নিয়মিত উপস্থিত থাকে ২০-২৫জন। শিক্ষার্থী সংখ্যা কম থাকলেও পাঠ্যপুস্তুকের চাহিদা বেশি দিয়ে সরকারের ক্ষতি করেন কেন? জিজ্ঞাসা করলে বলেন, বুঝতে পারেন না, চাহিদা বেশি না দিলে কোন পাঠ্যপুস্তুক পাওয়া যাবে না। এজন্য বেশি করে চাহিদা দেওয়া হয়। একই অবস্থা বিরাজ করছে, সদর উপজেলার কুন্দপুকুর ইউনিয়নে দারোয়ানী কুন্দপুকুর মনির উদ্দিন দাখিল মাদ্রাসায়। ইবতেদায়ী শাখায় শিক্ষার্থী কাগজে পত্রে ৮৯জন এবং দাখিল শাখায় কাগজেপত্রে ৩২৭জন। অথচ ইবতেদায়ী শাখায় কোন শিক্ষার্থী উপস্থিত থাকে না এবং দাখিল শাখায় নিয়মিত ২৫/৩০জন উপস্থিত থাকে। ইবতেদায়ী শাখায় শিক্ষক হিসাবে দায়িত্বে রয়েছেন ৩জন। মাদ্রাসার সুপারিনটেনডেন্ট  মো: আ: রাজ্জাক সপ্তাহে ১দিন মাদ্রাসায় এসে ৬ দিনের স্বাক্ষর করেন বলে অভিভাবকরা অভিযোগ করেছেন। শিক্ষার্থীর উপস্থিতি কমের কারণ হিসাবে সুপারিনটেন্টডেন্ট অভিযোগ করে বলেন মাদ্রাসায় উপস্থিত চালু না থাকায় শিক্ষার্থীর উপস্থিতি কম। এই ব্যাপারে সদর উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আহম্মেদ আহসান হাবিব এর সাথে কথা হলে তিনি বলেন একাডেমিক সুপার ভাইজারকে পাঠিয়ে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজণীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।


‘আমার বিয়ের সিদ্ধান্ত প্রকৃতির উপর ছেড়ে দিয়েছি

স্থায়ী জামিন পেলেন খালেদা


পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
ওরা ক্ষমতায় এলে ১ লক্ষ লোককে খুন করবে’
নিজের স্ত্রীকেই ছয়বার বিয়ে করে তুফান!
৩১টি করিডর খুলে দেওয়ায় ভারত সীমান্ত দিয়ে আসছে গরুর পাল
“ক্যাম্পাস ” ম্যাগাজিনের মোড়ক উন্মোচন
হোটেলে নারীসহ ধরা পড়লো সমাজসেবা কর্মকর্তা
অন্তঃসত্ত্বার কারণেই রিয়া সেনের তড়িঘড়ি বিয়ে!
ন্যান্‌সির আক্ষেপ
ভারতে ট্রেন দূর্ঘটনায় ১০ জন নিহত, আহত ৩০
আজব এক দম্পতি
মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে : হাজ্বী রবিউল ইসলাম
গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত : করতোয়া নদীর পানি বেড়ে গোবিন্দগঞ্জে বন্যা
নওগাঁয় ছোট যমুনা নদীর ভাঙ্গা বাঁধ দিয়ে পানি প্রবেশ অব্যাহত: বন্যার পানিতে পড়ে ২ শিশুর মৃত্যু
১০ দিন পর বগুড়া থেকে ইবি শিক্ষার্থী উদ্ধার
বাংলাদেশ মানবাধিকার নাট্য পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পন্ন
চিরিরবন্দরে ট্রাকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষে কলেজ ছাত্র নিহত
পঞ্চগড়ে জমি দখল নিতে এ কেমন বর্বরতা!
নন্দীগ্রামে মাধবকুড়ি গ্রামে বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন করলেন এমপি তানসেন
অপহরণের তিন‌দিন পর ক‌লেজ ছা‌ত্রের লাশ উদ্ধার : গ্রেফতার ১
তৃতীয়বারও ক্ষমতায় আসবে শেখ হাসিনা: ভারতীয় পত্রিকা
দক্ষিণবঙ্গের জালিয়াত চক্রের প্রধান জলিল হুজুর গ্রেফতার